Cvoice24.com
corona-awareness

২৮ নং পাঠানটুলি ওয়ার্ড: নিজের জন্য কাউন্সিলর হতে চান না এড. টিপু শীল জয়দেব

প্রকাশিত: ১২:২৯, ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২০
২৮ নং পাঠানটুলি ওয়ার্ড: নিজের জন্য কাউন্সিলর হতে চান না এড. টিপু শীল জয়দেব

ফাইল ছবি।

২৮নং পাঠানটুলি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর নির্বাচন করতে চান এড. টিপু শীল। তবে নিজের জন্য নয় এলাকার উন্নয়ন, সন্ত্রাস-মাদক নির্মূল, পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা, শিক্ষার মান উন্নয়নসহ অসংখ্য প্রতিশ্রুতির ফুলজুড়ি রয়েছে তার। তাও আবার এলাকাবাসী যদি চান।  দীর্ঘ দুই দশকের বেশি সময় ধরে ছাত্র জীবন থেকে আওয়ামী রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত। সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া সংগঠনের সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত তিনি। চট্টগ্রাম আইন কলেজ থেকে এলএলবি পাশ করা এড. টিপু শীল জয়দেব আওয়ামী যুবলীগ সংগঠক হিসেবে পরিচিত। এছাড়া চট্টগ্রাম আইন কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি ও কলেজ ছাত্র সংসদের ক্রীড়া সম্পাদক হিসেবে দায়িত্বরত ছিলেন তিনি।


নিজের পরিকল্পনার বিষয়গুলো জানান দিতে সিভয়েস২৪ডটকমের মুখোমুখি হয়েছেন এড. টিপু শীল জয়দেব।

সিভয়েস- আপনি নির্বাচিত হলে এলাকার কি কি উন্নয়ন করবেন?
এড. টিপু শীল জয়দেব - প্রথমত খেলার মাঠ তৈরি করা। ভরাট পুকুর উদ্ধার। জলাবদ্ধতা নিরসনে কার্যকর পদক্ষেপ। এলাকা পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখা। পর্যাপ্ত আলোকায়নে ব্যবস্থা করা। শিক্ষার উন্নয়নে কাজ করব।

সিভয়েস-জনগণ কেন আপনাকে ভোট দিবে?
এড. টিপু শীল জয়দেব -এই ওয়ার্ডে শৈশব থেকেই আমার বেড়ে উঠা, প্রাইমারী ও মাধ্যমিক শিক্ষা এই ওয়ার্ডের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকেই শেষ করেছি। তাই এই এলাকার জনগণের সাথে পরিচয় আমার দীর্ঘ সময়ের। বিভিন্ন টুর্ণামেন্ট অংশগ্রহণ, মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি পাঠাগারের মাধ্যমে সামাজিক ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে আয়োজন করা, যে কোন সামাজিক অনুষ্ঠানে আমার সরব উপস্থিতি সেই ছোট বেলা থেকেই।এলাকার মানুষ আমাকে বিশ্বাস করে বলেই আমাকে ভোট দিবে বলে আশাকরছি।

সিভয়েস- মাদক নির্মুলে কি কি ভূমিকা রাখবেন?
এড. টিপু শীল জয়দেব- এই ওয়ার্ডে মাদক দীর্ঘ দিনের সমস্যা। এই মাদক ও সন্ত্রাসের নিয়ন্ত্রণ নিতে গিয়ে খুন পর্যন্ত হয়েছেএমনকি অতীতের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের প্রত্যক্ষ তত্বাবধানে এই অপরাধগুলো হয়েছে যা প্রায় সকলেই অবগত, এমনকি বিগত কয়েকদিন আগে এরই ধারাবাহিকতায় ওয়ার্ড যুবলীগের এক নেতাকে আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর হাতে নিহত হয়। শুধু তাই নয় আগ্রাবাদ যে ভ্রাম্যমাণ হকার রয়েছে তাদের কাছ থেকে মোটা অংকের চাঁদাবাজি হয়। আমি নির্বাচিত হলে আমার অন্যতম কাজ হবে এলাকার মাদক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করা।

সিভয়েস- দলীয় সিদ্ধান্তের ব্যাপারে আপনার মতামত কি?
এড. টিপু শীল জয়দেব -আমি দলের জন্য একজন নিবেদিত প্রাণ কর্মী। এই এলাকায় অতীতে যারা নির্বাচিত হয়েছেন তাদের আমলনামা দেখলেই বুঝতে পারবেন কেউ কেউ প্রাথমিকের গন্ডি পেরোয়নি বা কেউ কেউ একসময় ক্রস ফায়ারের তালিকায় আছেন। কেউ কেউ দীর্ঘ দিন বিদেশে ছিলেন। বিগত মেয়র নির্বাচন বা জাতীয় নির্বাচনে তাদের কোনো ভূমিকা ছিলো না। দল যখন করি তবে দলের সিদ্ধান্ত মানতেই হবে। তবে এমন কাউকে দেওয়া উচিত হবে না, যার বিরুদ্ধে উপরোক্ত অভিযোগগুলো রয়েছে। যার সাথে কোনো জনসম্পৃত্ততা নেই, যে বিভিন্ন অপকর্মের সাথে জড়িত। যদি তাকে মনোনয়ন দেওয়া হয় তবে এলাকার জনগণ চায় তবে আমি অবশ্যই নির্বাচন করবো। কিন্তু প্রিয়নেতা আ জ ম নাছির উদ্দিন ভাই যদি না চান তবে আমি নির্বাচন করবো না

সিভয়েস-এলাকাবাসী উদ্দেশ্যে কিছু বলেন?
এড. টিপু শীল জয়দেব- প্রিয় এলাকাবাসী , মাদক এবং সন্ত্রাস মুক্ত এলাকা নির্মানের  অঙ্গীকারে কাউন্সিলর হতে চাই আমি, এলাকার  মানুষের কল্যাণে কাজ করতে চাই। জনপ্রতিনিধি হলে তা বৃহৎ পরিসরে করা সম্ভব। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলার আধুনিক রূপই মূলত আজকের ডিজিটাল বাংলাদেশ। রূপকল্প ২০২১ এর অধীনে ঘোষিত সময়ের আগেই একটি সুখী, সমৃদ্ধ, স্বনির্ভর বাংলাদেশ বিনির্মাণের মধ্য দিয়ে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন পূরণের জন্য তার সুযোগ্য কণ্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ আজও নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। যে মশাল বঙ্গবন্ধু জ্বালিয়ে রেখে গিয়েছিলেন ৬৭ বছর আগে, তার সুযোগ্য উত্তরসূরীরা আজও নিষ্ঠার সঙ্গে তা বহন করে চলেছেন। আমি কাউন্সিলর হতে চাই নিজের জন্য নয়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে, মাদকমুক্ত সমাজ গড়তে।

-সিভয়েস/এসসি

তাপস বড়ুয়া

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়