Cvoice24.com

প্রধানমন্ত্রীকে দেখতে ঘর ছেড়ে নারীরাও

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১২:৫০, ৪ ডিসেম্বর ২০২২
প্রধানমন্ত্রীকে দেখতে ঘর ছেড়ে নারীরাও

দীর্ঘ ১০ বছর পর জনসভায় যোগ দিতে চট্টগ্রামে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আর জনসভায় যোগ দিতে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা পলোগ্রাউন্ডমুখী। জনসভায় যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রীকে এক নজর দেখতে ঘর ছেড়ে বেরিয়েছেন নারীরাও। আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনের নারীরা ছাড়াও যোগ দিয়েছেন বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ।

চট্টগ্রাম নগরের আগ্রাবাদ বড়পোল এলাকার বাসিন্দা উম্মে হাবিবা। প্রধানমন্ত্রীকে কাছ থেকে দেখেন নি। জনসভায় প্রধানমন্ত্রী আসার খবর পাওয়ার পর থেকে অধীর আগ্রহে ছিলেন স্বশরীরে মাঠে গিয়ে বক্তব্য শুনবেন। তাই ৩৫ দিনের অপেক্ষার প্রহর শেষে সকাল হতেই ঘরের সকল কাজ রেখে চলে আসেন প্রধানমন্ত্রীর জনসভায়। 

তিনি বলেন, ‘আজ জীবনের প্রথম নেত্রী শেখ হাসিনাকে দেখবো। তাই ঘরের সকল কাজকর্ম রেখে চলে এসেছি পলোগ্রাউন্ড মাঠে। ওনার পাশাপাশি গিয়ে হয়তো কাছ থেকে দেখতে পারবো না। তবে ওনার এতো বড় জনসভায় স্বশরীরে উপস্থিত হয়ে বক্তব্য শুনতে পারবো; এটাই অনেক বড়।’

এদিকে শুধু তিনি নন; পুরুষদের পাশাপাশি জনসভায় উপস্থিত হতে গাড়িতে, পায়ে হেঁটে সমাবেশস্থলে আসছেন হাজার হাজার নারী। তারাও পুরুষদের চেয়ে পিছিয়ে নেই। ঘরের দৈনন্দিন কাজকে ছুটি দিয়ে কাঠফাটা রোদে প্রতীক্ষার প্রহর গুনছেন তারা। প্রধানমন্ত্রী জনসভায় প্রবেশ করবেন আর তারা নেত্রীকে স্বাগতম জানাবেন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, একদল নানান বয়সের মেয়েরা একই রঙের শাড়ি পরে এগিয়ে যাচ্ছে পলোগ্রাউন্ড মাঠের দিকে। তাদের হাসিমাখা মুখে উচ্চারিত হচ্ছে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন স্লোগান।

সংরক্ষিত ৮ নম্বর ওয়ার্ডের মহিলা কাউন্সিলর নীলু নাগ বলেন, ‘১০ বছর পর জননেত্রী শেখ হাসিনা ভাষণ দিবেন পলোগ্রাউন্ড মাঠে। আমাদের নেত্রী যেহেতু নারী; সেক্ষেত্রে চট্টগ্রামে নানার বয়সী মেয়ে এবং নারীদের উৎসাহের পরিধি বাড়তি থাকায় স্বাভাবিক। আমরা বাংলাদেশকে দেখিয়ে দিতে চাই; চট্টগ্রামের নারীরা কতটুকু জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ভালোবাসে।’

এদিকে প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে সকাল থেকে চট্টগ্রামের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা নেতাকর্মীরা নগরের টাইগারপাস মোড়ে একত্রিত হচ্ছেন। প্ল্যাকার্ড, পতাকা, ব্যানার, সংগঠনের টি-শার্ট পরে ‘জয় বাংলা’ স্লোগানে মিছিল করছেন নেতারা। ঢাকঢোল আর বর্ণিল পোশাকে উৎসবের আমেজ তৈরি হয়েছে টাইগারপাস মোড়। 

একইসঙ্গে জনসভাকে কেন্দ্র করে প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তা বেষ্টনি তৈরি করা হয়েছে। পুলিশ, র‌্যাবসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিপুলসংখ্যক সদস্য দায়িত্ব পালন করছেন। বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে বসানো হয়েছে চেকপোস্ট। জনসভাস্থলসহ পুরো চার কিলোমিটার এলাকা সিসিটিভির আওতায় আনা হয়েছে। বসানো হয়েছে বড় পর্দার মনিটর। তিন শতাধিক মাইকে প্রচার হচ্ছে জনসভার কার্যক্রম।

Nagad

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়