image

আজ, শুক্রবার, ১০ জুলাই ২০২০ ,


চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতাল

অনাদরে থাকা হাসপাতালটিই এখন শেষ ভরসাস্থল

অনাদরে থাকা হাসপাতালটিই এখন শেষ ভরসাস্থল

হাসাপাতাল সড়কেই গাড়ির লম্বা লাইন, মূল ফটকে প্রতিদিন ভেসে বেড়ায় ময়লার ভাগাড়, জরুরি বিভাগে বসে শুনতে হয় গাড়ির তীব্র হর্ণ! সেই সাথে বিনা বাধায় যে কেউ প্রবেশ করতে পারেন এই বিভাগে। সমস্যা শুধু অবকাঠামোগত নয়! বিল বকেয়া থাকার কারণে বিছিন্ন হয়েছিল গ্যাস লাইনও। বছর জুড়ে এত কাণ্ড ঘটে যাওয়া চট্টগ্রামের দ্বিতীয় বৃহত্তম সরকারি স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানটি দেখে বুঝার উপায় ছিল এটিও একটি হাসপাতাল!

নামেই ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট চট্টগ্রামের এই জেনারেল হাসপাতাল সারাবছর জর্জরিত থাকে চিকিসৎক নার্স, স্থায়ী বার্বুচি, প্রহরী সংকটসহ চিকিৎসা উপকরণ সংকটে। চট্টগ্রাম নগরীর প্রাণকেন্দ্র আন্দরকিল্লায় image অবস্থিত এই জেনারেল হাসপাতালের অবকাঠামো রোগীবান্ধব না হওয়ায় রোগী ও স্বজনদের আক্ষেপের সুর বারবার হয়েছে পত্র-পত্রিকার শিরোনাম।

অথচ করোনাকালে চট্টগ্রামের সরকারি স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানটি করোনাভাইরাস আক্রান্তদের চিকিৎসায় রাখছে অগ্রণী ভূমিকা। নানা সমস্যায় জর্জরিত হয়েও ‌‘গরীবের হাসপাতাল’ এখন হয়ে উঠেছে ধনী-গরীব এবং মধ্যবিত্তের শেষ ভরসাস্থল। করোনার উপসর্গ দেখা দিলে যেতেই হচ্ছে এই হাসপাতালে। পুলিশ থেকে সাধারণ মানুষ যারই করোনার উপসর্গ দেখা যাচ্ছে তিনিই আসছেন এই হাসপাতালের সেবা নিতে। বাদ যাননি দেশের অন্যতম শিল্পগ্রুপ এস আলম পরিবারের সদস্যরাও। এমনকি সারা বছর অনাদরে থাকা গরীবের এই হাসপাতালের বেডেই মারা যান এস আলম গ্রুপের পরিচালক মোরশেদুল আলমের।   

তবে সব সংকট সমাধান না হলেও করোনাকালে যেন বদলে গেছে এই হাসপাতালটির গুরুত্ব। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসায় এ হাসপাতালে প্রস্তুত করা হয় ১০০ শয্যা। মিলেছে দীর্ঘদিন কাট-খড় পুড়িয়ে নাগাল না পাওয়া বহুমূল্যর আইসিইউ। যদিও সংখ্যায় মাত্র ১০ শয্যার আইসিইউ। তবে সংশ্লিষ্টরা বলছেন, যুক্ত হওয়ার অপেক্ষায় আছে আরও। ফলে ক্রমে রোগীদের আস্থা ও নির্ভরতা তৈরি হচ্ছে প্রতিষ্ঠানটির ওপর।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, গত ১৯ মার্চ জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসা শুরু হয়। ইতিমধ্যে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়েছেন ১৫১ জন।  বর্তমানে করোনা পজিটিভ ভর্তি আছেন ১৩২ জন, করোনা সন্দেহের রোগী রয়েছেন ৭ জন। তাছাড়া সাধারণ বেডে চিকিৎসা নিচ্ছেন ১২৩ জন রোগী। তবে হাসপাতালটিতে মৃত্যুর তালিকায় যুক্ত হয়েছে ৪২ জনের নাম। এর মধ্যে করোনা পজিটিভ রয়েছেন ২৬ জন।

অন্যদিকে, আইসোলেশন ওয়ার্ডে সেবা দেওয়ার জন্য চিকিৎসকদের নিয়ে বিশেষ টিম গঠন করা হয়েছে। সিনিয়র কনসালট্যান্ট ও মেডিকেল অফিসারের সমন্বয়ে নয় জনের তিনটি বিশেষ টিম গঠন করা হয়েছে। প্রতিটি টিম টানা ১০ দিন দায়িত্ব পালন করে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকছেন চিকিৎসকরা। এরপর ছয় দিন বাসায় থাকার পর কাজে যোগ দিচ্ছেন তারা।  

একইভাবে ছয় সদস্য করে নার্সেরও তিনটি টিম গঠন করা হয়েছে। তারাও ১০ দিন কাজ করে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকছেন। চিকিৎসক-নার্সদের কোয়ারেন্টাইনে সরকারি আঞ্চলিক লোকপ্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে ১২ ও বেসরকারি দুটি হোটেলে ৩৭টি কক্ষ বরাদ্দ রাখা হয়েছে। খাবারও দেওয়া হচ্ছে সরকারি খরচে।

চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র কনসালটেন্ট ডা. আব্দুর রব সিভয়েসকে বলেন, ‘নিজেদের সর্বোচ্চ প্রচেষ্টায় চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছেন চিকিৎসরা। করোনার চিকিৎসার যথা নিয়ম মেনে কাজ করে চলেছে একাধিক চিকিৎসক ও নার্স টিম।’ 

অন্যদিকে  হাসাপাতালে স্থায়ী কোন প্রহরী না থাকার কারণে করোনাকালে ভবঘুরে মানুষ-জনের হাসপাতালের ভেতর নির্বিগ্নে যাওয়া আসা ভাবিয়ে তুলেছে সংশ্লিষ্টদের। ভবঘুরেদের আসা-যাওয়া বন্ধ করে অতি স্পর্শকাতর এই রোগের সংক্রমণ রোধে জরুরি ভিত্তিতে প্রহরী নিয়োগের জোর দাবি জানান সংশ্লিষ্টরা।

-সিভয়েস/এমএম

আরও পড়ুন

সাধারণ কাশি-জ্বরে এন্টিবায়োটিক, নষ্ট হচ্ছে শরীরের এন্টিবডি

বিশ্ব মহামারী নভেল করোনা (সার্স কোভ-২) ভাইরাস প্রতিরোধে এখনও কোনো ওষুধ বিস্তারিত

অক্সিজেন সংকটে নিঃশ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছে ‌‘চট্টগ্রামের’

নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শুরুর পর থেকে চারদিকে আইসিইউ সংকট নিয়ে চলছে বিস্তারিত

প্রস্তুত হয়নি ইউএসটিসি-ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল, দিতে হবে চিকিৎসা ব্যয় 

চট্টগ্রাম নগরের বেসরকারি বৃহৎ দুটি হাসপাতালে করোনা চিকিৎসা চালুর সরকারি বিস্তারিত

মুখেই ফ্রন্টফাইটার, জে. হাসপাতালের স্বাস্থ্যকর্মীদের বেতন 'বন্ধ' ৫ মাস

কোভিড হাসপাতাল ঘোষিত চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতাল। চট্টগ্রামে করোনা বিস্তারিত

ক্লিনিকে করোনা চিকিৎসা, সরকারি সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে সংশয়

চট্টগ্রাম মহানগরীর বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে ৪ হাজার ১৫৭টি শয্যা থাকলেও বিস্তারিত

চট্টগ্রামে মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে বিলবোর্ড, মেয়রের কড়া হুঁশিয়ারি

বন্দর নগরী চট্টগ্রামের প্রধান সড়কে গত কয়েক বছর ধরে নয়নভরে সবুজ প্রকৃতি বিস্তারিত

করোনা/টিউশনি বন্ধে জীবিকা নিয়ে গৃহশিক্ষকদের কপালে চিন্তার ভাজ

টানা লকডাউনে টিউশনি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছেন গৃহশিক্ষকেরা। করোনা রোধ বিস্তারিত

করোনাকাল/ ইফতার বাজারে নেই সেই জৌলুশ, পাড়ার দোকানে মানছে না নিয়ম

সারাদেশে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) বিস্তার ঠেকাতে লকডাউন চলার মধ্যেই বিস্তারিত

লকডাউনকে পুঁজি করে চার-ছক্কায় আমদানিকারক ও মিল মালিকরা

সম্প্রতি সারাদেশে সরকার ঘোষিত লকডাউনকে পুঁজি করে লাগামহীন দ্রব্য মূল্যের বিস্তারিত

সর্বশেষ

থাইল্যান্ডে মারা গেলেন সাহারা খাতুন

চিকিৎসকদের সব প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে দিয়ে না ফেরার দেশে পাড়ি জমালেন সাবেক বিস্তারিত

পতেঙ্গায় বাসের ধাক্কায় জীবন সংকটে শিশু

পতেঙ্গার চরপাড়া মোড়ে রাস্তা পারাপারের সময় মিনিবাসের  ধাক্কায় মো. নাঈম (১১) বিস্তারিত

‘অবসান হলো’ হেফাজতের শীর্ষ দুই নেতার বিরোধ!

সাম্প্রতিক সময়ে আল জামেয়াতুল আহলিয়া দারুল উলুম মাদ্রাসার (হাটহাজারী বিস্তারিত

৭০০ কিলোমিটার নতুন পাইপ লাইন বসাচ্ছে চট্টগ্রাম ওয়াসা

নগরীতে ২০২২ সালের মধ্যে ৭০০ কিলোমিটার নতুন পাইপ লাইন বসানোর কথা জানিয়েছেন বিস্তারিত

সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত, এই ওয়েব সাইটের যেকোন লিখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ন বেআইনি