Cvoice24.com
corona-awareness

মধ্যস্থতাকারী যুবলীগের শীর্ষ নেতা

অপহৃতকে ছেড়ে দিলেও আটক হয়নি আ.লীগ নেতা রানা

প্রকাশিত: ১৯:২৬, ১৬ অক্টোবর ২০২০
অপহৃতকে ছেড়ে দিলেও আটক হয়নি আ.লীগ নেতা রানা

অহহৃত ব্যবসায়ী ও তার স্ত্রীর জিডির কপি

কমিশন ব্যবসার জেরে সাইফুল ইসলাম নামের এক ব্যবসায়ীকে দিন দুপুরে ফিল্মি স্ট্যাইলে অপহরণ করেন কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাবেক নেতা নওশেদ মাহমুদ রানা। তবে দুপুরের দিকে জোর পূর্বক দলবল নিয়ে হালিশহর নয়া বাজার এলাকা থেকে এ অপহরণ করলেও পরে পুলিশি অভিযানের মুখে অপহৃত ব্যবসায়ীকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হয় রানা।

শুক্রবার দিবাগত রাত একটা ১৫ মিনিটের দিকে একটি মোটর সাইকেল করে চান্দগাঁও এলাকা থেকে অপহৃত সাইফুলকে এনে জিইসি মোড় এলাকায় ছেড়ে দেওয়া হয়।

যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও আওয়ামী লীগের উপ কমিটির সাবেক সহ সম্পাদক নওশাদ মাহমুদ রানার গ্রেফতার এড়াতে এই ছেড়ে দেওয়ার ঘটনাটি সাজিয়েছে বলে জানা গেছে। মূলত এর নেপথ্যে কাজ করেছেন নগর আওয়ামীগে সম সাময়িক সময়ে প্রভাবশালী হয়ে উঠা এক নেতা। ওই নেতার চান্দগাঁও থানা এলাকার বাসায় শুক্রবার মধ্যরাতে পুলিশি অভিযানে টিকতে না পেরে আশ্রয় নেন অভিযুক্ত রানা। এখবর পেয়ে সেখানে মধ্যস্থতা করতে পৌঁছান নগর যুবলীগের শীর্ষ এক নেতা। যিনি রানার বন্ধু ও ইতোমধ্যে নানা কাজে বির্তক সৃষ্টি করেছেন। পরে প্রভাবশী ওই আওয়ামী লীগ নেতা ডাকেন হালিশহর থানা পুলিশকে। 

অভিযানকারী দল অপহৃত ব্যবসায়ীকে উদ্ধারে প্রথমে অভিযুক্ত রানার মেহেদীবাগের বাসায় অভিযান চালায়। সেখানে না পেয়ে তার পুরানো বাড়ি চান্দগাঁও এর গোলাম নাজির আলী বাড়িতেও অভিযান চালায়। কিন্তু কোথাও থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত ভিকটিমকে উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ আর আটক করা হয়নি নওশাদ মাহমুদ রানা ও তার সহযোগিদের। পরে ওই আওয়ামী নেতার বাসার বৈঠকে ভিকটিমের স্ত্রী জান্নাতুল ফেরদৌস, যুবলীগের শীর্ষ এক নেতা ও হালিশহর থানা পুলিশের একটি টিম বৈঠক করেন।

এরইমধ্য সিএমপির উপ কমিশনার (পশ্চিম) ফারুকুল হকের চাপে ভিকটিম সাইফুলকে মোটর সাইকেলে করে জিইসিতে রেখে আসেন রানার লোকজন। ছেড়ে দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন অপহৃতের খালাতো ভাই লুৎফর এহসান শাহ। 

সার্বিক বিষয় সম্পর্কে সিএমপির উপ কমিশনার (পশ্চিম) ফারুকুল হক শুক্রবার মধ্যরাতে সিভিয়সকে বলেন, 'অপহৃত ব্যবসায়ীকে উদ্ধারে আমাদের টিম সিএমপির একাধিক এলাকায় কাজ করছে৷ কোন নেতার বাসায় রানা অবস্থান নিয়েছে আমি জানিনা। আমি বলে দিয়েছি অপহৃতকে বাসায় ফিরিয়ে দিতে। আমি আবার বলছি তারা (অপহরণকারীরা) যাতে কোনও সিন ক্রিয়েট না করে।' 

সিএমপির এক কর্মকর্তা জানান, শুক্রবার দিবাগত রাত একটার পরও চান্দগাঁও থানা এলাকার ওই আওয়ামী লীগ নেতার বাসার সামনে চার পাঁচটি গাড়ি পার্কিং করা ছিল। তবে সেখানে কারা ছিল সেটা ওই কর্মকর্তা জানেন না বলে জানান। তবে ওই আওয়ামী লীগ নেতার বাসায় মধ্যস্থতাকারী যুবলীগের শীর্ষ ওই নেতা ছাড়াও পুলিশ, ভিকটিমের স্ত্রী এবং অভিযুক্ত রানাও ছিলেন বলে গোপন সূত্রে জানা গেছে।

এরআগে ১৬ অক্টোবর (শুক্রবার) বিকাল ৩টায় চট্টগ্রাম শহরের হালিশহর এলাকার বউবাজারের দুলহান কমিউনিটি সেন্টারের সামনে থেকে ব্যবসায়ী সাইফুলকে অপহরণ করা হয় 

হালিশহর থানায় দায়ের করা অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, মুহাম্মদ সাইফুল স্ত্রীসহ ছেলেমেয়ে নিয়ে নিজের প্রাইভেট গাড়িতে করে হালিশহর থানার বউ বাজার এলাকার দুলহান কমিউনিটি সেন্টারে একটি আত্বীয় এর বিয়ে বাড়িতে যান। 

বিয়ের দাওয়াত শেষে নিজের ব্যক্তিগত গাড়িতে উঠতে গেলেই, আগে থেকে পূর্বপরিকল্পিত ভাবে ব্যবসায়ীক বিরোধ থাকা যুবলীগের সাবেক নেতা নওশাদ মাহমুদ রানা (৫৩) এবং তার ড্রাইভার মুহাম্মদ ইকবালসহ ১০/১৫জন  সাইফুল ইসলামকে প্রকাশ্যে মারধর করে এলটি সিলভার কালার নোহা করে নিয়ে যায়।

সাইফুল ইসলামকে নিয়ে যাওয়ার সময় বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকা লোকজন বাধা দিলে তাদের লাঠি ও বিভিন্ন দেশীয় অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে দ্রুত বউ বাজার এলাকার দুলহান কমিউনিটি স্থান ত্যাগ করে ব্যবসায়ী  অপহরণকারীরা।

এ বিষয়ে হালিশহর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন, অপহৃত ব্যবসায়ী মুহাম্মদ সাইফুলের স্ত্রী জান্নাতুল ফেরদৌস।

বিয়ের অনুষ্ঠান থেকে প্রকাশ্য মারধর করে ব্যবসায়ী সাইফুলকে অপহরনের বিষয়ে স্ত্রী জান্নাতুল ফেরদৌস বলেন, আমরা আত্বীয়ের বিয়ে বাড়িতে গেলে পূর্ব থেকে বিরোধ থাকা নওশাদ মাহমুদ রানা ও তার ড্রাইভার ইকবালসহ আমার স্বামীকে উঠিয়ে নেয়ার মুহূর্তে আমরা বাধা দিলেও স্বামীকে ধরে রাখতে পারিনি। জান্নাতুল ফেরদৌস বলেন, প্রকাশ্যে দিবালোকে এমন অপহরণ আমাদেরকে হতবাক করেছে।নআমরা থানা সহ অন্যান্য আইনশৃংখলা বাহিনীকে বিষয়টি অবগত করেছি। যাতে আমার স্বামীকে জীবিত ফেরত পাই, তবে এখন শুনতেছি তাকে নির্যাতন করা হচ্ছে।

মধ্যস্থতা বৈঠকের বিষয়ে জানতে ভিকটিমের স্ত্রী জান্নাতুল ফেরদৌসকে ফোন করা হলে তিনি কল রিসিভ করলেও কোনও কথাই বলেননি। পরে পাশের কেউ তার মোবাইল সংযোগ বিছিন্ন করে দেন। 

সিভয়েস প্রতিবেদক

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়