Cvoice24.com

দ্বিতীয় দিনের মতো ক্লাস বর্জন করে আন্দোলনে চবি শিক্ষার্থীরা

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৩:২৬, ৩ নভেম্বর ২০২২
দ্বিতীয় দিনের মতো ক্লাস বর্জন করে আন্দোলনে চবি শিক্ষার্থীরা

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের বিভিন্ন অব্যবস্থাপনা নিয়ে দ্বিতীয় দিনের মতো ক্লাস বর্জন করে আন্দোলনে নেমেছে শিক্ষার্থীরা। 

বৃহস্পতিবার ১১ দফা দাবিতে সকাল ১০টা থেকে চারুকলা অনুষদের সামনে গ্যালারিতে অবস্থান নেয় দেড়শোরও বেশি শিক্ষার্থী।

এরআগে গত ২ নভেম্বর ক্লাস চলাকালীন ক্লাসরুম সিলিং থেকে পলেস্তরা খসে পড়লে ক্লাস বর্জন করে আন্দোলন শুরু করে তারা।

শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো হলো- শিক্ষার্থীদের নিজস্ব বাস চালু, ডাইনিং ও ক্যান্টিন তৈরি, বিশুদ্ধ পানীয় জলের ব্যবস্থা, বেসিনের সুব্যবস্থা রাখা, পর্যাপ্ত ওয়াশরুম নির্মাণ, আর্ট ম্যাটারিয়ালসের ব্যবস্থা, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা, পাঠাগার সংস্কার, জেনারেটরের ব্যবস্থা, মেডিকেল ব্যাকআপ, খেলাধুলার পর্যাপ্ত ইনসট্রুমেন্টের ব্যবস্থা,  মেয়েদের থাকার হলের ব্যবস্থা, অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ নির্মূল, প্রতিটি শ্রেণিকক্ষে বৈদ্যুতিক সংকট নিরসন, ছাত্র ও ছাত্রী মিলনায়তনের ব্যবস্থা, সেমিনারের পরিধি বাড়ানো, ইন্টারনেট সংযোগ নিশ্চিতকরন, ওজুখানা ও নামাজ পড়ার সুব্যবস্থা, সন্ধার পর পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা, প্রতিটি শিক্ষার্থীর জন্য লকারের ব্যবস্থা নিশ্চিতকরন এবং ছাত্রদের হলের ব্যবস্থা।

 
প্রিন্ট মেকিং বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী খন্দকার মাকসুদুল ফাহিম সিভয়েসকে বলেন, ১২ বছর ধরে এই জায়গায় ক্লাস করছে শিক্ষার্থীরা।  কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন প্রশাসনিক ভবন ও ক্লাসরুমের কোন সংস্কারের কাজ করেনি। তাছাড়া আমাদের প্রশাসনিক ভবন পরিত্যক্ত অবস্থায় আছে। প্রায় সময় দেয়াল খসে পড়ার ঘটনা ঘটেছে। অন্যদিকে ছাত্র-ছাত্রীরা ওয়াসরুম ব্যবহার নিয়ে পড়ে বিপাকে। বিশ্ববিদ্যালয় ৪০০ ছাত্রছাত্রীদের জন্য কেবলমাত্র দুইটা ওয়াশ রুম আছে।’

তিনি বলেন, দীর্ঘদিন যাবত চলমান এসব সমস্যা ও অব্যবস্থাপনার  কোনো সমাধান প্রশাসন বারবার দিতে ব্যর্থ হয়েছে, এর মধ্যে কিছু কিছু সমস্যা যেমন পর্যাপ্ত টয়লেট ও পানি সমস্যা এই ক্যাম্পাসে দীর্ঘ কয়েক বছরের এমনকি চারতলা বিশিষ্ট একাডেমিক ভবনে কোনো টয়লেটের ব্যবস্থা নেই। এসব নানান সমস্যার কারণে সকল ছাত্রছাত্রীরা ক্লাস বর্জন ছাড়া অন্য কোনো পথ খুঁজে পায়নি। 

এ বিষয়ে চারুকলা অনুষদের পরিচালক অধ্যাপক প্রণব মিত্র চৌধুরী প্রনব মিত্র চৌধুরী সিভয়েসকে বলেন, আমাদের এখন মিটিং চলছে। এরপর শিক্ষার্থীদের সাথে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

Nagad

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়