Cvoice24.com

মিরসরাইয়ে বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যা, মা-ছেলে গ্রেপ্তার

মিরসরাই প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৯:৪৮, ৪ জানুয়ারি ২০২২
মিরসরাইয়ে বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যা, মা-ছেলে গ্রেপ্তার

পিটিয়ে হত্যা। -প্রতীকী ছবি

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে এক বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তারা সম্পর্কে মা ও ছেলে বলে জানা গেছে।

সোমবার (৩ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় উপজেলার ৮ নম্বর দূর্গাপুর ইউনিয়নের দূর্গাবাড়ির পাশে এ ঘটনা ঘটে।

গ্রেপ্তার দুইজন হলেন— লক্ষী দাস (৫০) ও রনি দাস। এছাড়া নিহতের নাম ননি গোপাল দে (৭৫)। সে ওই গ্রামের দেওয়ানজি বাড়ির মৃত সুরেন্দ্র কুমার দের ছেলে। এ ঘটনায় নিহত ননী গোপালের ছেলে তাপস কুমার দে বাদি হয়ে জোরারগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

নিহতের ভাতিজা ইন্দ্রজিৎ দে জানান, সোমবার দুপুরে নিহতের ছেলে তাপস কুমার দে এবং তার বন্ধুরা মিলে রাস্তা দিয়ে চলাচলের সময় গ্রামে বাড়ি নির্মাণ না করে শহরে করা ভালো এমন মন্তব্য করেন। এসময় প্রতিবেশী গণেশ দাসের স্ত্রী লক্ষী দাস (৫০) কথাটি নিজের গায়ে নিয়ে তাদেরকে কটু কথা বলে এবং গালী দেয়। এঘটনার রেশ ধরে সন্ধ্যায় তাপসের পিতা ননি গোপাল বিষয়টি লক্ষী দাসকে জিজ্ঞেস করলে সে উত্তেজিত হয়ে ননি গোপালের সঙ্গে বিবাদে লিপ্ত হন। এ সময় তাপস তার পায়ের জুতা লক্ষীর দিকে ছুড়ে মারলে তা লক্ষভ্রষ্ট হয়। পরে লক্ষ্মী সে জুতা নিয়ে ননি গোপালের মাথায় আঘাত করে। এসময় চিৎকার করে তার ছেলে রনি দাসকে ডেকে আনে। রনিও তার পায়ের জুতা দিয়ে ননি গোপালকে আঘাত করে। একপর্যায়ে ননি গোপাল অজ্ঞান হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। পরে স্বজনরা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।

হাসপাতালে কর্মরত চিকিৎসক রাজু সিংহ জানান, হাসপাতালে আনার পূর্বে ননি গোপাল মারা যায়। খবর পেয়ে হাসপাতাল থেকে লাশ থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। লাশের সুরতহাল করে তিনি জানান, লাশের গায়ে আঘাতের কোন চিহ্ন নেই।

জোরারগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ নুর হোসেন মামুন বলেন, লাশের ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় নিহত ননি গোপালের ছেলে তাপস কুমার দে বাদি হয়ে লক্ষী দাশ ও তাঁর ছেলে রনি দাশকে আসামি করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। মামলায় অভিযুক্ত আসামিদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়