Cvoice24.com

মিয়ানমারের পচা পেঁয়াজ গন্ধ ছড়াচ্ছে খাতুনগঞ্জে

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৭:৩৫, ১৬ অক্টোবর ২০২১
মিয়ানমারের পচা পেঁয়াজ গন্ধ ছড়াচ্ছে খাতুনগঞ্জে

পনেরো দিন আগে থেকে বুকিং করা মায়ানমারের পেঁয়াজ আসতে শুরু করেছে খাতুনগঞ্জে। তবে পেঁয়াজের বস্তা খুলতেই চোখ ছানাবড়া সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীদের। মায়ানমারে গোডাউনে মজুদ থাকায় ও তীব্র গরমে অনেক পেঁয়াজ পচন ধরেছে, আবার অনেক বস্তার পেঁয়াজে অঙ্কুর গজিয়েছে। মান কমে যাওয়ায় এসব পণ্য বিক্রি হচ্ছে কম দামে। ফলে লোকসানের সম্ভাবনা দেখছেন খাতুনগঞ্জের পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা।

ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, গত তিনদিন ধরে মিয়ানমারের পেঁয়াজ খাতুনগঞ্জে ঢুকছে। তবে পণ্যের গুণগত মান মোটেও ভালো নয়। অধিকাংশ পণ্যই পঁচা, অঙ্কুর গজানো। ফলে পেঁয়াজের পঁচা গন্ধে দোকান ও আশেপাশের পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে। ফলে বাধ্য হয়ে প্রতিকেজি মিয়ানমারের পেঁয়াজ মানভেদে ২৫ থেকে ৪২ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে। অথচ ভালো মানের হলে পেঁয়াজগুলো ৫০ থেকে ৫২ টাকার নিচে বিক্রি করতেন না বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

খাতুনগঞ্জের হামিদুল্লাহ মিঞা মার্কেট কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ইদ্রিস সিভয়েসকে বলেন, আমাদের হামিদুল্লাহ মার্কেটে প্রায় ১৫৫ জনের ব্যবসায়ী পেঁয়াজ বিক্রি করেন। পাশাপাশি পুরো খাতুনগঞ্জের অনেক ব্যবসায়ী পেঁয়াজ বিক্রি করে থাকেন। ফলে সব দোকানেই মিয়ানমারের পেঁয়াজের গুণগত মান কম। যেগুলো বেশি পচে গেছে সেগুলো ফেলে দিচ্ছি। বাকিগুলো কম দামে ছেড়ে দিচ্ছি। কারণ পঁচা পেঁয়াজগুলো দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে। পণ্যের মান কমে গেলে দামও কমে যাবে, এটাই স্বাভাবিক। তাই ৫০ থেকে ৫২ টাকার মায়ানমারের পেঁয়াজ ২৫ থেকে ৪২ টাকায় বিক্রি করতে হচ্ছে। ফলে লোকসানের সম্ভাবনা তো আছেই।

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়