Cvoice24.com

জেসিআই ইয়ুথ সামিট সাড়া ফেলেছে চট্টগ্রামে

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২০:২৫, ১ অক্টোবর ২০২২
জেসিআই ইয়ুথ সামিট সাড়া ফেলেছে চট্টগ্রামে

নগরের জিইসি কনভেনশন সেন্টারে আয়োজিত আয়ুথ সামিটে তরুণরা।

তরুণদের  সৃজনশীল চিন্তাভাবনা ও দক্ষতাকে বাস্তবে রূপ দিতে প্রথমবারের মতো জুনিয়র চেম্বার চট্টগ্রাম আয়োজন করেছে সময়ের সেরা ইয়ুথ ফেয়ার ‘জেসিআই চট্টগ্রাম ইয়ুথ সামিট’। প্রথমবারের মতো চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত হওয়া এ ইয়ুথ ফেয়ারে তরুণদের ব্যাপক সাড়া মিলেছে।

নগরের জিইসি কনভেনশন সেন্টারে ২৯ সেপ্টেম্বর থেকে পহেলা অক্টোবর অব্দি তিন দিন ব্যাপী এই আয়োজনের আজ  শনিবার (১ অক্টোবর)  ছিল শেষ দিন। সামিটের শেষ দিনে আইডিয়া কন্টেস্ট প্রতিযোগিতায় ঘোষণা করা হবে বিজয়ীদের নাম। যেখানে দেশের নামকরা বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক পর্যায়ের নির্বাচিত দশটি দল অংশগ্রহণ করেছে। এর পাশাপাশি নিজস্ব পণ্য ও সেবা নিয়ে ৪৬টি কোম্পানি অংশগ্রহণ করেছে এই ইয়ুথ সামিটে। যেখানে আছে এপিক হেলথ, স্পিকার কাউন্সিল, রেড এক্স, করডন ব্লু ইঞ্জিনিয়ারিং, সেফ টেক, ইকোজেন লিমিটেডসহ আরও অনেকে।   

যুব শক্তি, চাকরী, উদ্যোক্তা, সেমিনার এই চারটি বিষয়কে প্রাধান্য দিয়ে সৃজনশীল মেধার বিকাশ এবং নতুন নতুন ব্যবসায় ধারণা এবং বিপনন বিষয়ক সমস্যার সমাধানে আয়োজন করা হয়েছে বিভিন্ন কর্মশালা। 

শনিবার (১ অক্টোবর) এই কর্মশালায় ব্যবসায়িক বিভিন্ন সমস্যা সমাধান, কমিউনিকেশন ডেভেলপমেন্ট নিয়ে আয়োজিত কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশের ডন সামদানি ফ্যাসিলিটেশন এন্ড কনসালটেন্সির প্রধান ইন্সপিরেসনাল অফিসার গোলাম সামদানি ডন। এছাড়াও এই সামিটে দ্বিতীয় দিনে তরুদের উৎসাহ জোগাতে এসেছিলেন দেশের স্বনামধন্য বক্তা ও নগদের প্রধান জনসংযোগ কর্মকর্তা সোলেমান সুখন।  

এই আয়োজনে শেলী জাহান নামে এক দর্শনার্থী সিভয়েসকে বলেন, এখানে এসে অনেকজনের সাথে নতুনভাবে পরিচয় হতে পেরেছি। এর পাশাপাশি চাকরির জন্য সিভি ড্রপ করেছি। আশা রাখছি গত এক বছরের বেকারত্ব এই যাত্রায় দূর হবে।  

ইয়ুথ সামিট প্রথমদিনের অভিজ্ঞতা নিয়ে আয়োজক সাইফুল ইসলাম অলিক সিভয়েসকে বলেন, প্রথম দিনই নতুন নতুন বিজনেস ও সেবার আইডিয়া, সিভি নিয়ে এসেছিলেন তরুণরা। ছিল উদ্যোক্তা হতে বাধা, সমস্যা, সম্ভাবনা নিয়ে নানা প্রশ্ন। আর এই প্রশ্নের জবাব দিয়েছিল সফল ব্যক্তিত্বরা। একঝাঁক সফল তরুণ উদ্যোক্তা শিল্পপতিদের মিলনমেলায় পরিণত হয়েছিল এই ইয়ুথ সামিটের মঞ্চ। এর মধ্যে অনেকেই ছিলেন যারা এর আগে জেসিআই চট্টগ্রামের হাল ধরেছিলেন শক্ত হাতে।  

জুনিয়র চেম্বার ইন্টারন্যাশনাল চট্টগ্রামে প্রেসিডেন্ট আবু বকর শাহেদ (শান) সিভয়েসকে বলেন, আমাদের এই প্রথম ইয়ুথ সামিট নিয়ে চট্টগ্রামে ব্যাপক সাড়া পেয়েছি। আজকে শেষ দিনেও মানুষের ভিড় দেখে থাকার মতো। আমাদের এই আয়োজন কেবল তরুণ উদ্যোক্তাদের নিয়ে হয়নি; অনেকে নতুন চাকরীর সন্ধানে এসেছিল। আশা রাখছি আমাদের এই আয়োজন আরও বড় পরিসরে প্রতি বছর করা হবে।  

সিভয়েস-ডিসি

Nagad

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়