Cvoice24.com

কমছে পেঁয়াজের ঝাঁজ

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২০:৪৭, ২১ অক্টোবর ২০২১
কমছে পেঁয়াজের ঝাঁজ

এক মাসের বেশি সময় ধরে হু হু করে বাড়তে শুরু করা পেঁয়াজের দাম কমছে বাজারে। পাইকারি বাজারে সপ্তাহের ব্যবধানে ১৫ টাকা দাম কমে প্রায় সবধরনের পেঁয়াজ কেজি প্রতি বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৫২ টাকায়। ফলে খুচরা বাজারেও কমতে শুরু করেছে পেঁয়াজের ঝাঁজ।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) বিকেলে চট্টগ্রামের বৃহত্তর পাইকারি খাতুনগঞ্জ বাজারে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সরকার সম্প্রতি আমদানি শুল্ক প্রত্যাহার করে নেয়ায় ভারত ও মায়ানমার থেকে পেঁয়াজ আমদানি বেড়েছে। ফলে ধীরে ধীরে নামতে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম। একমাস ধরে বিক্রি হওয়া ৫২ থেকে ৫৫ টাকার ভারতীয় পেঁয়াজ মঙ্গলবার আর বুধবারে বিক্রি হয়েছে ৫০ টাকায়। মিয়ানমারের পেঁয়াজ মানভেদে বিক্রি হয়েছে ২২ থেকে ৪২ টাকায়। আজ বৃহস্পতিবার ভারতীয় পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৪৫ টাকায়। এছাড়া মিয়ানমারের পেঁয়াজ মানভেদে বিক্রি হচ্ছে ২০ থেকে ৪০ টাকায়।

এদিকে পাইকারি বাজারে দাম পড়ায় প্রভাব পড়েছে খুচরা বাজারেও। মঙ্গলবার আর বুধবারে খুচরা বাজারে  ৬৫ টাকায় বিক্রি হওয়া ভালো মানের ভারতীয় পেঁয়াজ আজ বৃহস্পতিবার বিক্রি হচ্ছে ৫৫ টাকায়।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, আমদানি শুল্ক প্রত্যাহার করলেও খুব একটা স্বস্তিতে নেই তারা। মিয়ানমার থেকে আমদানি করা পেঁয়াজ ভোগাচ্ছে তাদের। বৈরি আবহাওয়া আর বেশি দামে এই পেঁয়াজ আমদানি করে এখন কেজিপ্রতি তাদের গচ্ছা দিতে হচ্ছে কেজিপ্রতি ১০ থেকে ১৫ টাকায়। এই লোকসান কাটিয়ে উঠতে ফের দর বাড়ার শঙ্কার কথাও জানিয়েছেন তারা। 
 
খাতুনগঞ্জের হামিদুল্লাহ মিঞা মার্কেট কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ইদ্রিস সিভয়েসকে বলেন, ভারতীয় পেঁয়াজের দাম বেড়ে যাওয়ায় খুচরা ব্যবসায়ীরা প্রচুর পরিমাণে মিয়ানমারের পেঁয়াজ মজুদ করেছিল। বর্তমানে মিয়ানমারের পেঁয়াজ নিম্নমানের হওয়ায় খুচরা ব্যবসায়ীরা মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন। ফলে পাইকারি বাজারে মিয়ানমারের পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে না। লোকসান কমাতে আমরা এখন বাধ্য হয়ে এই পেঁয়াজ ভ্যানওয়ালাদের কাছে বিক্রি করছি। ভারতীয় পেঁয়াজের দাম এখনো স্থিতিশীল পর্যায়ে আসেনি, তবে কমতে শুরু করেছে।

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়