Cvoice24.com

সিলেটে বন্যায় আটকে পড়াদের উদ্ধারে সেনাবাহিনী

সিভয়েস ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:২৫, ১৭ জুন ২০২২
সিলেটে বন্যায় আটকে পড়াদের উদ্ধারে সেনাবাহিনী

ছবি: সংগৃহীত

টানা বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলের কারণে বন্যার পানিতে প্লাবিত সিলেটে গোয়াইনঘাট ও কোম্পানীগঞ্জ বন্যায় আটকে পড়াদের উদ্ধারে কাজ শুরু করছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। 

শুক্রবার (১৭ জুন) আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) এক বার্তায় এ তথ্য জানানো হয়েছে। 

এতে বলা হয়, অসামরিক প্রশাসনের অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতে সিলেটে বন্যা নিয়ন্ত্রণে সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে।

এর আগে সকালে সিলেটের গোয়াইনঘাট ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় বন্যায় আটকেপড়াদের উদ্ধারে সেনাবাহিনী যাচ্ছে বলে জানায় জেলা প্রশাসক মো. মজিবর রহমান।

তিনি বলেন, দুইটা উপজেলার অবস্থা খুবই খারাপ। মানুষজন ঘর থেকে বের হতে না পেরে ফোন করছেন। আমরা নৌকা দিতে না পেরে সেনাবাহিনীর সাহায্য চেয়েছি। তারা রেসকিউ বোর্ড নিয়ে যাচ্ছেন।

দুই সপ্তাহের ব্যবধানে সিলেটে আবারও দেখা দিয়েছে ভয়াবহ বন্যা। সিলেট-ভোলাগঞ্জ মহাসড়ক উপচে তীব্র বেগে পানি ঢুকছে। উজানি ঢলে একের পর এক তলিয়ে যাচ্ছে সিলেটের বিভিন্ন উপজেলা। গ্রাম ছেড়ে লোকজন আশ্রয়ের খোঁজে ছুটছে। গবাদিপশুর জায়গা হয়েছে মহাসড়কে। বানভাসি মানুষের ভোগান্তি এখন চরমে।

স্থানীয় প্রশাসন জানিয়েছে, সিলেট নগরের ৮ থেকে ১০টি এলাকা ছাড়াও জেলার কোম্পানীগঞ্জ, গোয়াইনঘাট, জৈন্তাপুর, কানাইঘাট ও সদর উপজেলার অন্তত ৫০০ গ্রাম এরই মধ্যে বন্যার পানিতে প্লাবিত হয়েছে। এসব এলাকার একাধিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও সরকারি-বেসরকারি কার্যালয়ের ভেতরে পানি ঢুকে পড়ায় স্বাভাবিক কার্যক্রম বিঘ্নিত হয়েছে।

এর আগের দিন বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টায় পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) সিলেটের তথ্য অনুযায়ী, সুরমা নদী সিলেট (নগরী) পয়েন্টে বিপৎসীমার দশমিক ৪৪ সেন্টিমিটার ও কানাইঘাট পয়েন্টে দশমিক ৯৫ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। গত ২৪ ঘণ্টায় নগরীতে ৪৫ মিলিমিটার ও কানাইঘাটে ১১৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত ও ঢলে পরিস্থিতি আরও নাজুক করেছে। 

কুশিয়ারা নদী ফেঞ্চুগঞ্জ পয়েন্টে বিপদসীমার দশমিক ৩৪ সেন্টিমিটার উপরে প্রবাহিত হচ্ছিল। একই সময়ে সারিঘাটে সারি নদী বিপদসীমার ৫৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল।

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়