Cvoice24.com

মারা গেছেন হায়দার আকবর খান রনো, দাফন সোমবার

সিভয়েস২৪ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০:২২, ১১ মে ২০২৪
মারা গেছেন হায়দার আকবর খান রনো, দাফন সোমবার

মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ও নেতা, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) উপদেষ্টা হায়দার আকবর খান রনো আর নেই। শুক্রবার (১০ মে) দিবাগত রাত ২টা ৫ মিনিটের দিকে রাজধানীর পান্থপথের একটি হাসপাতালে এই প্রবীণ রাজনীতিক ও লেখক শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। 

গণমাধ্যমকে রনোর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিপিবির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য জলি তালুকদার। তিনি জানান, হায়দার আকবর খান রনোর দাফন আগামী সোমবার করা হবে। দু-দিন তাঁর মরদেহ মরচুয়ারিতে রাখা হবে। এরই মধ্যে তাঁর নিকট আত্মীয়-স্বজন বিদেশ থেকে রওনা দিয়েছেন।

জলি তালুকদার জানান, হায়দার আকবর খান রনোর মরদেহ এখন ধানমন্ডিতে তাঁর নিজ বাসভবনে নেওয়া হয়েছে। সেখান থেকেই নেওয়া হবে সমরিতা হাসপাতালের মরচুয়ারিতে। সোমবার সকাল ১০টা থেকে ১১টা শ্রদ্ধা জানানোর জন্য তাঁর মরদেহ সিপিবি অফিসে রাখা হবে। এরপর শোভাযাত্রা করে মরদেহ নেওয়া হবে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। সেখানে ১২টা থেকে ১টা পর্যন্ত দেশবাসীর শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য মরদেহ রাখা হবে। এরপর বেলা ১টার পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মসজিদে জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হবে।

সোমবার বনানীতে বাবা ও মা’র কবরের পাশে হায়দার আকবর খান রনোকে দাফন করা হবে বলেও জানান জলি তালুকদার।

জানা যায়, হায়দার আকবর খান রনো তীব্র শ্বাসতন্ত্রীয় অসুখ (টাইপ-২ রেসপিরেটরি ফেইলিওর) নিয়ে গত ৬ মে সন্ধ্যায় পান্থপথের একটি হাসপাতালে ভর্তি হন। অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে হাসপাতালটির হাই ডিপেন্ডেন্সি ইউনিটে (এইচডিইউ) রেখে বিশেষ পদ্ধতিতে অক্সিজেন দেওয়া হচ্ছিল।

পরদিন মঙ্গলবার (৭ মে) জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডা. লেনিন চৌধুরী সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে এক পোস্টে লেখেন, ‘রাজনীতিবিদ ও লেখক হায়দার আকবর খান রনোর শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা কমে যাচ্ছে এবং কার্বন ডাইঅক্সাইডের মাত্রা বাড়ছে। তাকে এইচডিইউতে রেখে বিশেষ পদ্ধতিতে অক্সিজেনের জোগান দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু তার অবস্থা এখনো অস্থিতিশীল।’ ওই সময় চিকিৎসার প্রয়োজনে স্বজন-শুভার্থীদের হাসপাতালে ভিড় না করার অনুরোধ করেন ডা. লেনিন চৌধুরী।

মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ও নেতা হায়দার আকবর খান রনো বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সঙ্গে দীর্ঘদিন থাকলেও ২০১০ সালে মতভিন্নতার কারণে দলটি ছেড়ে সিপিবিতে যোগ দেন। ২০১২ সালে তাকে দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য করা হয়। এরপর তিনি সিপিবির উপদেষ্টা নির্বাচিত হন। তিনি একাধিক বইয়ের লেখক। মার্ক্সবাদী এই তাত্ত্বিক পূর্ব পাকিস্তান ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। 

হায়দার আকবর খান রনো বাংলাদেশের কমিউনিস্ট আন্দোলনের এক প্রবাদ পুরুষ। তাঁর জন্ম ১৯৪২ সালের ৩১ আগস্ট অবিভক্ত ভারতের কলকাতায়। তাঁর মায়ের নাম কানিজ ফাতেমা মোহসিনা ও বাবা হাতেম আলী খান। হায়দার আকবর খান রনোর একমাত্র ভাই বীর মুক্তিযোদ্ধা ও রাজনীতিবিদ প্রয়াত হায়দার আনোয়ার খান জুনো। তার পৈতৃক নিবাস নড়াইলের বরাশুলা গ্রামে।

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়