Cvoice24.com
corona-awareness

ঈদের ছুটিতে কনটেইনার জট কমাতে প্রস্তুত বন্দর

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৯:৩২, ৮ মে ২০২১
ঈদের ছুটিতে কনটেইনার জট কমাতে প্রস্তুত বন্দর

প্রতি বছর রমজানকে সামনে রেখে ব্যবসায়ীরা ছোলা, চিনি, খেজুর, মটর, ভোজ্য তেলসহ বাড়তি ভোগ্যপণ্য আমদানির ফলে চট্টগ্রাম বন্দরে জাহাজ জট ও কন্টেইনার জট সৃষ্টি হয়। কিন্তু এই মুহূর্তে বন্দরের ইয়ার্ড কনটেইনারে পরিপূর্ণ থাকলেও নেই কোনো জট— বলছে বন্দর কর্তৃপক্ষ।

এদিকে ঈদের ছুটিতে পুনরায় জাহাজ ও কন্টেইনার জটের আশঙ্কা করছেন ব্যবসায়ীরা। চট্টগ্রাম বন্দরে প্রতিদিন সাড়ে তিন হাজার থেকে চার হাজার পণ্যবাহী কন্টেইনার ডেলিভারি হলেও করোনার চলমান লকডাউনে নেমে এসেছে ২ থেকে আড়াই হাজারে। পণ্য ডেলিভারি কমে যাওয়ায় দিন দিন বাড়ছে কন্টেইনার জটের আশঙ্কা।

বন্দর ব্যবহারকারীরা বলছেন, ঈদের ছুটিতে কনটেইনার জট কমাতে বন্দর, কাস্টমস, ব্যাংক ও বন্দর ব্যবহারকারীদের যৌথ আলোচনার মাধ্যমে সমন্বিত পদক্ষেপ নেয়ার প্রয়োজন। অপরদিকে বন্দরে বর্তমান কনটেইনার জট নেই। তবে ঈদের ছুটিতে জট কমাতে হলে আমদানিকারকদের সবার আগে এগিয়ে আসতে হবে— এমনটাই দাবি বন্দর কর্তৃপক্ষের।

চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, লকডাউন পরিস্থিতিতেও চট্টগ্রাম বন্দর ২৪ ঘণ্টা চালু রয়েছে। পণ্য নামানোর হার দ্বিগুণ ও দ্রুত ডেলিভারি করার কারণে এবারের রমজানে বন্দরে জাহজ জট ও কন্টেইনার জটের মতো খারাপ পরিস্থিতি তৈরি হয়নি। সামনে ঈদের ছুটিতে জট সামাল দিতে বিশেষ পদক্ষেপ নিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষ। পাশপাশি পণ্য খালাসে সবার সহযোগিতা চেয়ে আমদানিকারক ও অফডকসহ সংশ্লিষ্টদের ইতোমধ্যে চিঠি দিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষ।

বন্দর সূত্রে জানা যায়, চট্টগ্রাম বন্দরে ৪৯ হাজার টিইইউএস কন্টেইনার ধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন টার্মিনাল রয়েছে। বর্তমানে টার্মিনালে থাকা ৩৮ হাজার টিইইউএস কনটেইনারের মধ্যে গত বুধবার ৩ হাজার ৮শ টিইইউএস কনটেইনার পণ্য খালাস হয়। বন্দরের জেটিতে কন্টেইনারবাহী জাহাজ রয়েছে ১১টি। আর বন্দরে বার্থিংয়ের অপেক্ষায় বহির্নোঙরে আছে ৮টি জাহাজ।

চট্টগ্রাম বন্দরের সদস্য (প্রশাসন ও পরিকল্পনা) জাফর আলম বলেন, ‌‘চলমান লকডাউন পরিস্থিতিতেও বন্দরের কাজ থেমে নেই। পণ্য খালাসের ক্ষেত্রে ব্যবসায়ীরা যাতে কোন প্রকার প্রতিবন্ধকতার সম্মুখীন না হন সেদিকে আমরা নজর রেখেছি। পাশাপাশি সংকট সামলাতে নানামুখী উদ্যোগ রয়েছে। তবে বন্দরকে জটমুক্ত রাখতে আমদানিকারকদের সদিচ্ছাই বেশি জরুরি।’

চট্টগ্রাম বন্দরের সচিব মোহাম্মদ ওমর ফারুক সিভয়েসকে বলেন, ‘ঈদের ছুটিতে বন্দরে কনটেইনার জটের কোন সম্ভাবনা নেই। কারণ বন্দরে কনটেইনার রাখার মত যথেষ্ট জায়গা আমাদের রয়েছে। আমরা সব স্টেক হোল্ডারদের সাথে বৈঠক করেছি। আমরা বৈঠকে বলেছি ঈদের দিন আমাদের শুধু আট ঘণ্টা কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। এর বাইরে বন্দর সবসময় খোলা থাকবে, যাতে তারা কনটেইনার ডেলিভারি নিতে পারে।’

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়