Cvoice24.com
corona-awareness

কোরবানির ঈদের আগে বেতন-বোনাস পাওয়া নিয়ে শঙ্কায় রেল কর্মচারীরা

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৯:৩৬, ৯ জুন ২০২১
কোরবানির ঈদের আগে বেতন-বোনাস পাওয়া নিয়ে শঙ্কায় রেল কর্মচারীরা

গেল ঈদ উল ফিতরে কেউ পেয়েছেন বেতন আবার কেউ পাননি। কোনও বিভাগে বেতন ছাড়াই দেওয়া হয়েছে শুধুমাত্র ঈদ বোনাস! শেষবারে  ঈদ উল ফিতরে রেলওয়েতে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের এভাবেই মলিন হয়েছে ঈদ আনন্দ। এরপর রেলওয়ের শ্রমিক লীগসহ ভুক্তভোগীরা দফায় দফায় বৈঠকে বসেছেন রেলওয়ে মহাব্যবস্থাপকের সঙ্গে। বেতন-বোনাসের দাবিতে হয়েছে মিছিল-মিটিংও। তবে সব শেষে নতুন এবার ঈদ উল আযহার আগে বেতন ও পেনশন না পাওয়ার শঙ্কায় রয়েছেন কর্মরতরা।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বেশ কয়েক মাস বেতন ও অবসরকালীন পেনশন না পাওয়ায় চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে কর্মরতদের মাঝে। এ নিয়ে হতাশ বিভিন্ন বিভাগের প্রধানরাও। অতিদ্রুত এ সমস্যার সমাধান না হলে পরিস্তিতি আরও ঘোলাটে হতে পারে। রেলওয়ের অনেক বিভাগের বেতন ও অবসরকালীন পেনশনের সৃষ্ট  সমস্যা সমাধানে রেলওয়ের দায়িত্বশীল বিভাগের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তুলছেন ভুক্তভোগী ও বিভিন্ন পেশাজীবি সংগঠনগুলো।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক বিভাগীয় প্রধান সিভয়েসকে বলেন, ‘আমার অধীনে প্রায় চারশ লোক কাজ করছে। তৃতীয়-চতুর্থ শ্রেণীর যারা কাজ করছেন তারা আর কত টাকা বেতন পান। লোকবল সংকট তো আছেই। এ অবস্থায় বেশ কয়েক দফা ভূক্তভোগীরা আমাকে বলার পর আমি অর্থ ও হিসাব শাখায় যোগাযোগ করেছি। তারা কখনও বলছেন বাজেট নেই। আবার কখনও বলছেন আমরা তদবির করছি। এভাবে ট্রেন চলবে কিভাবে?’

রেলওয়ে কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, গেল ঈদে রেলওয়ে নিরাপত্তাবাহিনীসহ বিভিন্ন বিভাগে দেওয়া হয়েছিল শুধুমাত্র ঈদ বোনাসের টাকা। ওই ঈদের পর বেশ কিছু বিভাগে বেতন পরিশোধ করা হয়েছে। কিন্তু পেনশনের টাকা  না পাওয়ায় চরম হতাশা সৃষ্টি হয়েছে অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে।

রেলওয়ে শ্রমিক লীগের নেতারা দাবি করছেন, প্রকৌশলী বিভাগ, সিজিপিওযাই, ডিএমও বিভাগে কর্মরত ও অবসরপ্রাপ্তরা এ জটিলতা পোহাচ্ছেন। কারণ হিসেবে আইবাস প্লাস প্লাস সিস্টেম ও কিছু ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ব্যাংক এর অসহযোগিতার কথা উল্লেখ করেই দায় সারছেন বলে অভিযোগ তাদের। তবে রেলওয়ের দায়িত্বশীলরা বলছেন বিষয়টি সামাধানে কাজ করছেন তারা।

পূর্বাঞ্চল রেলওয়ে মহাব্যবস্থাপক (জিএম) মো. জাহাঙ্গীর হোসেন সিভয়েসকে বলেন, ‘এ সংকট সমাধানে আমরা আলাপ আলোচনা করছি। আশা করছি দ্রুত সমাধান আসবে।’ 

তবে সিভয়েসের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘বিষয়টি দেখভাল করছে আর্থিক বিভাগ। তারা সুনির্দিষ্টভাবে সমস্যা সৃষ্টির কারণ সম্পর্কে বলতে পারবেন।’

এদিকে পূর্বাঞ্চল রেলওয়ে মহাব্যবস্থাপকের সাথে এ সংক্রান্ত বিষয়ে দেখা করেছেন রেলওয়ে শ্রমিক সংগঠনের দুই নেতা সিরাজুল ইসলাম ও লোকমান হোসেন। এ অবস্থার জন্য দুঃখ প্রকাশ করে অতি দ্রুত সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দেয়া হয় তাদের।

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়