Cvoice24.com
ঈদের শুভেচ্ছা  :: CVoice24

এক কোটি মানুষ বাঁচাতে পারে ১৬ কোটি মানুষকে!

প্রকাশিত: ১১:১০, ২৮ মার্চ ২০২০
এক কোটি মানুষ বাঁচাতে পারে ১৬ কোটি মানুষকে!

ছবি এডিট: সিভয়েস

ফেসবুকে ইতালির প্রধানমন্ত্রী জিউসেপ কোঁতের কান্নার ছবিটি ভাইরাল হতে দেখলাম। তিনি কান্না করে বললেন, ‘করোনার সমাধান আকাশে’। তিনি হয়তো বলতেই পারেন এ কথাটি, তবে কেন ভাই ইতালির প্রধানমন্ত্রীর স্থলে ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জাইয়া বলসোনারোর কান্নার ছবি জুড়ে দিয়ে ভাইরাল করলেন? কথাটি ইসলামের পক্ষে তাই? আপনি ধর্মপ্রাণ বাংলাদেশি মুসলিম তাই? ভুল ছবি দিয়ে কেন? একবারও কি যাচাই করলেন আপনি কার ছবি দিয়ে কি প্রচার করলেন।

করোনা দিয়ে পৃথিবীর সব মানুষ মারতে চায় ‘চীন’। চা খেয়ে করোনা থেকে ‘বাঁচা’ যায়, করোনার ‘ভেকসিন’ তৈরি, বাংলাদেশে কয়েকলাখ মানুষ করোনায় আক্রান্ত, সরকার সব গোপন করছেন, এ রকম হাজার রকম মিথ্যা বানোয়াট প্রচার-প্রচারণা চোখে পড়েছে ফেসবুকের ওয়ালে ওয়ালে। 

সবচেয়ে আশ্চর্য হয়েছি বাংলাদেশি মন্ত্রী-এমপিদের করোনা নিয়ে উদ্ভট কতাবার্তা। এমনকি বিরোধী দল বিএনপি’র মহাসচিবের কথাশুনেও তাজ্জব বনে যাওয়া ছাড়া কোন উপায় ছিলো না। আমরা কোথায় বাস করছি? আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্ম কি শিক্ষা নিচ্ছে? আমরা একবারও ভাবছি না, স্পিকার পেলেই আমিই যা বলছি তাই সঠিক ধারণা করে নিচ্ছি। 

আসলেই ফেসবুকে আর রাজনীতির মাঠের বিশেষ বিশেষ এসব ‘অজ্ঞ’দের সবার আগেই করোনা আক্রান্ত হওয়া উচিত। তারপর তারা বুঝতো তাদের এসব কথা করোনা আক্রান্তদের ক্ষতের পরিমাণ আরো কত গুণ বাড়িয়ে দিচ্ছে। 

আমি করোনা নিয়ে এ পর্যন্ত একটি স্টাটাস বা কোন মন্তব্য করি নাই। আমি সাধারণত কোন ঘটনা ঘটলে আগে পর্যবেক্ষণ করার চেষ্টা করি। তারপর প্রয়োজন মনে হলে কিছু লেখার বা নিজের কোন ক্ষুদ্র প্রয়াস থাকলে তার প্রতিফলন ঘটানোর চেষ্টা করি। যদি প্রয়োজন না হয়, বিষয়টি এড়িয়ে চলার চেষ্টা করি। 

তবে এ সময়ে এসে লিখতে বাধ্য হলাম, করোনা আক্রান্ত একটি পরিবারের কি যে আহাজারি! বা কোনো করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির কি যে কষ্ট! তা উপলব্ধি করতে পারছি। আমি নিজেই গত ১৫ দিন ধরে কানাডায় গৃহবন্দি আছি। আমার প্রতিটি সময় যাচ্ছে কথা বলে বলে। আর করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির কেমন লাগছে, একবার ভাবুন! কি যে দুঃসময় তাদের, কি যে কষ্ট! কি অবস্থা তাদের পরিবারের। 

ফেসবুকে নিজের মনের ভাবনাগুলো নিয়ে সাময়িক স্বস্তি নিতে আর কোন মিথ্যাচার প্রচার করবেন না, প্লিজ। আপনি যেটা জানেন না, সেটা নিয়ে বিশেষজ্ঞ হতে কেন যাবেন? 

হয়তো এমনও হতে পারে আপনি কারো উপকারের জন্য প্রয়োজনীয় বাস্তবসম্মত পোস্ট দিচ্ছেন। এসব পোস্ট দেয়ার আগে দয়া করে একবার যাচাই করে দিন। আর আজেবাজে পোস্ট দিয়ে গুজব ছড়াবেন না, আপনার একটি গুজব অনেকের ক্ষতি হতে পারে। 

আসুন না, আমরা এ সংকটময় মুহুর্তে একে অপরের পাশে দাঁড়ায়। আসল তথ্য তুলে ধরে একে অপরকে সহযোগিতা করি। 

আমি শুধু এটুকুই বলবো, এ সংকটময় মুহুর্তে আপনার একটাই কাজ আপনি যদি আগামি ৬টি মাস খেয়ে পড়ে বাঁচতে পারেন। এ ৬ মাসের মধ্যে একটি মাসের বাজেটের টাকা দিয়ে আপনি আপনার পাশের মানুষটিকে একটু সহযোগিতা করুন। আমরা প্রত্যেকে যদি এ কাজটি করতে পারি বাংলাদেশে ক্ষুধার জ্বালায় মৃত্যু থেকে বেঁচে যাবে লাখ লাখ মানুষ। 

কারণ বাংলাদেশে করোনাভাইরাস মোকবেলা করতে গেলে হাজারো মানুষকে না খেয়ে থাকতে হবে ঘরবন্দি হয়ে। এটাই কঠিন বাস্তবতা। এ বাস্তবতায় সরকারের চেয়ে আপনার আমার দায়িত্ব বেশি। 

তাই সবাইকে অনুরোধ করছি, আপনার পাশের মানুষের দেখভাল করুন। দেখবেন এ কঠিন পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে আমাদের কাজটা অনেক সহজ হয়ে যাবে। ১ কোটি মানুষ সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিলে ১৬ কোটি মানুষকে অন্তত আগামি একমাস না খেয়ে থাকতে হবে না। আসুন, একজন বিত্তশালী মানুষ আগামী একমাসে অন্তত ১৬ জন মানুষকে সহযোগীতা করি। আপনাদের সহয়োগিতায় সবাই ঘরে থাকবে। ঘরে থাকলেই করোনা মোকাবেলা করা সম্ভব। এছাড়া আর কোনো উপায় নেই। পুলিশকে আর লাঠিপেটা করতে হবে না। 

কথা দিলাম আমি আমার এলাকার মানুষের পাশে দাঁড়াবো। কথা সবাই বলতে পারে, ভাল ভাল সবাই লিখতে পারে, কয়জন কথার সাথে কাজে মিল রাখতে পারে। মানব সভ্যতার  ধ্বংসলীলার এ যুদ্ধে জয়ী হতে হলে আমাদেরকে একে অপরের পাশে দাঁড়াতে হবে। এছাড়া আর কোনো বিকল্প নেই।

লেখক ও সাংবাদিক

মফিজুল ইসলাম চৌধুরী বাবলু

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়