Cvoice24.com

হাসপাতালের চার স্থান থেকেই সংক্রমিত হচ্ছে রোগী— গবেষণার তথ্য

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৩:২৬, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১
হাসপাতালের চার স্থান থেকেই সংক্রমিত হচ্ছে রোগী— গবেষণার তথ্য

অসুস্থ রোগীকে হাসপাতালে সুস্থ করার জন্য ভর্তি করানো হলেও, এসব রোগীরাই সেই হাসপাতালের বিভিন্ন স্থান থেকে উল্টো জীবাণু দ্বারা সংক্রমিত হচ্ছে! পিলে চমকানোর মত এমন তথ্যই উঠে এসেছে চট্টগ্রামের একদল গবেষকের গবেষণায়। দীর্ঘ দুই বছর চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালে ভর্তি হওয়া ১ হাজার রোগীর ওপর গবেষণা চালানোর পর এমন দাবি করছে গবেষক দলটি। গবেষণা কার্যক্রমটি শুধুমাত্র মা ও শিশু হাসপাতালে চালানো হলেও চট্টগ্রামের সরকারি বেসরকারি হাসপাতালগুলোর ক্ষেত্রে বিশেষ করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিত্রও একই হবে বলে মত পাওয়া গেছে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এবং চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালের এক দল গবেষকের গবেষণাটি গত ১০ সেপ্টেম্বর আন্তর্জাতিক জার্নাল ‘প্লস ওয়ান’এ প্রকাশিত হয়েছে। এতে যুক্ত ছিলেন—  চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের শিক্ষক ও গবেষক ড. আদনান মান্নান ও মাহবুব হাসান এবং চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. নাহিদ সুলতানা, ও নবজাতক নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রের (এনআইসিইউ) পরিচালক ডা. ওয়াজির আহমেদ। তাদের সহযোগিতা করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আফরোজা আকতার তন্বী।

গবেষণায় দেখা যায়, হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগীদের সিংহভাগই চারটি স্থান থেকে এন্টিবায়োটিক অকার্যকর ব্যাকটেরিয়া ও জীবাণু দ্বারা সংক্রমিত হচ্ছে। যেখানে হাসপাতালের বেসিন, নালার পানি, বিছানার চাদর, দেয়ালের বিভিন্ন নমুনাতে এন্টিবায়টিক প্রতিরোধী ব্যাকটেরিয়ার উপস্থিতি পাওয়া যায়। এন্টিবায়োটিক প্রতিরোধ ক্ষমতার জন্য দায়ী এমন একাধিক জিনও চিহ্নিত করা হয়। ২০১৮ সাল থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত মোট ১ হাজার রোগীর ওপর এ গবেষণা চালানো হয়। এতে ৪৩০ জন পুরুষ ও ৫৭০ জন নারী রোগী রয়েছে। তার মধ্যে ১৫ বছরের নিচে ৪৭৬ জন, ১৫ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে ১৮৬ জন, ৩০ থেকে ৪৫ বছরের মধ্যে ১০৯ জন, ৪৫ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১৩০ জন এবং ৬০ বছরের উর্ধ্বে ৯৯ জন। 

তারা মূলত হাসপাতালে সুস্থ হওয়ার জন্য ভর্তি হলেও মাত্রারিক্ত অ্যান্টিবায়েটিক ব্যবহারের কারণে শরীরের অনুজীবগুলো একটা সময় তার প্রতিরোধের ক্ষমতা হারিয়ে ফেলে। হাসপাতালের উল্লেখিত চার স্থান থেকে উল্টো এন্টিবায়োটিক অকার্যকর ব্যাকটেরিয়া ও জীবাণু দ্বারা সংক্রমিত হয়। ফলে আক্রান্তদের জন্য আর কোন চিকিৎসার উপায় থাকে না।

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়