Cvoice24.com

পানিপড়া খাইয়ে গৃহবধূকে ধর্ষণ করল কবিরাজ

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৮:৫৪, ২৫ জানুয়ারি ২০২২
পানিপড়া খাইয়ে গৃহবধূকে ধর্ষণ করল কবিরাজ

কবিরাজ মোহাম্মদ আলী আটক।

মোহাম্মদ আলী (৬২) পেশায় কবিরাজ। মহিলাদের সমস্যার কথা শুনে পানিপড়া ও তাবিজ দেন। এক গৃহবধূ তার সমস্যার কথা ওই কবিরাজকে জানালে তিনি রোগীকে পানিপড়া খাওয়ার কথা বলে। তার কথার বিশ্বাসে পানিপড়া পান করে অজ্ঞান হয়ে গেলে ভিকটিমকে ধর্ষণ করে কবিরাজ। এ নিয়ে ভিকটিম অভিযোগ জানালে অভিযুক্ত কবিরাজকে আটক করে র‌্যাব।

সোমবার (২৪ জানুয়ারি) রাতে চট্টগ্রামের হাটহাজারী বাথুয়া (বড় বাড়ি) কবিরাজের বাড়ি থেকে তাকে আটক করা হয়।

আটক আলী হাটহাজারীর বাথুয়া কবিরাজ বাড়ির বাসিন্দা বলে জানা গেছে।

র‌্যাব জানায়, ইসলামি শরীয়া মোতাবেক বিবাহ করে ১৮ বছর সংসার জীবন অতিবাহিত করে আসছিল এক দম্পত্তি। তাদের সংসারে একটি মেয়েও আছে। কিন্তু স্বামী গত ৬ বছর ধরে মালেশিয়াতে থাকে। সন্তানের লেখাপড়া করানোর জন্য চট্টগ্রাম নগরের চান্দগাঁও একটি বাসা ভাড়া নিয়ে থাকতো মা ও মেয়ে। বাসা ভাড়া নেওয়ার ৩ মাস পরে ওই স্বামী তার স্ত্রীর (ভিকটিম) সঙ্গে কোনো প্রকার যোগাযোগ করেনি। এছাড়া মেয়ের পড়াশুনা ও সংসারের কোনো খরচ দেয়নি। স্বামী কেন তার সঙ্গে এমন আচরণ করছে তাতে স্ত্রী অনেক চিন্তিত হয়ে পড়ে। সে তার প্রতিবেশীদের সহিত বিষয়টি আলোচনা করলে তার প্রতিবেশী বৈদ্য, কবিরাজের কাছে যাওয়ার পরামর্শ দেয়। 

পরে তারা কবিরাজের সঙ্গে তিন দফায় দেখা করে পানিপড়া ও তাবিজ নেয়। তখন কবিরাজকে ১৫ হাজার টাকা পরিশোধ করে ভিকটিম। কিন্তু কবিরাজের পানিপড়া ও তাবিজে কোনো কাজ না হয়ার কারণে কবিরাজের বাসায় যায় স্ত্রী। এসময় কবিরাজ ভিকটিমের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করলে ওই নারীর সকল সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে বলে। নারী কুপ্রস্তাবে রাজি না হয়ায় কবিরাজ তার বাসার অন্য রুম থেকে একটি কাচের গ্লাসে করে পানি পড়া দেয় এবং তা খেলে তার সকল সমস্যা সমাধান হয়ে যাবে বলে জানায়। সেই পানি খেয়ে অজ্ঞান হয়ে গেলে কবিরাজ ওই গৃহবধূকে (ভিকটিম) ধর্ষণ করে। একদিন পরে তার জ্ঞান ফিরলে সে কবিরাজের খাটে শুয়ে আছে এবং তার শরীরের কাপড় এলোমেলো দেখে অবাক হয়ে যায়। পরে ডাক্তারের কাছে গিয়ে চিকিৎসা শেষে সে জানতে পারে তাকে (ভিকটিম) ওই কবিরাজ ধর্ষণ করেছে। পরে এ বিষয়ে র‌্যাবের কাছে অভিযোগ জানালে অভিযুক্ত ওই কবিরাজকে আটক করা হয়। 

র‌্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নূরুল আবছার বলেন, সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিয়ে পানিপড়ার মধ্যে চেতনানাশক ওষুধ মিশিয়ে ভিকটিমকে খাওয়ানো হয়। এতে অজ্ঞান হয়ে গেলে ভিকটিমকে ধর্ষণ করে ওই কবিরাজ। পরে ভিকটিমের অভিযোগের ভিত্তিতে চট্টগ্রামের হাটহাজারীর নিজ বাড়ি থেকে অভিযুক্ত কবিরাজকে আটক করা হয়। তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

-সিভয়েস/একে

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়