Cvoice24.com

টিকার আওতায় আসেনি চট্টগ্রামের পৌনে পাঁচ লাখ শিক্ষার্থী, সময় বাকি ১৮ দিন

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২৩:১২, ১২ জানুয়ারি ২০২২
টিকার আওতায় আসেনি চট্টগ্রামের পৌনে পাঁচ লাখ শিক্ষার্থী, সময় বাকি ১৮ দিন

টিকা নিতে লাইনে দাঁড়িয়েছে শিক্ষার্থীরা।

চট্টগ্রামে ১২ থেকে ১৮ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের অর্ধেকই এখনো এক ডোজ টিকাও গ্রহণ করেনি। হিসেব অনুযায়ী, চট্টগ্রামে মোট শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৮ লাখ ৬৪ হাজার ৭৩ জন। এরমধ্যে টিকার এক ডোজ নিয়েছেন এমন শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৩ লাখ ৬২ হাজার ৯২৬ জন এবং দুই ডোজ টিকা নিয়েছেন এমন শিক্ষার্থীর সংখ্যা ২০ হাজার ৪৮২ জন। তবে এখনও পর্যন্ত টিকা কার্যক্রমের বাইরে রয়েছে ৪ লাখ ৮০ হাজার ৬৬৫ জন শিক্ষার্থী। অর্থাৎ চট্টগ্রামের প্রায় পৌনে পাঁচ লাখ শিক্ষার্থী এখনও টিকার আওতায় আসেনি। যা শতকরা হিসেবে ৫০ শতাংশেরও বেশি।

সরকারী সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ৩০ জানুয়ারির মধ্যে শিক্ষার্থীদের টিকার আওতায় আনার নির্দেশনা রয়েছে। সেই হিসেবে সকল শিক্ষার্থীদের টিকার আওতায় আনার জন্য সময় বাকি আছে আর মাত্র ১৮ দিন। তবে টিকার দৈনিক লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী এতো সংখ্যক শিক্ষার্থীদের টিকার আওতায় আনা নিয়ে সংশয় রয়েছে বলেও মন্তব্য সংশ্লিষ্টদের।

এদিকে সকল শিক্ষার্থীদের টিকার আওতায় আনতে এবং ভিড় এড়াতে নগরে আরও একটি কেন্দ্রের সংখ্যা বাড়িয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। মহানগরে যুক্ত হওয়া নতুন কেন্দ্র হচ্ছে ‘অফিসার্স ক্লাব’। বুধবার (১২ জানুয়ারি) জেলা শিক্ষা অফিস থেকে এমন তথ্যই জানা গেছে। 

তথ্যানুযায়ী, কেবলমাত্র ১২ জানুয়ারি চট্টগ্রামে টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছে ১ লাখ ২ হাজার ১৩২ জন শিক্ষার্থী এবং দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছে ৩ হাজার ৩২৯ জন। একইসঙ্গে উপজেলায় টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছে ৮৮ হাজার ৫২৫ জন। 

এরমধ্যে মহানগরের ৯ কেন্দ্রে টিকার প্রথম ডোজ পেয়েছে ২৩ হাজার ৮৬৫ জন এবং উপজেলায় ৭৩ হাজার ৯ জন। টিকার দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছে ৩ হাজার ৩২৯ জন শিক্ষার্থী। 

জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা ফরিদুল আলম সিভয়েসকে বলেন, ‘নির্দেশনা অনুযায়ী ৩০ জানুয়ারির মধ্যে শিক্ষার্থীদের টিকার আওতায় আনতে বলা হয়েছে। ভিড় এড়াতে আরও একটি নতুন কেন্দ্র বাড়ানো হয়েছে নগরে। একইসঙ্গে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা রেখে শিক্ষার্থীদের ভ্যাকসিনেশনের প্রতি জোর দিয়েছে সরকার। তাই সেভাবে আমরা দ্রুত টিকার আওতায় আনতে কাজ করছি।’

 

-সিভয়েস/এসআর

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়