Cvoice24.com

মিমি সুপার মার্কেটে লটারির নামে ‘গলাকাটা’ পার্কিং ফি আদায়!

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৮:০১, ১৩ আগস্ট ২০২২
মিমি সুপার মার্কেটে লটারির নামে ‘গলাকাটা’ পার্কিং ফি আদায়!

শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টায় চট্টগ্রাম নগরের মিমি সুপার মার্কেটে দর্জির দোকানে কাপড় নিতে যান বাঁধন সরকার নামে এক ব্যক্তি। মার্কেটের সামনে গাড়ি পার্ক করে ২০ মিনিট পর গাড়ি নিয়ে যাওয়ার সময় মার্কেটের সিকিউরিটির লোকজন একটি লটারির টিকিট ও পার্কিং চার্জ হিসেবে ১শ’ টাকা নিয়ে নেয়। এসময় সিকিউরিটির কাছ থেকে জানতে চাইলে তারা জানায় এটা মার্কেটের নতুন নিয়ম। অথচ তারা পাকিং চার্জ সংক্রান্ত কোন বোর্ড বা নির্দেশনা গাড়ি রাখার পূর্বে না জানিয়েই এভাবে লটারি টিকিট এবং ভুয়া পাকিং চার্জ করে সাধারণ মানুষের ক্ষতি সাধন করছে। এ বিষয়ে বাদী হয়ে ভোক্তা অধিকারে মামলা করেছেন বাঁধন সরকার।

শুধু তিনিই নন; আরেক ভুক্তভোগী মোহাম্মদ আরিফও এমন অভিযোগ জানিয়ে বলেন, ‘বাবাকে নিয়ে মোটরসাইকেলে করে মিমি সুপার মার্কেটে গিয়েছিলাম। তাদের পার্কিংয়ে গাড়ি রাখতেই এক সিকিউরিটি এসে জানালো ১ মিনিট গাড়ি রাখলেই ৫০ টাকা ফি দিতে হবে। আমি কিছু না বলে ভেতরে চলে যাই। পরে গাড়ি নিয়ে বের হওয়ার সময় আবারও ওই সিকিউরিটি এসে একটি লটারি ধরিয়ে দেন এবং বলেন ৫০ টাকা দিতে। কিন্তু আমি বললাম, লটারি আমি নিব না। কিন্তু উনি বললো লটারি নিতে হবে এবং ৫০ টাকা দিতে হবে।’

শনিবার পার্কিংয়ে গাড়ি রাখার কারণে ‘পার্কিং ফি’ ও লটারির সিস্টেমে কাস্টমারদের এমন অভিযোগের ভিত্তিতে নগরের মিমি সুপার মার্কেটে সিভয়েস প্রতিবেদক সরেজমিনে গিয়ে দেখেন, গাড়ি পার্কিং করার দায়িত্বে থাকা সিকিউরিটিদের হাতে লটারির বই। কেউ মার্কেটের পার্কিংয়ে গাড়ি নিয়ে এলে সিকিউরিটিরা তাদের বলছে ‘গাড়ি রাখলেই ফি দিতে হবে এবং একটি লটারি নিতে হবে। এছাড়া পার্কিংয়ে ঢুকতেই একটি ব্যানার টাঙানো হয়েছে। যেখানে লেখা ছিল— প্রাইভেটকার/মাইক্রোবাস ৫ মিনিট থেকে ৬০ মিনিট পর্যন্ত পার্কিংয়ে রাখলে ১শ’ টাকা ফি দিতে হবে। এছাড়া নির্ধারিত সময়ের বাড়তি প্রতি মিনিট ১ টাকা ৫০ পয়সা করে পার্কিং চার্জ ধরা হবে। অন্যদিকে মোটরসাইকেল-রিজার্ভ টেক্সি ৫ মিনিট থেকে ৬০ মিনিট পর্যন্ত পার্কিংয়ে রাখলে ৫০ টাকা ফি দিতে হবে। এছাড়া নির্ধারিত সময়ের বাড়তি প্রতি মিনিট ১ টাকা করে পার্কিং চার্জ ধরা হবে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ওইখানে সিকিউরিটির দায়িত্ব পালন করা লিটন মিয়া সিভয়েসকে বলেন, ‘এটা নতুন নিয়ম। মার্কেট সমিতি থেকে করা হয়েছে।’

এমন নিয়ম কতদিন চলবে— এমন প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘পার্কিংয়ে কার রাখলেই ১শ’ টাকা এবং মোটরসাইকেল ও সিএনজি রাখলে ৫০ টাকা। তবে আগামী ১৬ তারিখের পর থেকে টাকার সংখ্যা কমিয়ে দেওয়া হবে। এরপর থেকে কার রাখলেই ৫০ টাকা ও বাকিগুলো ৩০ টাকা।’ তবে আর কিছু জানতে চাইলে তিনি এর বেশি বলতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন। একইসঙ্গে মালিক সমিতির কাছ থেকে জানার পরামর্শ দেন।

এদিকে বিষয়টি স্বীকার করেছেন মিমি সুপার মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি জয়নাল আবেদিন কাঞ্চন। তিনি সিভয়েসকে বলেন, ‘আমরা বাধ্য হয়েই এ সিদ্ধান্ত নিয়েছি। পার্কিং এরিয়া উন্মুক্ত থাকা অবস্থায় আশেপাশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানসহ বহিরাগত লোকজন অবাধে গাড়ি পার্কিং করতো। বাইরের লোকদের কারণে আমাদের প্রকৃত ক্রেতারা গাড়ি রাখার জায়গা না পেয়ে মার্কেটে আসতো না। এতে আমাদের ক্রেতা সংখ্যা কমে যাচ্ছিল। তাই মার্কেটের সার্বিক পরিবেশ ও কাস্টমারদের গাড়ি রাখার সুবিধার্থে এ সিদ্ধান্ত নেই।’

তবে মিমি সুপার মার্কেটের ব্যবসায়ীরা তুলেন ভিন্ন অভিযোগ। তাদের দাবি— পার্কিং এরিয়ায় গাড়ি রাখতে গিয়ে ফি নেওয়ার সিদ্ধান্তে ক্রেতারা সংখ্যা কমে গেছে। এ কারণে বেচা বিক্রিও কম। তাই এ সিস্টেম শুধু কাস্টমাররা নয়; তারাও চান বন্ধ হোক।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারি পরিচালক মোহাম্মদ আনিছুর রহমান সিভয়েসকে বলেন, ‘এ ধরনের একটি অভিযোগ পেয়েছি। তবে এ নিয়ম তারা কেন করলো তা আমরা খতিয়ে দেখবো। যদি অপরাধ প্রমাণিত হয় তাহলে আইনানুগ ব্যবস্থা নিব।’

সিভয়েস/এমএম

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়