Cvoice24.com

রাঙ্গুনিয়ার পদুয়ায় বিনামূল্যে চোখের চিকিৎসা পেল আড়াইশ’মানুষ

সিভয়েস ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:১৮, ৯ মে ২০২২
রাঙ্গুনিয়ার পদুয়ায় বিনামূল্যে চোখের চিকিৎসা পেল আড়াইশ’মানুষ

রাঙ্গুনিয়ার পদুয়ায় খায়ের-জাহান ফাউন্ডেশনের বিনামূল্যে চক্ষু চিকিৎসা ও অপারেশনের জন্য ছানি রোগী বাছাই ক্যাম্পে বক্তব্য রাখছেন এরশাদ মাহমুদ

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলার পদুয়ায় খায়ের-জাহান ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে আয়োজিত ‘বিনামূল্যে চক্ষু চিকিৎসা ও অপারেশনের জন্য ছানি রোগী বাছাই ক্যাম্পে প্রায় আড়াইশ’ রোগীকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

শনিবার (৭ মে) সকালে পদুয়া ইউনিয়ন পরিষদের পুরাতন অফিস প্রাঙ্গণে এ চিকিৎসা শিবিরের আয়োজন করা হয়। এতে চিকিৎসা নেয়া আড়াইশ’ রোগীর মধ্যে বিনামূল্যে ৬০ জনকে দেওয়া হয়েছে চশমা। বিনামূল্যে ছানি অপারেশনের জন্য তালিকাভুক্ত করা হয়েছে ২২ জনকে। অনেক রোগীকে ভালো ডাক্তার আর হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে। বেশ কয়েকজনকে দেওয়া হয়েছে বিনামূল্যে ওষুধ। 

উক্ত আয়োজনে চক্ষু চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন লায়ন্স চক্ষু হাসপাতালের চক্ষু বিশেষজ্ঞ ও সার্জন ডা. সৌমেন তালুকদার, চক্ষু প্যারামেডিকস অরবিন্দ চৌধুরী, ক্যাম্প কো-অর্ডিনেটর জসিম উদ্দিন ও অ্যাসিস্ট্যান্ট সেলিম রেজা। 

এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে খায়ের-জাহান ফাউন্ডেশনের প্রধান সমন্বয়কারী, একুশে পত্রিকা সম্পাদক আজাদ তালুকদারের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন চ্যানেল আইয়ের পরিবর্তন নায়ক ক্যাটাগরিতে কৃষি অ্যাওয়ার্ড ও জাতীয় স্বর্ণপদকপ্রাপ্ত মৎস্য ও কৃষিখামারি এরশাদ মাহমুদ। 

অনুষ্ঠানে এরশাদ মাহমুদ বলেন, ‘চোখের সমস্যা তো আছেই। তারওপর আমাদের এখানকার মানুষ সবচেয়ে বেশি কষ্ট পায় জন্মের সময়। জন্মের সময় এখানকার ধাত্রী যারা আছেন তারা ভালোমতো ট্রেনিংপ্রাপ্ত নয় বিধায় প্রসবের সময় অনেক শিশু ও মায়ের মৃত্যু হয়। এখানে যারা আছেন সবাই তো হাসপাতালে নিতে পারে না; টাকা-পয়সার স্বল্পতা আছে। আমি খায়ের-জাহান ফাউন্ডেশনের কাছে আশা করবো, আমাদের এখানে গ্রাম্য ধাত্রীদের জন্য একটা ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থা করার জন্য, যাতে জন্মের সময় শিশুর মৃত্যুহার কমে যায়।’ 

তিনি আরও বলেন, ‘একুশে পত্রিকার সম্পাদক আজাদ তালুকদার সাহেবের এখানে জন্ম, এখানে বেড়ে ওঠা; তার আশপাশে অনেকজন আছেন, অনেক বিত্তশালী ব্যক্তি আছেন, অনেক শিল্পপতি আছেন, কিন্তু মানবকল্যাণে তাদেরকে তেমন এগিয়ে আসতে দেখা যায় না। অথচ আজাদ তালুকদারের এত বেশি টাকা-পয়সা নেই, কিন্তু তার মন আছে, মানুষের জন্য কিছু করার। আজাদ তালুকদারের এসব কার্যক্রম দেখে আমি মনে করি আপনারাও এগিয়ে আসবেন। এগিয়ে আসুন, আপনাদেরকে মানুষ সাধুবাদ জানাবে।’

সভাপতির বক্তব্যে পদুয়া ইউনিয়ন পরিষদের তিনবারের চেয়ারম্যান, বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আবু জাফর বলেন, ‘যার চক্ষু নেই তার কাছে এই পৃথিবী অসাড়-অপূর্ণ, তার কোনো কিছুই ভালো লাগবে না। আমাদের এই মূল্যবান সম্পদের সু-চিকিৎসার জন্য খায়ের-জাহান ফাউন্ডেশনের এ আয়োজনের জন্য আমি ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’

তিনি বলেন, ‘মরহুম খায়ের আহমেদ তালুকদার আমার খুব প্রিয় মানুষ ছিলেন। তিনি একজন দেশদরদি, জনগণের সেবক ছিলেন। ১৯৪৮ সালে যখন তিনি ম্যাট্রিক পাশ করেছেন তখন আমার জন্মও হয়নি। তিনি যদি সে সময় থেকে চাকরি করতেন তাহলে অনেক উচ্চ পর্যায়ে যেতে পারতেন, সচিব পর্যন্ত হতে পারতেন। কিন্তু তিনি সবকিছু ত্যাগ করে দেশ-মানবতার সেবার জন্য কাজ করে গেছেন। একসময় তাকে চেয়ারম্যান হওয়ার জন্য প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল, ওনি তা প্রত্যাখান করেছেন। আমি দেখেছি, যতক্ষণ ওনার পকেটে টাকা ছিল ততক্ষণ কোনো মানুষ টাকা খরচ করতে পারেনি। এমন একজন মানুষের নামে ফাউন্ডেশন করায় আমি আজাদ তালুকদারকে ধন্যবাদ জানাই।’

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন নবগঠিত দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানার ওসি ওবাইদুল ইসলাম, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. বদিউজ্জমান বদি, পদুয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বিজন দাশ গুপ্ত ও শাহ আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহাদত হোসেন তালুকদার, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. অঞ্জন বিশ্বাস, সদস্য মো. সেলিম, স্পোর্টিভ কোকোলোকোর কর্ণধার সাজিদুল হক।

ক্যাস্পিংয়ে সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন খায়ের-জাহান ফাউন্ডেশনের সমন্বয়কারী, সাবেক সেনাসদস্য তরুণ সমাজসেবক মো. তারেক সোহেল। 

উপস্থিত ছিলেন পদুয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা আবদুল মালেক, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মাওলানা নুরুল আজিম, রাঙ্গুনিয়া উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মো. জাহেদুল ইসলাম, ২ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি দিদার হোসেন পাইলট, সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি শাখাওয়াত হোসেন, পদুয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মো. জামাল হোসেন, দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া ডিগ্রি কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. আরফাত হোসেন, পদুয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি নাসিম উদ্দিন, সুখবিলাস শেখ রাসেল স্মৃতি সংসদের সভাপতি প্রথম বিভাগ লীগের সাবেক ক্রিকেটার আতিকুল্লাহ ইয়াসিন, পদুয়া ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের সভাপতি সোহেল আজাদ, সঞ্জয় দেব ভুট্টো, শিশু সংগঠক আরিফ উদ্দিন আল মামুন, ছাত্রলীগ নেতা বাপ্পারাজ বাপ্পু, ২ নং ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মো. করিম, সাধারণ সম্পাদক রুবেল তালুকদার ও ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সদস্য মো. সালাহ উদ্দিন প্রমুখ।

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়