Cvoice24.com

চট্টগ্রামে জলাবদ্ধতার কারণ ‘খুঁজবে’ চার সদস্যের কমিটি

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৮:৫৮, ২২ জুন ২০২২
চট্টগ্রামে জলাবদ্ধতার কারণ ‘খুঁজবে’ চার সদস্যের কমিটি

টানা বৃষ্টিতে নগরের নিম্নাঞ্চলে জলজটের কারণ খতিয়ে দেখতে চার সদস্যের উচ্চ পর্যায়ের কমিটি গঠন করা হয়েছে। জলাবদ্ধতা নিরসনে নিয়োজিত সেবা সংস্থার কর্মকর্তাদের নিয়ে গঠিত কমিটিকে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে সরেজমিনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষ করে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বুধবার (২২ জুন) বিকেলে চসিকের অস্থায়ী কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে জলাবদ্ধতা প্রকোপ নিরসনে করণীয় নির্ধারণ সংক্রান্ত বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রায় দেড় ঘণ্টা ব্যাপী চলা বিশেষ সভা শেষে মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী এ তথ্য জানান।

সিডিএর প্রধান প্রকৌশলী কাজী হাসান বিন শামসকে আহ্বায়ক করে গঠিত কমিটিতে সদস্য সচিব করা হয়েছে চসিকের প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলামকে। সদস্য হিসেবে রাখা হয়েছে—জলাবদ্ধতার জন্য নেওয়া সিডিএর মেগা প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক সেনাবাহিনীর ৩৪ ইঞ্জিনিয়ারিং কনস্ট্রাকশনের লেফটেনেন্ট কর্নেল শাহ আলী ও চসিকের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি মোবারক আলীকে।

কমিটি গঠনের বিষয়টি জানিয়ে চসিক মেয়র বলেন, জলাবদ্ধতার প্রকল্পের নিরসনের কাজে কিছু খালে বাঁধ রয়েছে। কিন্তু জলাবদ্ধতার ভোগান্তিতে মানুষের ধৈর্য্যের সীমা রয়েছে। অনেক আলাপ- আলোচনা হয়েছে। মেগা প্রকল্পের কাজ করতে গেলে কিছুটা ভোগান্তি পোহাতে হবেই। জলাবদ্ধতার পর খালের বাঁধ অপসারণের পরও কেনো পানি জমে থাকছে এর কারণ খুঁজে বের করতে কমিটি গঠন করেছি। বৃষ্টিতে পানি উঠবে না এটা বলছি না, পানি উঠবেই। কিন্তু কীভাবে দ্রুত নিস্কাশনের ব্যবস্থা করা যায় সে বিষয়ে আমরা সবাই পরিকল্পনা নির্ধারণ করেছি। কোন কোন এলাকায় প্রতিবন্ধকতার কারণে পানি জমছে, কোথায় বাঁধ দেওয়া হয়েছে এসব বিষয়ে কমিটি সরেজমিনে পরিদর্শনে যাবে। পরিদর্শন শেষে  জলাবদ্ধতা নিরসনের বিষয়ে প্রদক্ষেপ গ্রহণ করবে।

গেল ৬ এপ্রিল চসিকের সমন্বয় সভায় চলতি বছরে জলাদ্ধতার নিরসনে মেগা প্রকল্পের কাছ থেকে ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ চান মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী। প্রকল্প থেকে অর্থ ছাড়ের জন্য তিনি সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের হস্তক্ষেপ চেয়েছেন।

অর্থ ছাড়ের বিষয়ে সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে জানতে চাওয়া হলে মেয়র বলেন, ১০০ কোটি কিংবা ১০ কোটি টাকা ব্যাপার না। কিন্তু এ বছরে জনগণের ভোগান্তির কমিয়ে আনতে আমরা কাজ করে যাচ্ছি।

এদিকে বিশেষ সভায় সভায় সিডিএ চেয়ারম্যান জহিরুল আলম দোভাষ, জলাবদ্ধতার জন্য নেওয়া সিডিএর মেগা প্রকল্পের পরিচালক দায়িত্ব পালন করা সেনাবাহিনীর ৩৪ ইঞ্জিনিয়ারিং কনস্ট্রাকশনের  লেফটেনেন্ট কর্নেল  শাহ আলী, সিএমপি কমিশনার সালেহ মোহাম্মদ তানভীরসহ বিভিন্ন সেবা সংস্থার প্রতিনিধারা উপস্থিত ছিলেন।

সিভয়েস/আরকে

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়