Cvoice24.com

চট্টগ্রামে প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ ২৩ জনের বিরুদ্ধে যুবলীগ নেতার মামলা

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৯:৫২, ১০ আগস্ট ২০২২
চট্টগ্রামে প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ ২৩ জনের বিরুদ্ধে যুবলীগ নেতার মামলা

চট্টগ্রাম আদালত। ছবি: সিভয়েস

চট্টগ্রামে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট কারচুপির অভিযোগ এনে মামলা করেছেন নাসির উদ্দিন নামে যুবলীগের এক নেতা। তিনি হাটহাজারী উপজেলা যুবলীগের সদস্য। নবম ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ফরহাদাবাদ ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ছিলেন তিনি।

বুধবার চট্টগ্রামের প্রথম সিনিয়র সহকারী জজ ইছরাত জাহান নাসরিনের আদালতে এই মামলা করেন। 

মামলায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়াল,  স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সচিব মোহাম্মদ মেজবাহ্ উদ্দিন চৌধুরী,  নির্বাচন কমিশন সচিব হুমায়ুন কবির খোন্দকার, আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা হাসানুজ্জামান, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মো. মমিনুর রহমান, জেষ্ঠ্য জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আতাউর রহমান, হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শাহিদুল আলম, ফরহাদাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শওকত আলম শওকতসহ ২৩ জনকে বিবাদী করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বাদীর আইনজীবী হাসান আলী চৌধুরী সিভয়েসকে বলেন, ‘নবম ধাপে অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীর চেয়ে বেশি ভোট পাওয়া সত্ত্বেও নির্বাচন কর্মকর্তার অন্যায় আবদার না রাখায় ইভিএমের মাধ্যমে ভুল ফলাফল প্রদর্শন করে বাদীকে পরাজিত ঘোষণা করেছে। বাদী পুনঃনির্বাচন ও ভোট পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন করলেও তা গ্রাহ্য না করে ৮ জুলাই নৌকার প্রার্থীকে বিজয়ী করে গ্যাজেট প্রকাশ করে। অভিযোগ করেও কোনো প্রতিকার না পেয়ে বিবাদীদের বিরুদ্ধে এই মামলা করেছেন তিনি। আদালত মামলাটি গ্রহণ করেছে, তবে সন্ধ্যা পর্যন্ত কোনো আদেশ দেননি।’

প্রসঙ্গত, গত ১৫ জুন নবম ধাপে চট্টগ্রামের ৬টি উপজেলার ১৮টি ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে ৯ ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী, ৪ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী এবং ৫ ইউনিয়নে স্বতন্ত্র ও বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত প্রার্থীরা বিজয়ী হন। এর মধ্যে ফরহাদাবাদ ইউনিয়নে ৬ হাজার ১৯৮ ভোট পেয়ে নৌকা প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন শওকত আলম শওকত। বিদ্রোহী প্রার্থী নাসির উদ্দিন পান ৫ হাজার ৬৬৯ ভোট।

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়