Cvoice24.com

মেট্রোরেল প্রকল্প : চসিককে পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের সমীক্ষা রিপোর্ট 

প্রকাশিত: ০৯:০৭, ২০ জুন ২০১৯
মেট্রোরেল প্রকল্প : চসিককে পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের সমীক্ষা রিপোর্ট 

ফাইল ছবি

নগরীর কালুরঘাট সেতু থেকে বিমানবন্দর পর্যন্ত সড়কে মেট্রোরেল ট্রানজিট (এমআরটি) প্রকল্প বাস্তবায়নে প্রতিবন্ধকতা চিহ্নিত করে রিপোর্ট দিয়েছে পরামর্শক প্রতিষ্ঠান। চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনকে এ ব্যাপারে কয়েকটি  প্রস্তাব দিয়েছে পরামর্শক প্রতিষ্ঠান 'বাসস্থান ইঞ্জিনিয়ার্স অ্যান্ড কনসালট্যান্ট লিমিটেড' । 

চসিক সূত্রে জানা যায়, ওই পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের  প্রতিবেদনকৃত প্রথম প্রস্তাব হচ্ছে- লালখান বাজার থেকে বিমানবন্দর পর্যন্ত নির্মাণাধীন ফ্লাইওভারের কাজ স্থগিত করা এবং সড়কটি মেট্রোরেল প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য উন্মুক্ত রাখা। দ্বিতীয় প্রস্তাব- নির্মাণাধীন ফ্লাইওভারের ডিজাইনে মেট্রোরেল ট্রানজিট প্রকল্পের ‘প্রভিশন’ সম্পৃক্ত করা। তবে পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের প্রস্তাব পর্যবেক্ষণ করে করণীয় নির্ধারণে দ্রুত আলোচনায় বসার কথা জানিয়েছেন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। 

এ ব্যাপারে মেয়র বলেন, লালখান বাজার থেকে বিমানবন্দর পর্যন্ত এলিভেটেড এক্সপ্রেস ওয়ে নির্মাণের কাজ স্থগিত করার বিষয়টা সম্ভব নাও হতে পারে। এটি চলমান কাজ। তাছাড়া বহদ্দারহাট থেকে লালখান বাজার পর্যন্ত ফ্লাইওভার নির্মাণ সম্পন্ন হয়ে গেছে। 

তবে লালখান বাজার থেকে বিমানবন্দর পর্যন্ত  এলিভেটেড এক্সপ্রেস ওয়ের ডিজাইনে মেট্রোরেল ট্রানজিটের প্রভিশন সংযোজনের ব্যাপারে সিডিএ'র সাথে আলোচনা করব।  আলোচনার মাধ্যমে নগর উন্নয়নে করনীয় নির্ধারণে পরিকল্পনা নেয়া হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, কালুরঘাট থেকে  বিমানবন্দর পর্যন্ত মেট্রোরেল চালুর ‘প্রি-ফিজিবিলিটি’ যাচাইয়ে চলতি বছর জানুয়ারিতে ‘বাসস্থান ইঞ্জিনিয়ার্স অ্যান্ড কনসালটেন্ট লিমিটেড’ নামে পরামর্শক প্রতিষ্ঠানকে কার্যাদেশ দেয় চসিক। কার্যাদেশ পেয়ে মেট্রোরেল নির্মাণের সম্ভাব্যতা নিয়ে প্রতিষ্ঠানটি চার পর্যায়ে  পর্যবেক্ষণ ও সমীক্ষা চালায়। প্রতিষ্ঠানটি অলংকার থেকে নতুন ব্রিজ শহীদ বশিরুজ্জামান চত্বর, অক্সিজেন থেকে কোতোয়ালি মোড়,কালুরঘাট থেকে জিইসি মোড় এবং জিইসি মোড় থেকে বিমানবন্দর পর্যন্ত মেট্রোরেল নির্মাণের সম্ভাব্যতা নিয়ে সমীক্ষা পরিচালনা করে। 

এদিকে সিটি কর্পোরেশন সূত্রে জানা গেছে, গত ২৩ জানুয়ারি চট্টগ্রামে মেট্রোরেল নির্মাণ, পরিচালনা, রক্ষণাবেক্ষণ ও নিয়ন্ত্রণ বিষয়ে চসিকের মতামত চেয়েছিল রেলওয়ে। এ বিষয়ে একমত পোষণ করেছিল চসিক।

সিভয়েস/আই

সিভয়েস প্রতিবেদক

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়