Cvoice24.com

প্রবাসী আয়ে শীর্ষ তিনে বাংলাদেশ

সিভয়েস ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৭:৫৯, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১
প্রবাসী আয়ে শীর্ষ তিনে বাংলাদেশ

মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে গত বছর বিপর্যস্ত ছিলো বিশ্ব অর্থনীতি। বন্ধ ছিলো আন্তর্জাতিক যোগাযোগ। বিভিন্ন দেশে প্রবাসী আয় ছিলো নিম্নমুখী। তবে বাংলাদেশের চিত্র পুরোপুরি ভিন্ন। ২০২০ সালে প্রবাসী আয়ে শীর্ষ তিন দেশের মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশ।

সম্প্রতি এ বিষয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ব্রিটেনের ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্স ইউনিট। বাংলাদেশ ছাড়াও প্রবাসী আয়ে রেকর্ড করা বাকি দুই দেশ মেক্সিকো ও পাকিস্তান।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গত বছর বাংলাদেশে রেমিট্যান্স এসেছে ১ হাজার ৯৮০ কোটি ডলার। যেখানে ২০১৯ সালে রেমিট্যান্স এসেছিলো ১ হাজার ৮৪০ কোটি ডলার। গেলো বছর মেক্সিকোর রেমিট্যান্স এসেছে ৪ হাজার ৫০ কোটি ডলার। পাকিস্তানের রেমিট্যান্স এসেছে ২ হাজার ৪১০ কোটি ডলার। এই তালিকায় তৃতীয় অবস্থানে বাংলাদেশ।

বিশ্বব্যাংক বলছে, ২০১৯ সালে মেক্সিকোর রেমিট্যান্স ছিলো ৩ হাজার ৯০০ কোটি ডলার আর পাকিস্তানের রেমিট্যান্স ছিলো ২ হাজার ২২০ কোটি ডলার। 

‘কোভিড নাইনটিন অ্যান্ড মাইগ্র্যান্ট রেমিট্যান্স’ বিষয়ক এ প্রতিবেদনে বলা হয়, সারাবিশ্বে ২০১৯ সালের তুলনায় ২০২০ সালে রেমিট্যান্স প্রবাহ কমেছে অন্তত ৫ হাজার কোটি ডলার। সারাবিশ্বের বিভিন্ন দেশ গেলো বছর ৬৬ হাজার ৬০০ কোটি ডলার রেমিট্যান্স পেয়েছে, যেখানে ২০১৯ সালে পেয়েছিলো ৭১ হাজার ৬০০ কোটি ডলার। ২০২১ সালেও নিম্নমুখী এ প্রবণতা অব্যাহত থাকবে বলে জানায় সংস্থাটি।

সংস্থাটি বলছে, ২০২১ সালে সারাবিশ্বে রেমিট্যান্স প্রবাহ কমেছে ৭ শতাংশ, যেখানে ২০০৯ সালের মহামন্দার সময় রেমিট্যান্স প্রবাহ কমেছিলো ৫ শতাংশ।

প্রতিবেদনে আরও উল্লেখ করা হয়, করোনাকালীন সময়ে বাংলাদেশি ও পাকিস্তানি প্রবাসী শ্রমিকদের অনেকে তাদের চাকরি হারিয়ে নিজেদের জমানো টাকা দেশে পাঠিয়েছেন। উপসাগরীয় দেশগুলোর শ্রমিকদের মধ্যে এ প্রবণতা বেশি ছিল।

প্রতিবেদনে বাংলাদেশে রেমিট্যান্স বেশি আসার আরেকটি কারণ হিসেবে বলা হয়েছে, করোনাকালে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা থাকায় বৈধ উপায়ে দেশে টাকা পাঠানোর পরিমাণ বেড়েছে। আবার বৈধভাবে টাকা পাঠালে প্রণোদনার হারও বাড়ানো হয়েছে, যা প্রবাসী শ্রমিকদের বৈধ উপায়ে দেশে টাকা পাঠানোর উৎসাহ বাড়িয়েছে।

এদিকে অন্যান্য বছরগুলোতে প্রবাসী আয়ে শীর্ষে থাকলেও বিদায়ি বছরে রেমিট্যান্স কমে যাওয়া উন্নয়নশীল বাকি সাতটি দেশ হলো- ভারত, চীন, ফিলিপাইন, মিশর, নাইজেরিয়া, ভিয়েতনাম ও ইউক্রেন। সবচেয়ে বেশি প্রবাসী আয় অর্জনকারী ভারতে আগের বছরের চেয়ে আয় কমেছে ৮০০ কোটি ডলারের মতো। ২০২০ সালে দেশটিতে প্রবাসী আয় এসেছে ৭ হাজার ৫৯০ কোটি ডলার। অন্যদিকে চীনের প্রবাসী আয় কমেছে প্রায় ৯০০ কোটি ডলার। ২০২০ সালে দেশটির প্রবাসী আয়ের পরিমাণ ছিল প্রায় ৫ হাজার ৯৫০ কোটি ডলার।

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়