Cvoice24.com

ব্রিজ দেবে রুমা-থানচি সড়কে যান চলাচল বন্ধ

সিভয়েস২৪ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৫:৪৮, ২৮ মে ২০২৪
ব্রিজ দেবে রুমা-থানচি সড়কে যান চলাচল বন্ধ

প্রবল ঘূর্ণিঝড় পরবর্তী অতিবর্ষণে বান্দরবান সদরের লাইমীপাড়া এলাকায় বেইলি ব্রিজ দেবে গেছে। এতে জেলার সঙ্গে রুমা-থানচির সড়ক যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। মঙ্গলবার (২৮ মে) সকাল থেকে দুই উপজেলায় যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। তবে ষোল ঘণ্টা পর মঙ্গলবার সকালে জেলা শহরে আংশিক বিদ্যুৎ সরবরাহ চালু করা হয়। 

জানা গেছে, ঘূর্ণিঝড় পরবর্তী ভারি বর্ষণে বান্দরবান সদরের লাইমী পাড়া এলাকায় বেইলি ব্রিজ দেবে গেলে মঙ্গলবার সকাল থেকে জেলার সঙ্গে রুমা-থানচির সড়ক যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। বৃষ্টির কারণে জেলার অভ্যন্তরীণ রুমা-রোয়াংছড়ি, থানচি-আলীকদম, বান্দরবান-লামা-সূয়ালক, বান্দরবান-বাঙ্গালহালিয়া-রাঙামাটি, ফাসিয়াখালী-লামা, ফাইতং-লামা গজালিয়া সড়কে ছোট ছোট পাহাড় ধসে কাদামাটি জমে চলাচলের পথ বিপজ্জনক হয়ে উঠেছে। 

প্রশাসন জানায়, ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে গত শনিবার (২৫ মে) থেকেই জেলার সাত উপজেলায় ঝোড়ো বাতাসসহ বৃষ্টি হচ্ছে। পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে এসব উপজেলার চৌত্রিশটি ইউনিয়নের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সাইক্লোন সেন্টারে ২০৭টি অস্থায়ী আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে। একই সঙ্গে কয়েকদিনের টানা বৃষ্টিতে পাহাড় ধসে প্রাণহানির শঙ্কা দেখা দিয়েছে। পাহাড়ের পাদদেশে বসবাসকারীদের ঝুঁকিপূর্ণ বসতিগুলো ছেড়ে নিরাপদ আশ্রয়ে সরে যেতে প্রশাসন, ফায়ার সার্ভিস ও পৌরসভার পক্ষ থেকে মাইকিং করা হচ্ছে।

জেলা প্রশাসক শাহ্ মোজাহিদ উদ্দিন জানান, ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে তিনদিন ধরেই বৃষ্টি হচ্ছে জেলায়। এ জন্য পাহাড় ধসে প্রাণহানির শঙ্কায় পাহাড়ের পাদদেশে ও ঝুঁকিপূর্ণভাবে বসবাসরত বাসিন্দাদের নিরাপদ আশ্রয়ে সরে যেতে মাইকিং করা হচ্ছে। পরিস্থিতি মোকাবেলায় সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে। 

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়