image

আজ, শনিবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২০


ধূমপান থেকে কি রক্ষা পাবে নারীরা!

ধূমপান থেকে কি রক্ষা পাবে নারীরা!

‘সেদিন সুদূর নয়-যে দিন ধরণী পুরুষের সাথে গাহিবে নারীরও জয়।’ কবি কাজী নজরুল ইসলামের নারী কবিতার শেষ এ আর্জি এখনো পূরণ হয়েছে কি! দেশে এবং দেশের বাইরে অনেক গুরুত্বপূর্ণ স্থানে নারীরা পুরুষদের ছাড়িয়ে গেছে এ যেমন সত্য, সাধারণের মাঝে পুরুষদের তুলনায় নারী যে আজও পিছিয়ে একথাও কেউ অস্বীকার করবেন বলে বোধ করি না।

নারীর এ পশ্চাৎপদতা শুধু সম্পদে বা কর্মেই নয়, গুরুত্বারোপের বেলায়ও সর্বক্ষেত্রে যেন পুরুষদেরই অগ্রাধিকার দেই আমরা। গত ৮ মার্চ গেল আন্তর্জাতিক নারী দিবস। বছরের অন্য image সময়ের থেকে এই দিনটিতে নারীদের অধিকার-সুরক্ষা নিয়ে সবার মাঝেই একধরনের কর্মোদ্দীপনা লক্ষ্য করা যায়। অন্য সবার মত নারীদের অধিকার-সুরক্ষায় কিছুটা ব্যতিক্রমধর্মী আর একটি দিক তুলে ধরতেই আজকের লেখার অবতারণা।

ধূমপান স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর, এমনকি মৃত্যুর প্রধান কারণ, এ নিয়ে ধূমপায়ীরাও বিপক্ষে যুক্তি দেবেন না। পুরুষের তুলনায় নারীদের মধ্যে ধূমপায়ীর সংখ্যা অনেক কম, এও সকলের জানা। তবে ধূমপায়ীর সংখ্যা কম হলেও তামাকের অনেক অন্য ব্যবহার নারীদের মধ্যে আছে, এ কথাটি কি আমরা গুরুত্ব নিয়ে বিচার করছি? ধূমপানের ক্ষতিকর দিক নিয়ে নানা প্রচার-প্রচারণা দীর্ঘদিন ধরেই চলছে। কিন্তু সচেতনতা তৈরির আয়োজনগুলো শুধু পুরুষদের জন্য হয়ে পড়ছে নাতো!

বাংলাদেশে গত আট বছরে তামাক সেবনকারীদের সংখ্যা উল্লেখযোগ্য হারে কমেছে, যা তামাক নির্মূলে নেওয়া পদক্ষেপগুলোর কার্যকারিতার প্রমাণ দিচ্ছে।

‘গ্লোবাল অ্যাডাল্ট টোবাকো সার্ভে ২০১৭’ জরিপ মতে, বাংলাদেশে প্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যে ধূমপায়ী এবং ধোঁয়াবিহীন তামাক ব্যবহারকারীর হার হ্রাস পেয়েছে যথাক্রমে ৫ শতাংশ ও ৬ দশমিক ৬ শতাংশ। কিন্তু বিস্ময়কর হলেও সত্য তামাক বর্জনের এই চিত্রে এগিয়ে আছেন পুরুষরাই; ৫৮ শতাংশ থেকে কমে এসে ৪৬ শতাংশ পুরুষকে তামাকসেবী বলা হয়েছে জরিপে। অন্যদিকে নারীদের মধ্যে তামাক বর্জনের হার কমেছে সামান্যই; ২৮ দশমিক ৭ শতাংশ থেকে কমে ২৫ দশমিক ২ শতাংশ। এর কারণ হিসাবে বলা হয়েছে, ধূমপান কমে এলেও মুখে তামাক খাওয়ার অভ্যাস এখনও কমে আসেনি নারীদের মধ্যে।

তবে শুধু ধোঁয়াবিহীন তামাকই নয়, দেশে শুধু পুরুষ ধূমপায়ীর জন্যই যে সিগারেট কোম্পানিগুলো ব্যবসা করছে না। নারী ধূমপায়ীদেরও এখন তারা বেশ গুরুত্ব দিচ্ছে। এমনকি নারীকে ধূমপানে আসক্ত করতে বাজারে আনা হচ্ছে নতুন সিগারেটও। সিগারেটের দোকানগুলোতে এখন নারী বিক্রেতাদের জন্য বিশেষ সিগারেট বিক্রি হচ্ছে। ইলেকট্রনিক সিগারেট বা ই-সিগারেট, ফ্লেভারযুক্ত কম নিকোটিনের সিগারেটের ভালো চাহিদা আছে নারী ক্রেতাদের কাছে।

বাংলাদেশ জাতীয় যক্ষ্মা নিরোধ সমিতি ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বাংলাদেশ চ্যাপ্টারের প্রতিবেদন থেকে প্রাপ্ত তথ্য মতে, দেশে মোট নারীর দুই কোটিরও কিছু বেশি ধূমপানে আসক্ত। বাংলাদেশে প্রতি বছর পাঁচ দশমিক সাত শতাংশ নারী তামাক ব্যবহারের কারণে মারা যান। বিশ্বব্যাপী নারীরা নানা ধরনের প্রজনন স্বাস্থ্য সমস্যায় ভুগছেন, তার মধ্যে ধূমপায়ীর সংখ্যাই বেশি। এমনকি বর্তমানে পার্টি, কনসার্টসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানে এমনভাবে পরিবেশ তৈরি করা হচ্ছে যেখানে মেয়েরা স্বাচ্ছন্দ্যে ধূমপান করতে পারে। ফলে এই ধরনের অনুষ্ঠানগুলোতে নানা বয়সী নারী ও তরুণীদের দলে দলে ধূমপান করতে দেখা যায়।

দুঃখজনক হলেও সত্য, ইদানিং শহরে অনেক নারীরা পুরুষদের অনুকরণে ধুমপানে অভ্যস্ত হচ্ছে। এভাবে তারা শুধু নিজেদেরই ক্ষতি করছেন না, ক্ষতি করছেন অনাগত সন্তানের তথা নতুন প্রজন্মের। দেশে গ্রামে যারা বিড়ি সিগারেট খায় তারা নারীবাদ নিয়ে কথা বলে না। স্বামীকে পাকঘরের (রান্নাঘর) চুলা থেকে বিড়ি ধরাতে গিয়েও অভ্যাস হয়েছে, এমন ঘটনাও শোনা যায়।

ব্যক্তি স্বাধীনতার প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই বলছি, তামাক কোম্পানির ক্ষতিকর পণ্যের ভোক্তা হয়ে আমাদের কোন লাভ আছে কি! তামাক কোম্পানি পুরুষদের পর নারীর দিকেই নজর দিয়েছে, তাদের ব্যবসার ভবিষ্যৎ বিবেচনা করে। কারণ তাদের ক্রেতাদের একটি বড় অংশ খুব তাড়াতাড়ি অকাল মৃত্যুর শিকার হবে, ফলে নতুন ক্রেতা তৈরি না হলে ব্যবসা হবে কোথা থেকে? তামাক কোম্পানির কৌশল রুখতে তাই ধূমপানের পাশাপাশি অন্যান্য তামাকপণ্য নিয়ন্ত্রণেও সবাই এগিয়ে আসবে এমনটাই প্রত্যাশা রাখি।

-সিভয়েস/এসএ

আরও পড়ুন

যুগের যাত্রায় যুবলীগ, জীবনের জয়গান যুবলীগ

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের অন্যতম সহযোগী সংগঠন যুবলীগ। যার জন্মই হয়েছিল সময়ের বিস্তারিত

তারুণ্যকে টেনে নামানোর অপসংস্কৃতির রাহুগ্রাসে ‘এলিট’

একটি কৌতুক জীবনে চলার পথে দেখলাম বারবার সত্য প্রমাণ হয়, একজন আরেকজনকে বিস্তারিত

এলিটকে নিয়ে ‘অপপ্রচার’ ও কয়েকটি প্রশ্ন

একটা মহল বা গোষ্ঠী গণমাধ্যমে বিবৃতি দিয়েছেন, নিয়াজ মোরশেদ এলিটের পিতা বিস্তারিত

মার খেয়েও বলতে হবে, খবর ছাপব

‘আর মাইরেন না, নিউজ করব না’—এ কথাকে সমসাময়িক সাংবাদিকতার বাস্তবতা বলে বিস্তারিত

ওরা ধর্ষক, আমরা দর্শক!

ডিসকভারি চ্যানেলে বাঘ যখন তার হিংস্র থাবায় শিকারীকে ছিন্নবিচ্ছিন্ন করে বিস্তারিত

আওয়ামী লীগের প্রতিপক্ষ আওয়ামী লীগ!

৫ জানুয়ারির নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর সারা বাংলাদেশে একাধারে বিস্তারিত

একজন পুলিশ কনস্টেবল নেকবারের জন্য সহকর্মীর শোকগাথা  

পরের কারণে স্বার্থ দিয়া বলি এ জীবন মন সকলি দাও। তার মত সুখ কোথাও কি বিস্তারিত

করোনা-আইসিইউ-শিল্পপতির মৃত্যু!

পানিভর্তি ড্রাম কিংবা পুকুরে নাক মুখ চেপে ধরলে যেমন হয় ঠিক সেই অবস্থা। অথবা বিস্তারিত

এক কোটি মানুষ বাঁচাতে পারে ১৬ কোটি মানুষকে!

ফেসবুকে ইতালির প্রধানমন্ত্রী জিউসেপ কোঁতের কান্নার ছবিটি ভাইরাল হতে বিস্তারিত

সর্বশেষ

মাস্ক না পরে ঘোরাঘুরি, ১১৭ জনকে জরিমানা

করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হয়ে গেলেও সামাজিক দূরত্ব ও বিস্তারিত

ট্রেনে কাটা পড়ে ভাই-বোনের মৃত্যু

ছুটির দিনে মিরসরাই উপজেলার বাওয়াছড়া লেকে বেড়াতে গিয়ে বাড়ি ফেরার পথে বিস্তারিত

৯ মাস পর ‘পিতার গৌরবগাঁথা’য় খুললো শিল্পকলা

দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণের শুরুতেই বন্ধ হয়ে যাওয়া চট্টগ্রাম শিল্পকলা বিস্তারিত

তর সইছে না রেজাউলের, পরিস্থিতি দেখছেন শাহাদাত

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) স্থগিত নির্বাচন ঘিরে মাঠের লড়াইয়ে ফের সরব বিস্তারিত

সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত, এই ওয়েব সাইটের যেকোন লিখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ন বেআইনি

close image