Cvoice24.com

চবিতে ৫ মাসেও হয়নি সিন্ডিকেট: সভা চেয়ে চার সদস্যের চিঠি 

চবি প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২০:৪১, ১০ আগস্ট ২০২২
চবিতে ৫ মাসেও হয়নি সিন্ডিকেট: সভা চেয়ে চার সদস্যের চিঠি 

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম সিন্ডিকেটের সাধারণ সভা ৫ মাসেও হয়নি। নিয়মানুযায়ী তিন মাস পর পর সিন্ডিকেটের সাধারণ সভা করার কথা। এবার সভা চেয়ে সিন্ডিকেট সভাপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতারের নিকট চিঠি দিয়েছে চার সদস্য। বুধবার (১০ আগস্ট) এ চিঠি দেয়।

ওই চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় আইন, ১৯৭৩ এর ধারা ২৬(১) অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্বাহী পর্ষদ হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন কর্মকাণ্ড, বিষয়াদি ও সম্পত্তির সাধারণ ব্যবস্থাপনা ও তদারকির দায়িত্ব বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেটের। বিগত ৫ মাসে সিন্ডিকেটের কোন সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়নি। আমাদের জানামতে, বিশ্ববিদ্যালয়ের অংশীজনদের বিভিন্ন ইস্যুসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা/সিদ্ধান্ত প্রয়োজন।

চিঠিতে স্বাক্ষর করা চার সিন্ডিকেট সদস্য হলেন— প্রফেসর ড. মোহাম্মদ মহীবুল আজিজ, প্রফেসর ড. এ কে এম মাঈনুল হক মিয়াজী, প্রফেসর ড. মোহাম্মদ নাসিম হাসান ও প্রফেসর ড. কাজী এস এম খসরুল আলম কুদ্দুসী।

বিষয়টি নিশ্চিত করে প্রফেসর ড. এ কে এম মাঈনুল হক মিয়াজী সিভয়েসকে বলেন, ‘গত ৫ মাসে সিন্ডিকেটের সাধারণ সভা হয়নি। সাধারণত তিন মাস পর পর সিন্ডিকেটের সাধারণ সভা হয়। তাই আমরা চিঠি দিয়েছি একটি সাধারণ সভা করতে। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু রয়েছে যেগুলো আলোচনা করা দরকার।’

আরেক সদস্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ মহীবুল আজিজ বলেন, ‘আমি মেয়াদোত্তীর্ণ মেম্বার। ইফতেখার (সাবেক ভিসি) স্যারের সময় ও বর্তমান ভিসি ম্যামকেও সিন্ডিকেট নির্বাচন দিতে অনুরোধ জানিয়েছি। নতুন সিন্ডিকেট সদস্য আসুক এটা মন থেকে চাই।’

চিঠি দেওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা ম্যামের নিকট চিঠি দিয়েছি সাধারণ সভা করতে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সংশ্লিষ্ট সবকিছু সিন্ডিকেটে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মচারী, কর্মকর্তা, শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের অনেক বিষয় আছে যেগুলো আলোচনা করা খুবই প্রয়োজন’- যোগ করেন প্রফেসর মহীবুল আজিজ।

এ বিষয়ে জানতে চবি উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতারের মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন দিলেও যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়