Cvoice24.com

ভাদ্রেও বয়ে যাচ্ছে তাপদাহ, মাসের শেষে মিলবে বৃষ্টি

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৬:০৪, ১৯ আগস্ট ২০২২
ভাদ্রেও বয়ে যাচ্ছে তাপদাহ, মাসের শেষে মিলবে বৃষ্টি

বাংলা বর্ষপঞ্জি অনুযায়ী বিদায় নিয়েছে বর্ষাকাল। শুরু হয়েছে ভাদ্র মাস, সেই অর্থে শরতের শুরু। সাধারণত ভাদ্র মাসেও বর্ষার রেশ রয়ে যায়। কিন্তু এবার দেখা গেল উল্টো চিত্র। ভাদ্র মাসের চার দিন পার হতে চললেও কমে আসেনি তাপমাত্রার পারদ। ফলে চট্টগ্রামসহ দেশজুড়ে মৃদু তাপপ্রবাহের কারণে অস্বস্তিকর গরমে কষ্ট পাচ্ছেন সবাই। দুপুরের পর বাড়ছে তাপমাত্রা। এই গরমের মধ্যে আবার বিদ্যুতের যাওয়া আসায় জনজীবন রীতিমতো বিপর্যস্ত। 

আবহাওয়াবিদরা বলছেন, শিগরিরই তাপমাত্রার এই তীব্রতা কমছে না। সাগরে সৃষ্ট লঘুচাপ কেটে গেলে চলতি মাসের শেষে হালকা থেকে মাঝারি ধরণের বৃষ্টিপাত হতে পারে। এতে কমে আসতে পারে তাপমাত্রা।

পতেঙ্গা আবহাওয়া অধিদপ্ততের তথ্যমতে, শুক্রবার (১৯ আগস্ট) দুপুর ১২ টা পর্যন্ত  ৩১ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রের্কড করা হয়েছে। দুপুরের পরে তাপমাত্রা ৩২ থেকে ৩৪ ডিগ্রি পর্যন্ত বাড়তে পারে। এর মধ্যে গতকাল দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রের্কড করা হয়েছে ময়মনসিংহে ৩৭ দশমিক ৮ দশমিক ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর ফেনীতে সর্বোচ্চ ১১৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রের্কড করা হয়েছে। ওই দিন চট্টগ্রামে তাপমাত্রা রের্কড করা হয়েছিল ৩৬ দশমিক ৮ দশমিক ডিগ্রি সেলসিয়াস। 

জানতে চাইলে পতেঙ্গা আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাস কর্মকর্তা বিশ্বজিৎ চৌধুরী সিভয়েসকে বলেন, সাধারণত বর্ষাকালে সাগরে লঘুচাপের সৃষ্টি হয় না। কিন্তু গত মাস থেকেই তিন থেকে চার দিন ধরে সাগরে লঘুচাপ বিরাজ করছে। লঘুচাপ কেটে গেলে এ মাসের শেষে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত হতে পারে। 

এক প্রশ্নে এই পূর্বাভাস কর্মকর্তা বলেন, বর্ষাকালে প্রতি মাসে ৩৩০ থেকে ৪০০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হওয়ার কথা রয়েছে। এর মাঝে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হয়েছে। তবে অপেক্ষাকৃত কম বৃষ্টিপাত হওয়ায় গরম অনুভূত হচ্ছে। গত মাসেও তেমন বৃষ্টি হয়নি। যে কারণে দিন ও রাতের তাপমাত্রার পরিবর্তন নেই।

এদিকে আবহাওয়া অধিদপ্ততের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, উত্তরপূর্ব বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থারত লঘুচাপটি বর্তমানে সুষ্পষ্ট লঘুচাপ আকারে করছে। মৌসুমি বায়ুর অক্ষ রাজস্থান, হরিয়ানা, উত্তর প্রদে, পশ্চিম বঙ্গ ও বাংলাদেশের মধ্যঞ্চল হয়ে আসাম পর্যস্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের উপর সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে প্রবল অবস্থায় রয়েছে।

খুলনা, বরিশাল, রাজশাহী  ও ঢাকা বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় এবং রংপুর, ময়মসিংহ, চট্টগ্রাম ও  সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারি থেকে ভারি বর্ষণ হতে পারে। 

এছাড়া রংপুর, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের উপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অনেক জায়গায় থেকে প্রশমিত হতে পারে। সারাদেশে তাপমাত্রা ১ থেকে ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস হ্রাস পেতে পারে। দেশর দক্ষিণাঞ্চলে রাতের তাপমাত্রা এক থেকে  দুই ডিগ্রি হ্রাস পেতে পারে এবং দেশের অন্যত্র তা সামান্য হ্রাস পেতে পারে। 

সিভয়েস/আরকে

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়