Cvoice24.com

বিয়ের প্রলোভনে দুই বছর শারীরিক সম্পর্ক, প্রেমিক গ্রেপ্তার

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৭:৫৭, ১৯ মে ২০২২
বিয়ের প্রলোভনে দুই বছর শারীরিক সম্পর্ক, প্রেমিক গ্রেপ্তার

বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দুই বছর শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন। অত:পর ব্যক্তিগত মুহূর্তের ছবি, ভিডিও ধারণ করে ব্ল্যাকমেইল এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকির অভিযোগে রিয়াজ জুবায়ের (২৮) নামের এক টেইলার্স কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব। 

বুধবার (১৮ মে) রাতে নগরের পাঁচলাইশ থানার আল মাদানী রোডের প্যাশন টেইলার্সে অভিযান চালিয়ে ওই যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়। বৃহস্পতিবার (১৯ মে) বিষয়টি নিশ্চিত করেন র‍্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নুরুল আবছার।

র‌্যাব জানায়, ভুক্তভোগী ওই নারীর সঙ্গে আসামির (টেইলার্স কর্মী) প্রেমের সম্পর্ক হয়। ভুক্তভোগীর অফিস ছুটির পর নানা জায়গায় বেড়াতে নিয়ে যেতো আসামি। দুই মাস আগে আসামি (প্রেমিক) রিয়াজের বর্তমান বাসায় গেলে ভুক্তভোগী ওই নারীকে নগ্ন ছবি তোলার প্রস্তাব দেন। প্রস্তাবে রাজি না হলে প্রেমের সম্পর্ক ছিন্ন করবে বলে রিয়াজ হুমকি দেয়। সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে নীরবতা পালন করলে, সে সময় রিয়াজ তার মোবাইল দিয়ে ভুক্তভোগী ওই নারীর অনেকগুলো নগ্ন ছবি তোলে এবং তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করার প্রস্তাব দেয়। সে প্রস্তাবে রাজি না হলে, রিয়াজ মোবাইলে থাকা নগ্ন ছবিগুলো ভুক্তভোগী নারীর অফিসের বিভিন্ন কর্মচারীদের দেখায়। এমনকি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ারও হুমকি দেন। পরবর্তীতে ২০ হাজার টাকা দিলে ছবি মুছে ফেলার প্রতিশ্রুতি দেয়। ভুক্তভোগী ওই নারী বিকাশের মাধ্যমে রিয়াজকে ২০ হাজার টাকা দেয়। কিন্তু এরপরেও ভুক্তভোগী নারীর নগ্ন ছবি না মুছে জন্মদিন পালনের কথা বলে শহরের একটি হোটেলে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরে বিয়ে করার প্রলোভন দেখায় এবং দুই বছর ধরে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করে। কিছুদিন ধরে ভুক্তভোগী ওই নারীর সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয় রিয়াজ। তখন বাধ্য হয়ে রিয়াজের পরিবারের কাছে বিষয়টি খুলে বলে। কিন্তু তাকে কোনো সাহায্য না করে গভীর রাতে অপমান করে ঘর থেকে বের করে দেয় রিয়াজের পরিবার। 

র‌্যাবের এই কর্মকর্তা বলেন, ‘আসামি রিয়াজ (২৮) পেশায় একজন দর্জি (টেইলার্স কর্মী)। তিনি বিভিন্ন নারীর সঙ্গে সম্পর্ক করে একপর্যায়ে তাদের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করতেন। তাদের অজান্তেই স্পর্শকাতর মুহূর্তের ভিডিও ও ছবি তুলে পরে সেগুলো দিয়ে ব্ল্যাকমেইল করতেন। রিয়াজের মোবাইল পরীক্ষা করে বিভিন্ন নারীর সঙ্গে তার সম্পর্কের প্রমাণ পাওয়া যায়। জিজ্ঞাসাবাদে আসামি এসব কথা স্বীকার করেছেন। তার বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।’

সিভয়েস/এসআর
 

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়