Cvoice24.com

মিরসরাইয়ে নৌকার বিদ্রোহী প্রার্থীর অফিস ভাঙচুর

মিরসরাই প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২১:০১, ২৬ অক্টোবর ২০২১
মিরসরাইয়ে নৌকার বিদ্রোহী প্রার্থীর অফিস ভাঙচুর

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ের সদর ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সাইফুল্লাহ দিদারের অফিসে ভাঙচুর ও হামলা চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। তবে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী শামসুল আলম দিদারের ভাই দুলালের নেতৃত্বে এ হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ সাইফুল্লাহর। এর আগে, দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করায় সাইফুল্লাহ দিদারকে দল থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) মনোনয়ন প্রত্যাহার না করায় তাকে দল থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়। এরপর সন্ধ্যায় ১৫ থেকে ২০ জনের একটি গ্রুপ তার ব্যবসায়িক অফিসে গিয়ে হামলা ও জিনিসপত্র ভাংচুরের ঘটনা ঘটায়। 

এদিকে হামলার ঘটনায় এখন পর্যন্ত কেউ কোনো অভিযোগ করেননি বলে জানিয়েছেন মিরসরাই থানার ডিউটি অফিসার এএসআই জসিম উদ্দিন। তিনি বলেন, ‘অফিস ভাংচুরের বিষয়ে এখনো কোন অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

জানা গেছে, মিরসরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাইফুল্লাহ দিদার ৯ নম্বর মিরসরাই সদর ইউনিয়ন থেকে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন। তবে দল থেকে মনোনয়ন বঞ্চিত হওয়ায় তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে শেষ পর্যন্ত লড়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন। এদিকে আজ মঙ্গলবার মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে তিনি মনোনয়ন প্রত্যাহার না করায় তাকে দল থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন মিরসরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক সৈয়দ মোহাম্মদ আলতাফ হোসেন। 

এদিন বিকেলে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক একে এম জাহাঙ্গীর ভূঁইয়ার সম্মতিক্রমে দপ্তর সম্পাদক সৈয়দ মোহাম্মদ আলতাফ হোসেন স্বাক্ষরিত অব্যাহতিপত্রে বলা হয়, স্থানীয় সরকার নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনের জন্য বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নিকট নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন সাইফুল্লাহ দিদার। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ড তাকে মনোনয়ন না দেয়ায় ক্ষুদ্ধ হয়ে আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর বিরুদ্ধে প্রার্থী হয়েছেন। যা দলীয় শৃংখলা ও দলীয় নির্বাচনের পরিপন্থী। তাই দলীয় শৃংখলা ভঙ্গের কারণে মিরসরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান কার্যকরী কমিটির যুগ্ম সম্পাদক সম্পাদকের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়।

বিদ্রোহী প্রার্থী সাইফুল্লাহ দিদার অভিযোগ করে বলেন, ‘আজ সন্ধ্যায় আমার প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী শামসুল আলম দিদারের ভাই দুলালের নেতৃত্বে ১৫ থেকে ২০ জনের একটি গ্রুপ এসে আমার ব্যবসায়িক অফিস ভাংচুর করে। এসময় তারা জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি, বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণের ছবি ভাংচুর করে। এছাড়া আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের গুরুত্বপূর্ণ জিনিসপত্র, সিসিটিভি খুলে নিয়ে যায় এবং ব্যাপক মালামাল ভাংচুর করেছে। এই বিষয়টি উপজেলা নির্বাচন অফিস ও মিরসরাই থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়ার প্রক্রিয়া চলমান।’

দল থেকে অব্যাহতির বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘অব্যাহতির ব্যাপারে আমার কিছু জানা নেই। দলীয়ভাবে আমাকে কিছু জানানো হয়নি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ রকম কোন কঠোর সিদ্ধান্ত দেননি যে বিদ্রোহী প্রার্থী ঠেকাতে দল থেকে অব্যাহতি দেয়া হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘জনসমর্থনহীন কেউ নির্বাচন করতে পারে না। আমার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর কোন জনসমর্থন নেই। আমি আমার ইউনিয়নের জনগণের সমর্থন নিয়ে নির্বাচন করছি। আজকে তারা আমার পক্ষে গণজোয়ার দেখেই আমার অফিসে হামলা ও ভাঙচুর চালিয়েছে।

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়