Cvoice24.com

বায়েজিদে জুমার সময়ে ঘরে ঢুকে গাড়িতে পেট্রোল ঢেলে দুর্বৃত্তের আগুন

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৯:৪৮, ৫ আগস্ট ২০২২
বায়েজিদে জুমার সময়ে ঘরে ঢুকে গাড়িতে পেট্রোল ঢেলে দুর্বৃত্তের আগুন

বায়েজিদে দুর্বৃত্তের দেওয়া আগুনে পোড়া গাড়ি। ইনসেটে গাড়িতে পেট্রোল ঢেলে আগুন দিচ্ছে এক ‘দুর্বৃত্ত’

চট্টগ্রামের বায়েজিদে জুমার নামাজের সময় ধরে বাড়ির গ্যারেজে ঢুকে পেট্রোল ঢেলে গাড়িতে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। শুক্রবার (৫ আগস্ট) দুপুরে দারোয়ানসহ বাড়ির পুরুষরা জুমার নামাজ পড়তে মসজিদে থাকার সুযোগ নিয়ে অতর্কিত এ ঘটনা ঘটায় তারা। 

টয়োটা পারসো ১১ মডেলের যে গাড়িতে আগুন দেয়া হয়েছিল তার ঠিক হাত দুয়েক দূরেই রাখাছিল ৮ টি এলপিজি গ্যাসের সিলিন্ডার। যার সবগুলোই গ্যাসে ভরা ছিল। তবে সৌভাগ্যক্রমে দ্রুত বাড়ির লোকজন ঘটনাস্থলে চলে আসায় বড় ধরনের কোন ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।

জানা গেছে, একটি মোটরসাইকেলে করে দুজন দুর্বৃত্ত মুখ ঢেকে ওই বাড়ির সামনে এসে দাঁড়ায়। পরে একজন ভেতরে প্রবেশ করে গাড়িতে পেট্রোল ঢেলে আগুন লাগিয়ে চলে যায়। 

এ ঘটনার একটি সিসিটিভি ফুটেজ সিভয়েসের কাছে সংরক্ষিত রয়েছে। ওই ফুটেজে দেখা গেছে, একজন লোক গ্যারেজে ঢুকে গাড়ির উপর পেট্রোল ছিটিয়ে আগুন ধরিয়ে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে।  চলে যাওয়ার কয়েক মুহুর্তের মধ্যেই আগুন অনেকটাই নিভে যায়। এসময় গাড়ির নিচের অংশে আগুন জ্বলছিল। 

যে গাড়িতে আগুন দেয়া হয়েছিল সেটি ওই বাড়ির মালিক ও কাশফুল সিকিউরিটি সার্ভিসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এ আর মনির হোসেন টিটুর নিজস্ব।

এ আর মনির হোসেন টিটু সিভয়েসকে বলেন, '১ টা ২৫ এর দিকে আমার বাড়ির দারোয়ান আমাকে বলে মসজিদে যায়। গেইট খোলা ছিল। এই সুযোগে একজন মুখোশ পড়া লোক গ্যারেজে ঢুকে আমার গাড়িতে আগুন দেয়।'

দ্রুত আগুন নিয়ন্ত্রণে আসায়  অনেক বড় বিপদের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছেন জানিয়ে টিটু বলেন, ‘আমার ভবনে আমার পরিবার বাদেও ১০ টি পরিবার থাকে। গাড়ির পাশেই ভাড়াটিয়াদের ৮ টা সিলিন্ডার ছিল। অনেক বড় বিপদ হতে পারতো। সৌভাগ্যক্রমে বেঁচে গেছি।' 

এই ঘটনায় কাউকে সন্দেহ করছেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে টিটু বলেন, 'বায়োজিদ থানার পাশেই একটা জায়গা কিনেছি আমি এটা নিয়ে একটা পক্ষ ঝামেলা করছে। এটা তাদের কাজ হতে পারে। তাছাড়া সিসিটিভিতে দুর্বৃত্তেরর যেটুকু শারীরিক অবয়ব দেখা যাচ্ছে তাতে করে আমার ওই সন্দেহটা জোড়ালো হচ্ছে। পুলিশকে জানিয়েছি। বায়োজিদ থানার ওসি ঘটনাস্থল ঘুরে গেছেন।'

বায়োজিদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামরুজ্জামান সিভয়েসকে বলেন, ‘জায়গা নিয়ে একটা  পক্ষের সাথে উনাদের বিরোধ ছিল। আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। দ্রুত সময়ে সেটা নিয়ন্ত্রনেও এসেছে। বিষয়টা আমরা তদন্ত করছি। তদন্ত না করে এই বিষয়ে কোন কথা বলতে চাইনা।'

সিভয়েস/এআরটি

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়