Cvoice24.com

আদিবাসী নারীকে ধর্ষণ চেষ্টায় পুলিশের হাতে ধরা

রামগড় প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১১:০৩, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩
আদিবাসী নারীকে ধর্ষণ চেষ্টায় পুলিশের হাতে ধরা

আদিবাসী নারীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগের মাত্র ৩ ঘণ্টায় পুলিশের হাতে ধরা পড়লো অভিযুক্ত মো. রহমত উল্যাহ। ঘটনাটি ঘটেছে খাগড়াছড়ির রামগড়ে ২ নম্বর পাতাছড়া ইউনিয়নের দুর্গম পাহাড়ি এলাকায়। অভিযোগ পাওয়ার সাথে সাথেই অভিযানে নামে রামগড় থানা পুলিশ। এ ঘটনায় মামলা দায়ের হয়েছে।

পুলিশের হাতে আটক রহমত উল্যাহ ফটিকছড়ি উপজেলার ১নম্বর বাগান বাজার ইউনিয়নের নতুনবাজার এলাকার বাসিন্দা মো. শামসুল হুদার ছেলে।

গত রোববার (৩ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ১১টার দিকে ভিকটিম নারীর ফল বাগানের চৌচালা ঘরে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার ১দিনপর সোমবার (৪ সেপ্টেম্বর) রাতে ভিকটিম নারীর স্বামী রামগড় থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে রহমত উল্যার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। 

মামলার এজহারে লেখা হয়েছে, রহমত উল্যাহ ছিলেন ভিকটিম নারীর স্বামীর ফল বাগানের পাহারাদার। বাগানের মধ্যে থাকা একটি চৌচালা ঘরে স্বামীর সাথে থাকতেন ওই নারী। তার স্বামীর ফল বাগানের পাহারাদার রহমত উল্যাহকে দায়িত্ব দিয়ে প্রতিদিনের মত বাগানের চৌচালা ঘরে ঘুমিয়ে পড়েন তিনি। রহমত উল্যাহ কৌশলে ঘরের দরজা খুলে ভেতরে প্রবেশ করে ধর্ষণ চেষ্টা করেন। ভিকটিম নারীর চিৎকারে তার স্বামীর ঘুম ভেঙ্গে যায় ও ধর্ষণ চেষ্টাকারী অন্ধকারে পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে রামগড় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মিজানুর রহমান বলেন, প্রযুক্তির সহযোগীতায় অভিযোগের ৩ ঘণ্টার মধ্যে গভীর রাতে দুর্গম পাহাড়ি এলাকায় অভিযান চালিয়ে আসামিকে গ্রেপ্তার করে আদালতে প্রেরণ করেছি।

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়