Cvoice24.com

হাটহাজারীর সবুজের মাঠে সূর্যের হাসি 

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২০:৪৪, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১
হাটহাজারীর সবুজের মাঠে সূর্যের হাসি 

সবুজের মাঝে হলুদ সূর্যমুখী ফুল শোভা ছড়াচ্ছে হাটহাজারী উপজেলার আঞ্চলিক কৃষি গবেষণা কেন্দ্রের মাঠে।

সূর্যমুখী এক ধরনের একবর্ষী ফুলগাছ। সূর্যমুখী গাছ লম্বায় ৩ মিটার (৯.৮ ফু) হয়ে থাকে, ফুলের ব্যাস ৩০ সেন্টিমিটার (১২ ইঞ্চি) পর্যন্ত হয়। এই ফুল দেখতে কিছুটা সূর্যের মত এবং সূর্যের দিকে মুখ করে থাকে বলে এর এরূপ নামকরণ। সূর্যমুখীর তেল ঘিয়ের বিকল্প হিসেবে ব্যবহৃত হয়, যা বনস্পতি তেল নামে পরিচিত। এই তেল অন্যান্য রান্নার তেল হতে ভাল এবং হৃদরোগীদের জন্য বেশ কার্যকর। এতে কোলেস্টেরলের মাত্রা অত্যন্ত কম। এছাড়া এতে ভিটামিন এ, ডি ও ই রয়েছে।

সবুজের মাঝে হলুদ সূর্যমুখী ফুল শোভা ছড়াচ্ছে চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার আঞ্চলিক কৃষি গবেষণা কেন্দ্রের মাঠে। সূর্যমুখী ফুল বাগানের সৌন্দর্য দেখতে হাটহাজারীর বিভিন্ন স্থান থেকে প্রতিদিনই দর্শনার্থীরা আসেন দলে দলে। উইকিপিডিয়া বলছে, সূর্যমুখী ফুলের বীজ হাঁস মুরগির খাদ্যরূপে ও তেলের উৎস হিসেবে ব্যবহৃত হয়। এই বীজ যন্ত্রে মাড়াই করে তেল বের করা হয় ৷ তেলের উৎস হিসেবে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে সূর্যমুখীর ব্যাপক চাষ হয়। সমভুমি এলাকায় শীত ও বসন্তকালে, উঁচু লালমাটি এলাকায় বর্ষাকালে ও সমুদ্রকুলবর্তী এলাকায় শীতকালীন শস্য হিসাবে চাষ করা হয়। ১৯৭৫ সাল থেকে সূর্যমুখী একটি তেল ফসল হিসেবে বাংলাদেশে আবাদ হচ্ছে। 

হাটহাজারী ঘুরে এসে সূর্যমুখী বাগানের চিত্র ক্যামেরাবন্দি করেছেন সিভয়েসের আলোকচিত্রী আজীম অনন। 

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়