Cvoice24.com

নিজেকে ভয়ংকর দেখাতে ট্যাটু এঁকে ‘এলিয়েন’ সাজলেন যুবক

ফিচার ডেস্ক

প্রকাশিত: ২০:৫৮, ৫ আগস্ট ২০২২
নিজেকে ভয়ংকর দেখাতে ট্যাটু এঁকে ‘এলিয়েন’ সাজলেন যুবক

নিজেকে সুন্দর লাগুক কে না চায়? এই সুন্দরের প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে থাকতে চায় না কেউই। কিন্তু কখনও কি শুনেছেন সুন্দর নয় বরং নিজেকে ভয়ঙ্কর ও বীভৎস হিসেবে দেখাতে চান কেউ? এমনটাই শখ অ্যান্টনি লোফ্রেডো নামের এক যুবকের। শখ পূরণ করতে নিজেকে ভয়ংকর দেখাতে সারা শরীরে ট্যাটু এঁকেছেন। শুধু যে মাথা থেকে পা পর্যন্ত ট্যাটু করেই তিনি ক্ষান্ত দিয়েছেন তা নয়, তার সঙ্গে নিজের জিভ কেটে করেছেন দুই ভাগ, নাকে-কানে-থুতনিতে বসিয়েছেন অদ্ভুত সব জিনিস।

নিজের নাম দিয়েছেন ‘ব্ল্যাকে এলিয়েন’। এমন চেহারা যা দেখে যে কেউ চমকে উঠবে। তবে এই শখ পূরণ করতে গিয়ে বেকায়দায় পড়েছেন তিনি। কোন সংস্থায় তাকে চাকরি দিতে চাইছে না। নিজের সখের ফলে বিপাকে পড়ে গিয়েছেন অ্যান্টনি।

ভয়ংকর চেহারার জন্য সবাই তাকে ভয় পাচ্ছে। রাস্তাতে লোকজন তাকে দেখে পালিয়ে যায়। অ্যান্টনি কিন্তু কাউকে বিরক্ত করে না বা ভয়ও দেখাতেও যায় না। এজন্য অনেক সংস্থায় চাকরির জন্য অনুরোধ করেও মেলেনি চাকরি। একথা নিজেই জানিয়েছেন অ্যান্টনি।

অ্যান্টনির চেহারা অনেক মানুষের ভয়ের কারণ হলেও সোশ্যাল মিডিয়াতে তার ভক্ত সংখ্যা লাখ ছাড়িয়েছে। ইনস্টাগ্রামে তার ফলোয়ারের সংখ্যা ১.২ মিলিয়ান। অর্থাৎ বহু মানুষের কাছে এই ‘আজব’ মানুষটাই পছন্দের ব্যক্তিত্ব। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি একটি ভিডিও শেয়ার করেন। ব্ল্যাক এলিয়েন রূপী সেই ভিডিও মুহূর্তে ভাইরাল হয়।

একটি পডকাস্ট চ্যানেলকে অ্যান্টনি জানিয়েছেন, এমন বহু মানুষের সঙ্গে দেখা হয়েছে, ‘যারা আমাকে দেখে ভয়ে চিৎকার করে ওঠেন এবং দৌড়ে পালান। আমি স্বাভাবিক মানুষ কিন্তু লোকে ভাবে পাগল।’

৩৪ বছর বয়সী অ্যান্টনি জানান, তিনি কাউকে অস্বস্তিতে ফেলতে চান না। সেই কারণে রাস্তায় হাঁটার সময় সাধারণ মানুষের থেকে দূরে দূরে থাকেন। এরপরেও অনেকে তাকে দেখে ভয়ে পালায়।

অ্যান্টনি আরও বলেন, ‘সবাই সবকিছু নাই বুঝতে পারেন। আমিও অনেক মানুষকে বুঝতে পারি না। এটাই জীবন।’ সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেলে একটি ভিডিও শেয়ার করে সকলের কাছে অনুরোধ করেছে তার সঙ্গে সাধারণ মানুষের মতই আচরণ করতে।

সূত্র: টাইমস নাও নিউজ

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়