Cvoice24.com

মধ্যরাতে বাড়লো পেট্রোল-অকটেনের দাম, পাম্পে পাম্পে ভিড়

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ০০:৪৭, ৬ আগস্ট ২০২২
মধ্যরাতে বাড়লো পেট্রোল-অকটেনের দাম, পাম্পে পাম্পে ভিড়

আবারও জ্বালানি তেলের দাম বাড়িয়েছে সরকার। রাত ১০টার দিকে অকটেন, ডিজেল, পেট্রোল ও কেরোসিনসহ সব ধরনের জ্বালানি তেলের দাম বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। প্রজ্ঞাপনে রাত ১২টার পর থেকে নতুন দাম কার্যকর হওয়ার বিষয়টি জানানো হয়। আর এতেই পুরনো দামে জ্বালানি কিনতে হুমড়ি খেয়ে পড়েছে গাড়িচালকরা। 

শুক্রবার (৫ আগস্ট) রাতে চট্টগ্রামের বেশ কয়েকটি ফিলিং স্টেশন ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।

নগরের ওয়ারলেস এলাকায় শাহ আমিন উল্লাহ সিএনজি ফিলিং স্টেশন এন্ড পেট্রোল পাম্পে জ্বালানি নিতে আসা যানবাহনের কারণে আশপাশের সড়কগুলোতে ৩০ মিনিটের বেশি সময় ধরে যানচলাচল বন্ধ ছিলো। সেখানে জ্বালানি না পেয়ে বাইকাররা বিক্ষোভ শুরু করলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে খোদ খুলশী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সন্তোষ কুমার চাকমাকে ছুটে যেতে হয় দলবল নিয়ে। পরে প্রতিজনকে ৫শ' টাকার জ্বালানি দেওয়ার সিদ্ধান্ত দিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন তারা।

একই চিত্র ছিল মুরাদপুর, রাহাত্তারপুল, কালামিয়া বাজার, নতুন ব্রিজ এলাকার ফিলিং স্টেশনগুলোতেও। এসব এলাকার আশপাশেও লেগে ছিল দীর্ঘ যানজট।

এদিকে কোন কোন ফিলিং স্টেশনে মজুদকরা জ্বালানি বিক্রি করতে নানা অজুহাতে বন্ধ রাখার খবর পাওয়া গেছে। এসব নিয়ে পেট্রোলপাম্পের বিক্রয়কর্মীদের সাথে গাড়িচালকদের বাকবিতণ্ডার ঘটনাও ঘটেছে।

কোতোয়ালী থেকে ঘুরে শাহ আমিনুল্লাহ সিএনজি ফিলিং স্টেশনে জ্বালানি নিতে এসে সিভয়েসকে বলেন, রাত সাড়ে ১০টায়  জারি করা সরকারি প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী রাত ১২টা থেকে নতুন দামে তেল কিনতে হবে। আমি সিএমপি পেট্রোল পাম্পে গেলে তারা বিদ্যুৎ নেই বলে জানায়। কিনতু পাম্পের আশপাশে গিয়ে দেখি বিদ্যুৎ আছে। পরে জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯-এ কল দিয়ে এ বিষয়ে অভিযোগ জানালে তারা কোন রেসপন্স করেনি।' 

অন্যদিকে দক্ষিণ কাট্টলী থেকে আসা জয়ন্ত বলেন, ‘আগামীকাল কুমিল্লা যেতে হবে এ অবস্থায় শুনছি রাত ১২টা থেকে তেলে কিনতে বাড়তি টাকা গুনতে হবে। এদিকে মাস শেষ। টাকা হাতে তেমন নেই। এই অবস্থায় মনে হচ্ছে আগামীতে বাংলাদেশের অবস্থা শ্রীলঙ্কার মতো হবে।’ 

শাহ আমিনউল্লাহ ফিলিং স্টেশন এন্ড পেট্রোল পাম্পের ম্যানেজার শহীদুল্লাহ বলেন, কিছুক্ষণ আগে তেল কিনতে আসা দুইজন চালকের মধ্যে মারামারি শুরু হয়ে যায়। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এখন সবাইকে সর্বোচ্চ ৫০০ টাকার করে পেট্রোল, অকটেল ও ডিজেল দেওয়া হচ্ছে পুলিশের নির্দেশনায়।

খুলশী থানার ওসি সন্তোষ কুমার চাকমা সিভয়েসকে বলেন, রাত ১১টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত তেল নিতে আসা মানুষের ভিড়ে যান চলাচল বন্ধ ছিল। এছাড়াও তেল কিনতে এসে সাধারণ মানুষের মধ্যে গণ্ডগোল শুরু হয়। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। 

প্রসঙ্গত, বিশ্ববাজারের সঙ্গে জ্বালানি তেলের মূল্য সমন্বয় করতে ডিজেল ও কেরোসিন ১১৪ টাকা, পেট্রোল ১৩০ টাকা এবং অকটেন ১৩৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। শুক্রবার (৫ আগস্ট) দিবাগত রাত ১২টা থেকে জ্বালানি তেলের বর্ধিত দাম কার্যকর হবে বলে জানানো হয়েছে।

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়