Cvoice24.com

ভাড়া না বাড়ালে অর্ধেক সিটে চলবে না চট্টগ্রামের গণপরিবহন, মালিকদের সিদ্ধান্ত

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২২:০৫, ১২ জানুয়ারি ২০২২
ভাড়া না বাড়ালে অর্ধেক সিটে চলবে না চট্টগ্রামের গণপরিবহন, মালিকদের সিদ্ধান্ত

অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে যাওয়া বাস। ফাইল ছবি

ওমিক্রন ঠেকাতে ১১ দফা নির্দেশনানুযায়ী ভাড়া না বাড়ালে অর্ধেক যাত্রী নিয়ে গণপরিবহন চালানোর সরকারি সিদ্ধান্ত মানতে নারাজ চট্টগ্রামের গণপরিবহন মালিকরা।

তাদের দাবি, অর্ধেক যাত্রী নিয়ে গাড়ি চালাতে হলে ভাড়ার হার অন্তত ৬০ শতাংশ বাড়াতে হবে। নইলে গণপরিবহন বন্ধ করে দেওয়ারও ইঙ্গিত দিচ্ছেন তারা।

চট্টগ্রামের গণপরিবহন মালিকরা বলছেন, এর আগেও অর্ধেক যাত্রী নিয়ে গাড়ি চালানোর ক্ষেত্রে বাড়তি ভাড়া আদায় করা হয়েছিল। অথচ এ ব্যাপারে এবার সরকার কোন নির্দেশনা দেয়নি। ডিজেলের দাম বাড়ানোর কারণে করোনার স্বাভাবিক পরিস্থিতিতে এক দফা ভাড়া বাড়ানো হলেও নির্দেশনা মেনে অর্ধেক যাত্রী নিয়ে গাড়ি চালাতে গেলে লোকসানে পড়তে হবে। এর আগে লকডাউনে মাসের পর মাস গাড়ি বন্ধ রেখে লোকসান গুণতে হয়েছিল। এভাবে লোকসান দিয়ে আর গাড়ি চালানো সম্ভব নয় বলে সাফ জানিয়েছেন তারা।

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পরিবহন মালিক গ্রুপের মহাসচিব বেলায়েত হোসেন বেলাল সিভয়েসকে বলেন, আমরা আর কত লোকসান দেবো? ডিজেলের দাম বাড়ার কারণে এর আগে এক দফা ভাড়া বেড়েছে। তবে আগের নিয়মে অর্ধেক যাত্রী নিয়ে সেবা দিতে গেলে স্বাভাবিকভাবে ভাড়া আরো বাড়বে। না হয় আমাদের লোকসান গুণতে হবে। লোকসান গুণে তো আর গাড়ি চালানো সম্ভব না। তাই ভাড়া বাড়ানোর বিষয়ে কোন সিদ্ধান্ত না আসলে গণপরিবহন মালিকরা নিজেরাই গাড়ি বের করবেন না। 

এদিকে চট্টগ্রাম সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের মহাসচিব মঞ্জুরুল আলম মঞ্জু সিভয়েসকে বলেন, সরকারি বিধি নিষেধের প্রতি আমরাও আন্তরিক। এর আগে লকডাউনের সময় প্রতি সিটে একজন করে যাত্রী বহন করে ৬০ শতাংশ ভাড়া বাড়ানো হয়। এতে মালিকরা ক্ষতিগ্রস্ত হলেও দেশের স্বার্থে তা মেনে নিয়েছিল। এবারও সকল প্রকার স্বাস্থ্য বিধি মেনে গণপরিবহন সচল রাখতে হলে পূর্বের সিদ্ধান্ত কার্যকর করে সিট প্রতি একজন ও ভাড়া ৬০ শতাংশ বাড়ানোর সিদ্ধান্তে আসতে হবে। অন্যথায় রাস্তায় গাড়ি নামানো আমাদের পক্ষে সম্ভব নয়। আমরা চাই না সাধারণ মানুষ ভোগান্তিতে পড়ুক। তাই সরকারের উচিত আমাদের দিকটাও বিবেচনা করা। 

এর আগে গতকাল নির্দেশনার পর থেকেই ভাড়া বাড়ানোর জন্য সরকারের ওপর চাপ দেওয়া শুরু করেন বাস মালিকরা। এ পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) আজ দুপুরের পর সংশ্লিষ্ট অংশীজনদের নিয়ে বৈঠকে বসে। ওই বৈঠকে, বাসভাড়া না বাড়িয়ে যাত্রী পরিবহনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।
 

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়