Cvoice24.com
corona-awareness

আনোয়ারায় ইন্সুরেন্সের নামে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ 

আনোয়ারা প্রতিনিধি 

প্রকাশিত: ২২:২৩, ১৩ জুন ২০২১
আনোয়ারায় ইন্সুরেন্সের নামে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ 

আনোয়ারায় বেশি লাভের প্রলোভন দেখিয়ে ইন্সুরেন্স পলিসি করানোর মাধ্যমে গ্রাহকদের কাছ থেকে লাখ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ উঠেছে পারভীন আক্তার নামে রূপালী লাইফ ইন্সুরেন্স কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। 

এ নিয়ে থানায় একটি লিখিত অভিযোগও দায়ের করেছেন মো. রিয়াদ নামে এক ভুক্তভোগী। শনিবার (১২ জুন) আনোয়ারা থানায় এ অভিযোগ দায়ের করা হয়।

জানা যায়, পারভীন আক্তার (৪২) রূপালী লাইফ ইন্সুরেন্স কর্মকর্তা এবং ৬নং বারাখাইন ইউনিয়নের ৪, ৫, ৬নং ওয়ার্ডের সাবেক মহিলা মেম্বার ছিলেন। অভিযুক্ত পারভীন আক্তার তার স্বামী কাজী মো. আলমগীর (৪৪) এবং ছেলে মো. ফাহিম (২৪) তিনজনই সংঘবদ্ধভাবে সাধারণ মানুষদের উচ্চ লাভের প্রলোভন দেখিয়ে ইন্সুরেন্স পলিসি করানোর মাধ্যমে গ্রাহকের কিছু টাকা অফিসে জমা দিয়ে বাকি টাকা আত্মসাৎ করে নেয়। 

বিষয়টি রূপালী লাইফ ইন্সুরেন্স কর্তৃপক্ষ জানতে পারলে তাকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করে। বিষয়টি জানাজানি হলে গ্রাহকরা পারভীন আক্তারের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তিনি গ্রাহকদের সাথে অসাধাচারণ করেন। গ্রাহকের বিভিন্নভাবে ভয় দেখিয়ে দমানোর চেষ্টাও করেন তিনি।

ঝর্ণা শীল নামে এক ভুক্তভোগী বলেন, মাসে ২শ টাকা করে ৩ বছরের জন্য রূপালী লাইফ ইন্সুরেন্সে একটি বীমা করেছি। পারভীন এবং তার স্বামী আলমগীর বাড়িতে গিয়ে প্রতি মাসে টাকা নিয়ে আসতো। ৩ বছর শেষ হলেও এখনো বীমার টাকার কোনো খবর নেই।

এই সমস্ত অভিযোগের পাহাড় নিয়ে পারভীনের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তার মোবাইল বন্ধ পাওয়ায় যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

পারভীনের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সম্পর্কে রূপালী লাইফ ইন্সুরেন্সের ম্যানেজার মোহাম্মদ সেলিমের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, ‌‌‘পারভীন আমাদের একজন কর্মকর্তা ছিল, গত ১ বছর আগে গ্রাহকের টাকা আত্মসাৎ করার বিষয়টি জানতে পেরে ওনাকে চাকরি থেকে বের করে দেওয়া হয়। চাকরি হারানোর পরও পারভীন ইন্সুরেন্সের নাম ভাঙিয়ে গ্রাহকদের থেকে টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে।’

থানায় অভিযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করে আনোয়ারা থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সৈয়দ ওমর বলেন, ‘ইন্সুইরেন্সের নামে টাকা আত্মসাতের বিষয়ে আমরা অভিযোগ পেয়েছি। এ বিষয়ে তদন্ত চলতেছে।’

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়