Cvoice24.com

চট্টগ্রামের সরকারি ৮ কলেজে ৯৭০০ আসনে ভর্তিযুদ্ধ

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৯:৪৯, ৭ ডিসেম্বর ২০২২
চট্টগ্রামের সরকারি ৮ কলেজে ৯৭০০ আসনে ভর্তিযুদ্ধ

আগামীকাল ৮ ডিসেম্বর থেকে শুরু হতে যাচ্ছে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন। চলবে ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত। এবছরও কোনো ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে না। এসএসসি বা সমমানের পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে ভর্তি করা হবে। আর পুরো কাজটি সম্পন্ন হবে অনলাইনে। একাদশে ভর্তির জন্য চট্টগ্রামে নগরে মোট আসন খালি রয়েছে ৫১ হাজার ৪৭৪টি। তারমধ্যে ৮টি সরকারি প্রতিষ্ঠানের ৯ হাজার ৭০০ আসনের জন্য লড়বে এসএসসি পাস শিক্ষার্থীরা। আর এবছর চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডে পাস করেছে ১ লাখ ৩০ হাজার ১৩ জন শিক্ষার্থী। সর্বনিম্ন পাঁচটি এবং সর্বোচ্চ ১০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পছন্দক্রম দিয়ে অনলাইনে আবেদন করা যাবে। 

চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের তথ্যমতে, চট্টগ্রাম নগরের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে মোট আসনের মধ্যে বিজ্ঞানে বিভাগের জন্য রয়েছে ১৬ হাজার ৭৫৯টি, ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের জন্য ১৯ হাজার ৬৬৫টি এবং মানবিকে বিভাগের জন্য আসন খালি রয়েছে ১৫ হাজার ৫০টি। 

এদিকে, নগরের ৮টি সরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য আসন খালি রয়েছে ৩ হাজার ৪০০টি। যা গতবছরের চেয়ে ১১৫টি আসন বেশি। মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য আসন খালি রয়েছে ২ হাজার ৬৫০টি। এই বিভাগেও গতবছরের চেয়ে ১৯৫টি আসন বেশি। ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য আসন খালি রয়েছে ৩ হাজার ৬৫০টি। একইভাবে গতবছরের চেয়ে এই বিভাগে ৯০টি আসন বেশি রাখা হয়েছে। 

এরমধ্যে চট্টগ্রাম কলেজে মোট আসন খালি আছে ১ হাজার ৪০টি। সরকারি হাজী মুহাম্মদ মহসিন কলেজে মোট আসন আছে ১ হাজার ৭৩৫টি। সরকারি সিটি কলেজে মোট আসন খালি আছে ২ হাজার ১৮০টি। সরকারি কমার্স কলেজে আসন আছে ৯০০টি। চট্টগ্রাম সরকারি মহিলা কলেজে আসন আছে ১ হাজার ৪০০টি। বাকলিয়া সরকারি কলেজে আসন আছে ১ হাজার ৪২৫টি। চট্টগ্রাম সরকারি মডেল স্কুল এন্ড কলেজে আসন আছে ৮৪০টি এবং কলেজিয়েট স্কুলে মোট আসন আছে ১৮০টি।

যে কলেজে যত আসন

চট্টগ্রাম কলেজে ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের জন্য আসন বরাদ্দ নেই। তবে মোট আসনের মধ্যে মানবিক বিভাগের জন্য ৩৮০টি, বিজ্ঞান বিভাগের জন্য ৬৬০টি।

সরকারি হাজী মুহাম্মদ মহসিন কলেজে বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য ৬৬০টি, মানবিক বিভাগের জন্য ৪৬০টি এবং ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য ৬১৫টি আসন রয়েছে। 

সরকারি সিটি কলেজের বিজ্ঞান বিভাগের জন্য আসন রয়েছে ৬৬০টি। তবে দিবা শাখার মানবিক বিভাগের জন্য ৩৮০টি, ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের জন্য ৩৮০টি এবং বৈকালিক শাখার মানবিক বিভাগের জন্য আসন রয়েছে ৩৮০টি, ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের জন্য ৩৮০টি আসন।

সরকারি কমার্স কলেজে কেবল ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য ৯০০টি আসন রয়েছে।

চট্টগ্রাম সরকারি মহিলা কলেজে ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের জন্য আসন রযেছে ৫২৫টি, মানবিক বিভাগের জন্য ৪০০টি, এবং বিজ্ঞান বিভাগের জন্য ৫০০টি।

বাকলিয়া সরকারি কলেজে বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য ৪৫০টি, মানবিক বিভাগের জন্য ৪৫০টি এবং ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য ৫২৫টি আসন রয়েছে।

চট্টগ্রাম সরকারি মডেল স্কুল এন্ড কলেজে বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য ৩৮০টি, মানবিক বিভাগের জন্য ২০০টি এবং ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য ২৬০টি আসন রয়েছে।

সর্বশেষ কলেজিয়েট স্কুলে মানবিক বিভাগের জন্য কোনো আসন বরাদ্দ নেই। মোট আসনের মধ্যে মানবিক বিভাগের জন্য ৯০টি এবং ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের জন্য ৯০টি আসন আছে।

এ বিষয়ে চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের কলেজ পরিদর্শক অধ্যাপক জাহেদুল হক সিভয়েসকে বলেন, ‘ভর্তি যোগ্যতা অনুযায়ী শিক্ষার্থীরা এসকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে একাদশ শ্রেণিতে অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন করতে পারবে। ৯টি সাধারন শিক্ষাবোর্ড, মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ড, কারিগরি শিক্ষাবোর্ড পাশাপাশি উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে যারা পাস করেছে তারা ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবে। আবেদনের পর ভর্তির যোগ্যতা ও মেধার ভিত্তিতে যাচাই বাছাই করে শিক্ষার্থীরা এসকল সরকারি কলেজে ভর্তির সুযোগ পাবে।’

-সিভয়েস-এসআর/এআর

Nagad

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়