Cvoice24.com

সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করতে সংখ্যালঘুদের বাড়িতে আগুন দেয়া হচ্ছে : দীপংকর তালুকদার

রাঙামাটি প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৫:২৮, ১৯ আগস্ট ২০২২
সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করতে সংখ্যালঘুদের বাড়িতে আগুন দেয়া হচ্ছে : দীপংকর তালুকদার

মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্বলন করছেন দীপংকর তালুকদার এমপি

খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি দীপংকর তালুকদার এমপি বলেছেন, বাংলাদেশ যেন আবারও অস্থিরতার মধ্যে পড়ে, দেশে যেন সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি না থাকে এ জন্য বার বারই সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের বাড়ি-ঘরে আগুন দেয়া হচ্ছে, নির্যাতন করা হচ্ছে। তবে এসব অপশক্তিকারীদের গ্রেপ্তার করে বিচারের মুখোমুখি করা হচ্ছে। 

শুক্রবার (১৯ আগস্ট) ভগবান শ্রীকৃষ্ণের ৫২৪৮তম জন্মতিথি জন্মাষ্টমী উপলক্ষে রাঙামাটি শাহ বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সনাতনী সমাজের ব্যানারে রাঙামাটিতে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এসময় দীপংকর তালুকদার বলেন, ইস্যু তৈরির জন্য সবচেয়ে সহজ বিষয় সাম্প্রদায়িক সংর্ঘষ ঘটানো। আর সেটা যাতে সহজে ঘটাতে না পারে সে জন্য সকলকে সজাগ থাকতে হবে। আমাদের প্রধানমন্ত্রী সব সময় বলেন ‘ধর্ম যার যার উৎসব সবার’। তিনি সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে সব সময় অবস্থান নেন। সরকার সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় কাজ করে চলেছে। এসময় দেশের বিভিন্ন স্থানে সাম্প্রদায়িক হামলার নিন্দা জানান তিনি।

জন্মাষ্টমী উদযাপন সমন্বয় কমিটির সভাপতি বাবলা মিত্রের সভাপতিত্বে অতিথি ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা, রাঙামাটির অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক এস.এম. ফেরদৌস ইসলাম, রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য বিপুল ত্রিপুরা, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ রাঙামাটির সভাপতি অমর কুমার দে, রাঙামাটি জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক স্বপন কান্তি মহাজন, রাঙামাটি জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদের সভাপতি স্মৃতি বিকাশ ত্রিপুরা, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ রাঙামাটির সভাপতি দীপন ঘোষ, হিন্দু মহাজোট রাঙামাটির সভাপতি সুজন দে, সনাতন যুব পরিষদ রাঙামাটির সভাপতি অজিত শীল, গীতা শিক্ষা সমন্বয় কমিটির সভাপতি উত্তম দত্ত প্রমুখ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন রাঙামাটি জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আশীষ দাশ গুপ্ত।

আলোচনা সভায় নিখিল কুমার চাকমা বলেন, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন তিনি কখনো উগ্র সাম্প্রদায়িকতাকে প্রশয় দেবেন না। এই বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িকতার কোন স্থান নেই। তিনি পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের পক্ষ থেকে সকল সম্প্রদায়ের উপসনালয়ের উন্নয়নে যেসব প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে তা সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করা হবে বলে ঘোষণা দেন।

আলোচনা সভা শেষে একটি মঙ্গল শোভাযাত্রা শাহ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ থেকে শুরু হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক হয়ে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে গিয়ে শেষ হয়। শোভাযাত্রায় বাহারি সাজে শহরের বিভিন্ন সংগঠন আলাদা আলাদা ব্যানারে যোগ দেন।

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়