Cvoice24.com

জব্বারের বলীখেলা হচ্ছে না, আনুষ্ঠানিকভাবে জানালো আয়োজকেরা

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৪:০১, ১৩ এপ্রিল ২০২২
জব্বারের বলীখেলা হচ্ছে না, আনুষ্ঠানিকভাবে জানালো আয়োজকেরা

জব্বারের লীখেলায় দুই বলীর লড়াই। টানা তিন বছর ধরে দেখা মিলছে না।

ঐতিহাসিক জব্বারের বলীখেলা ও বৈশাখী মেলা নিয়ে একদিন আগে সিভয়েস যে আশঙ্কার কথা জানিয়েছিল, শেষ পর্যন্ত সেটিই সত্যি হল। ১২ এপ্রিল রাতে ‘লালদীঘিতে জব্বারের বলীখেলা এবারও হচ্ছে না’ শিরোনামে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিল সিভয়েস। আজ বুধবার (১৩ এপিল) সকালে আনুষ্ঠানিকভাবে সংবাদ সম্মেলন করে ‘আবদুল জব্বার স্মৃতি কুস্তি প্রতিযোগিতা ও মেলা কমিটি’ও জানিয়ে দিল— লালদীঘি মাঠ উন্নুক্ত না হওয়ায় এবারও হবে না এই বলীখেলা ও মেলা। 

চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের এস রহমান হলে বেলা ১১টায় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করে শোনান কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মুহাম্মদ জামাল হোসেন। লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, ‘১৯০৯ সালের ১২ বৈশাখ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত বলীখেলা ও মেলার ১১০ তম আসর নিয়মিত হয়েছে। কোভিড–১৯ ভয়াবহতায় ২০২০ ও ২০২১ সালে এটি স্থগিত ছিল। বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে সরকার এই মহামারী প্রতিরোধে গণটিকা প্রদানসহ নানা কর্মসূচির কারণে বর্তমানে দেশ ও জাতি অনেকটা নিরাপদে।

‘দেশে ইতিমধ্যে অনেক মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। বিগত ১১০ বছর ধরে এই বলীখেলা লালদীঘির মাঠেই অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। ঐতিহাসিক এই মাঠ শত শত বছর ধরে অনেক ঘটে যাওয়া ইতিহাসের সাক্ষী। তার স্মৃতি ধের রাখতে সরকারের মাঠের অবকাঠামোগত উন্নয়ন প্রশংসার দাবিদার। বর্তমানের উদ্বোধনের অপেক্ষায় থাকা মাঠটি উন্মুক্ত নয়। এ জন্য বাঙালি সংস্কৃতির অংশ হিসেবে পরিচিত আবদুল জব্বারের বলীখেলা ও মেলাসহ চট্টগ্রামের সকল ধরনের অনুষ্ঠান পুনরায় ফিরে পেতে লালদীঘিরমাঠ দ্রুত উন্মুক্ত করে দেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে আকুল আবেদন জানাচ্ছি।’

এরপর বলীখেলা ও মেলা না হওয়ার ঘোষণা দেন কমিটির সভাপতি ও আন্দরকিল্লা ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জহরলাল হাজারী। তিনি বলেন, ‘জব্বারের বলীখেলা আমরা সাংবাদিকদের মাধ্যমে সারাদেশে উপস্থাপন করতে পেরেছি। কখন এই মেলা হবে— সেটি নিয়ে সবাই তাই উদ্বিগ্ন হয়ে বসে থাকেন। গত দুই বছর মেলা হয়নি। এবছর আমরা আশা করেছিলাম। আমরা চাই মাননীয় শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী লালদীঘির মাঠ সংরক্ষণে যে উদ্যোগ নিয়েছেন, সেটির উদ্বোধন প্রধামন্ত্রী করুক। এখন পর্যন্ত উদ্বোধন না হওয়ায় মাঠটি এখনো উন্মুক্ত নয়। মাঠ না পাওয়ার কারণে এই বছর বলীখেলা আয়োজন করা যাচ্ছে না। একইসঙ্গে এবার মেলাও হবে না।’

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন কমিটির সহসভাপতি ও চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ, কমিটির সাধারণ সম্পাদক শওকত আনোয়ার বাদল, সাবেক কমিশনার এ এস এম জাফর।

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়