Cvoice24.com

চসিকের প্রধান প্রকৌশলীর দায়িত্ব পেলেন শাহীন উল ইসলাম

সিভয়েস২৪ প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ০০:৩৪, ২৮ মার্চ ২০২৪
চসিকের প্রধান প্রকৌশলীর দায়িত্ব পেলেন শাহীন উল ইসলাম

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম অবসরোত্তর ছুটিতে যাওয়ায় ভারপ্রাপ্ত প্রধান প্রকৌশলী হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মোহাম্মদ শাহীন উল ইসলাম। গত ২৫ মার্চ চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মুহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে এ তথ্য জানা যায়। তবে বুধবার (২৭ মার্চ) বিষয়টি জানাজানি হয়। 

ওই অফিস আদেশে বলা হয়, পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত প্রকৌশল বিভাগের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মোঃ শাহীন উল ইসলামকে কর্তৃপক্ষের অনুমোদন ক্রমে স্ববেতনে প্রধান প্রকৌশলীর ভারপ্রাপ্ত পদে দায়িত্ব পালনের নির্দেশ প্রদান করা হলো। এই আদেশ কর্পোরেশনের কাজের স্বার্থে জারি করা হলো এবং অবিলম্বে কার্যকর হবে। 

এদিকে, প্রধান প্রকৌশলী পদে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর লেফটেন্যান্ট কর্নেল পদমর্যাদার একজন কর্মকর্তাকে প্রেষণে নিয়োগের জন্য গত ২১ মার্চ স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে চিঠি দেন চসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মুহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম। 

ওই চিঠিতে বলা হয় — সিটি কর্পোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী ১৯ মার্চ অবসরে যাওয়ায় গুরুত্বপূর্ণ পদটি খালি রয়েছে। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনে প্রধান প্রকৌশলীর গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালনের মত অভিজ্ঞ কোনো প্রকৌশলী না থাকায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর লেফটেন্যান্ট কর্নেল পদমর্যাদার একজন কর্মকর্তাকে জরুরী ভিত্তিতে প্রধান প্রকৌশলী হিসাবে প্রেষণে নিয়োগ দেওয়ার কথা উল্লেখ করা হয়।

এছাড়াও প্রধান প্রকৌশলীর পদ খালি থাকলে চসিকের চলমান আড়াই হাজার কোটি টাকা এবং ১ হাজার ৩৬২ কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্পসহ সকল প্রকল্পের কাজে ব্যাঘাত সৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনার কথাও উল্লেখ করা হয় ওই চিঠিতে। তবে এর আগে একই বিষয়ে গত বছরের ১৯ নভেম্বর মন্ত্রণালয়ে ডিও লেটার (আধা সরকারি পত্র) দেন চসিক মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী। প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলামের বদলি আদেশের পর পরই মন্ত্রণালয়ে ডিও লেটার পাঠান চসিক মেয়র। 

প্রসঙ্গত, অবসরে যাওয়ার চার মাস আগে গত বছরের ১৪ নভেম্বর চসিকের প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলামকে বদলি করা হয় বরিশাল সিটি কর্পোরেশনে। তাঁর জায়গায় পদায়ন করা হয় পাবনা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডি) তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো. নবীউল ইসলামকে। এরপরই বেঁকে বসেন রফিকুল ইসলাম। মন্ত্রণালয়ের আদেশ চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট করেছেন প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম। আদালতের ‘স্টে অর্ডার’ (স্থগিতাদেশ) নিয়ে নিয়মিত অফিসও করেছেন এ প্রকৌশলী। আবার একইভাবে নতুন পদায়ন হওয়া প্রধান প্রকৌশলী নবীউল ইসলামও হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়ে ‘স্ট্যাটাস কো’(স্থিতিবস্থা) নিয়ে আসেন। পরবর্তীতে তিন সপ্তাহ পর সুপ্রিম কোর্টের আদেশের পক্ষে সিদ্ধান্ত নেন মন্ত্রণালয়। কিন্তু মন্ত্রণালয়ের সেই সিদ্ধান্তকেও আমলে নেননি এই কর্মকর্তা। উল্টো মন্ত্রণালয়ের আদেশকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে অবসরের (২০ মার্চ) শেষদিন পর্যন্ত চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনেই ছিলেন প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম।

সর্বশেষ