Cvoice24.com

চট্টগ্রাম নগরে ডেঙ্গু জ্বরে আরও এক নারীর মৃত্যু, দুই দিনে মারা গেলেন ৩ জন

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৬:১৪, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২
চট্টগ্রাম নগরে ডেঙ্গু জ্বরে আরও এক নারীর মৃত্যু, দুই দিনে মারা গেলেন ৩ জন

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন দুই নারীর মৃত্যুর পরের দিনে এভারকেয়ার হাসপাতালেও এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। তারা তিনজনই চট্টগ্রাম নগরের বাসিন্দা। 

চলতি বছর চট্টগ্রামে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে প্রথম বারের মত দুই দিনে তিন রোগীর মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। তারা তিন জনই নারী। 

তাদের মধ্যে একজন ৭০ বছর বয়সী, অন্যজন ৪০ বছর বয়সী ও বৃহস্পতিবার মৃত্যুবরণকারী নারীর বয়স ৫০ বছর।  

বৃহস্পতিবার সকালে এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যাওয়া দিলআরা বেগম নগরের মোগলটুলির বাসিন্দা। 

তার আগে বুধবার চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান খুরশিদা বেগম (৭০) ও শিউলি রাণী (৪০)। তারা দুজনই নগরের পাহাড়তলী এলাকার বাসিন্দা। 

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী পরিচালক শাহীদা আক্তার সিভয়েসকে বলেছেন, গত ১৬ তারিখ খুরশিদা বেগম নামের ওই রোগীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার ডেঙ্গু শনাক্ত হয়েছিল। বুধবার সকালে হঠাৎ কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট হয়ে তিনি মারা যান। ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে গতরাতে শিউলি রাণী নামের আরেক রোগী ভর্তি হন। তিনিও একই দিন ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।'

অন্যদিকে জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে বৃহস্পতিবার দুপুরে প্রকাশিত ডেঙ্গু রোগীর দৈনিক তালিকায় বৃহস্পতিবার সকালে দিলআরা বেগম এক রোগীর মৃত্যুর খবর দেওয়া হয়েছে। একই দিনে আক্রান্ত হয়েছে নতুন করে ১২ জন। 
চট্টগ্রামে চলতি বছরে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়েছেন ৪০৩ জন। এরমধ্যে সেপ্টেম্বরে এ ২২ দিনের মধ্যেই আক্রান্ত হয়েছেন ২৫৬ জন। তার মধ্যে শুধুমাত্র চট্টগ্রাম মহানগরেই আক্রান্ত হয়েছেন ২০০ জন। এদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৩৯১ জন। এ বছরের মধ্যে এ দুই দিনেই মারা যান তিন জন।   

এ প্রসঙ্গে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা (চলতি দায়িত্ব) আবুল হাশেম সিভয়েসকে বলেন, ‘আমরা ডেঙ্গু সচেতনায় প্রতিটি ওয়ার্ডে আরবান ভোলেন্টিয়ারদের মাধ্যমে সচেতনামূলক ক্যাম্পেইন পরিচালনা করছি। এছাড়া ছাদ বাগান, পরিত্যক্ত টায়ারসহ যেখানেই পানি জমে থাকার খোঁজ পাচ্ছি এডিস মশার লাভার জন্মস্থলের সন্ধান পাচ্ছি অভিযান-জরিমানা অব্যাহত রাখছি।’

যদিও চসিকের ছিটানোর মশার ওষুধের কার্যকারিতা নিয়ে প্রশ্ন থাকার পরও লোক দেখানো সেই অকার্যকর ওষুধগুলোই ছিটানো হচ্ছে। 

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়