Cvoice24.com

অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে মেঘনা এক্সপ্রেসের যাত্রী হারালেন বেতন-বোনাসের টাকা

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২০:৫৯, ২৭ এপ্রিল ২০২২
অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে মেঘনা এক্সপ্রেসের যাত্রী হারালেন বেতন-বোনাসের টাকা

মেঘনা এক্সপ্রেস। -ফাইল ছবি

চলন্ত ট্রেনে এক যাত্রীকে অজ্ঞান করে বেতন-বোনাসের ৫৫ হাজার টাকা লুট করার অভিযোগে অজ্ঞানপার্টির এক সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এই চক্রের সদস্যরা ঈদের ঘরমুখো যাত্রীদের টার্গেট করে ইফতারি, খাবার স্যালাইনে, শরবতে ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে সবকিছু লুট করছে। চট্টগ্রাম রেলস্টেশনকে কেন্দ্র করে এ দলের একাধিক সদস্য থাকার বিষয়টি সন্দেহ হলেও এখনও পর্যন্ত মো. রিয়াদুজ্জামান নামের এক সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এসময় তার কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় রিভোটিল ও সারডিন নামের ১৬টি ঘুমের ওষুধ।

এর আগে, গত ২১ এপ্রিল চাঁদপুরগামী মেঘনা এক্সপ্রেস ট্রেনের একজন যাত্রীর কাছ থেকে ঈদের বেতন বোনাসের ৫৫ হাজার টাকা লুট করে গ্রেপ্তার রিয়াদুজ্জামান।

এদিকে মঙ্গলবার (২১ এপ্রিল) অজ্ঞাত পার্টির খপ্পরে পড়া যাত্রীর নাম মো. তৌহিদুর রহমান। তিনি জানান, সেদিন চাঁদপুর যাওয়ার উদ্দেশে চট্টগ্রাম রেলস্টেশনে আসার পর জানতে পারেন কাউন্টারে টিকিট শেষ। পরে এক লোক (অজ্ঞান পার্টির সদস্য রিয়াদুজ্জামান) এসে তাকে বলেন তার কাছে দু’টি টিকিট আছে, তিনিও চাঁদপুর যাচ্ছেন। কিন্তু একটি টিকিট লাগছে না। পরে একটি টিকিট তৌহিদুরের কাছে বিক্রি করে দেন। কিন্তু যাত্রাপথে ইফতারের পরেই তাকে খাবার স্যালাইন খাইয়ে বেতন বোনাসের প্রায় ৫৫ হাজার টাকা লুট করে রিয়াদুজ্জামান। ওই যাত্রীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে তাকে ধরতে চট্টগ্রাম রেলস্টেশনে জাল বিছায় রেলওয়ে পুলিশ। শেষ পর্যন্ত মঙ্গলবার (২৬ এপ্রিল) রাত ১২টার দিকে রিয়াদুজ্জামানকে আটক করতে সক্ষম হয় পুলিশ। বুধবার (২৭ এপ্রিল) আদালতের নির্দেশে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ জানায়, গ্রেপ্তার রিয়াদুজ্জামান পেশাদার অজ্ঞান পার্টির সদস্য। গত ২১ এপ্রিল মেঘনা এক্সপ্রেস ট্রেনে ঘটনা ঘটিয়ে ২৬ এপ্রিল রাতে ফের চট্টগ্রাম রেলস্টেশনে যাত্রীদের হাতিয়ে দিতে জাল পেতেছেন তিনি। এর আগেই ঘটনার দিনের সিসিটিভি ফুটেজ চেক করে তাকে শনাক্ত করতে সক্ষম হয় পুলিশ। পরে ২৬ এপ্রিল রাতে চট্টগ্রাম রেলস্টেশনে ফের পা রাখতেই পুলিশের জালে আটকা পরে রিয়াদুজ্জামান। তার ক্রাইম ডাটা ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (সিডিএমএস)-এ দেখা গেছে নরসিংদীতেও এর আগে একই ধরনের ঘটনা ঘটিয়েছে রিয়াদুজ্জামান। নরসিংদী থানায় এ সংক্রান্ত তার একটি মামলা আছে।

চট্টগ্রাম রেলওয়ে পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নাজীম উদ্দিন জানান, চট্টগ্রাম রেলস্টেশনে বিশেষ নজরদারী অব্যাহত রেখে অজ্ঞান পার্টির এ সদস্যকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছি আমরা। বুধবার সকালে তাকে আদালতে পাঠানো হলে, আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

২০২১ সালের মার্চে চলন্ত ট্রেনে কলার সঙ্গে ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক মাছুদুরের কাছ থেকে সবকিছু লুট করে নেয়। পরে তার অভিযোগের প্রেক্ষিতে তখনও চট্টগ্রাম রেলস্টেশন থেকে অজ্ঞান পার্টির এক সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়