Cvoice24.com

বলীখেলা ও মেলার স্থান পরিদর্শন করলেন চসিক মেয়র

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৮:৪৪, ১৭ এপ্রিল ২০২২
বলীখেলা ও মেলার স্থান পরিদর্শন করলেন চসিক মেয়র

রোববার দুপুরে লালদীঘির মাঠে বলীখেলা ও মেলার স্থান পরিদর্শন করছেন চসিক মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী

করোনা মহামারির কারণে গত দুই বছর বন্ধ ছিল জব্বারের বলী খেলা। এবারও অনেকটা অনিশ্চিতই ছিল বলী খেলা। তবে শেষপর্যন্ত মেয়রের হস্তক্ষেপে এবার ২৫ এপ্রিল (১২ বৈশাখ) অনুষ্ঠিত হবে ঐতিহ্যবাহী জব্বারের বলীখেলা। জেলা পরিষদের চত্তরের ২০ ফুট দৈর্ঘ্য ও ২০ ফুট প্রস্থের মঞ্চে বিকেল ৩টা থেকে ৫টা পর্যন্ত বলী খেলা চলবে। সেইসঙ্গে আগামী ২৪ থেকে ২৬ এপ্রিল পর্যন্ত চলবে তিন দিনব্যাপী বৈশাখী মেলা। 

রোববার (১৭ এপ্রিল) দুপুরে লালদীঘির মাঠে বলীখেলা ও মেলার স্থান পরিদর্শনকালে চসিক মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী এসব কথা জানান। 

এসময় চসিক মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী বলেছেন, জব্বারের বলী খেলা শুধু একটি খেলা নয় এটি আমাদের ঐতিহ্য। এই ঐতিহ্যকে ধরে রাখতে আমাদের সহযোগিতা করতে হবে। সময় স্বল্পতার কারণে স্পন্সরের বদলে সম্পূর্ণ আয়োজনের ব্যয়ভার চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন গ্রহণ করবে। এ মেলায় সঙ্গে আমাদের প্রান্তিক গ্রামের অর্থনৈতিক নিবিড় সম্পর্ক রয়েছে। বৈশাখ মাসকে ঘিরে মেলায় নানাবিদ শৈল্পিক ও গৃহস্থালি পণ্য বিক্রি করার জন্য গ্রামের হস্তশিল্পের কারিগরগণ ব্যস্ত থাকেন, অন্য দিকে নানা খাবারের পসরা তৈরিতে ব্যস্ত সময় কাটাতেন। করোনা পরিস্থিতি অনেকটা স্বাভাবিক হওয়ার কারণে তাদের উৎসাহ ও জীবন জীবিকার স্বার্থ বিবেচনায় এ মেলার আয়োজন। মেলার আগের যে জৌলুস ছিল, এখনো সবকিছুই থাকবে। 

এদিকে, মেলা বন্ধের সিন্ধান্তে চট্টগ্রামের মানুষের মধ্যে যে হতাশা ও ক্ষোভ তৈরি হয়েছিল, তা পুরোপুরি নিরসন হবে বলে মন্তব্য করেন চসিক মেয়র। 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন মেলা কমিটির সভাপতি কাউন্সিলর জহুর লাল হাজারী, ওয়ার্ড কাউন্সিলর আতাউল্লা চৌধুরী, ওয়াসিম উদ্দিন চৌধুরী, পুলক খাস্তগীর, সংরক্ষিত কাউন্সিলর রুমকী সেনগুপ্ত, মেলা কমিটির সহসভাপতি ও প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ, সদস্য সচিব শওকত আনোয়ার বাদল, সাবেক কাউন্সিলর জামাল উদ্দিন, বলীখেলার রেফারি ও সাবেক কাউন্সিলর আব্দুল মালেক, মো. চঞ্চল, মো. ইউসুফ, জিয়াউল হক সোহেল ও কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহিদ হোসেন প্রমুখ।
 

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়