Cvoice24.com
corona-awareness

রেকর্ড আবেদন চবিতে, প্রতি আসনে লড়বেন ৪০ শিক্ষার্থী

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১১:২৩, ৮ মে ২০২১
রেকর্ড আবেদন চবিতে, প্রতি আসনে লড়বেন ৪০ শিক্ষার্থী

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে যাওয়ার শাটল ট্রেন

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের প্রথমবর্ষ ভর্তি পরীক্ষায় মোট আবেদন জমা পড়েছে ১ লাখ ৯৫ হাজার ৭৯২টি। এ রেকর্ড আবেদনের ফলে প্রতি আসনের বিপরীতে ৪০ শিক্ষার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। 

গত ১২ এপ্রিল থেকে শুরু হয়ে ভর্তি পরীক্ষায় বসার এ আবেদন প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে গতকাল। এছাড়া আগামী ১৮ মে পর্যন্ত আবেদন প্রক্রিয়ার চারটি বিষয় সংশোধন করতে পারবেন ভর্তিইচ্ছুরা। চবি আইসিটি সেলের পরিচালক প্রফেসর ড. মোহাম্মদ খাইরুল ইসলাম শনিবার (৮ এপ্রিল) সকালে সিভয়েসকে তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন। 

ড. খাইরুল ইসলাম বলেন, ‘গতকাল ৭ মে রাত ১১টা ৫৯ মিনিট শেষ সময় পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষার জন্য মোট আবেদন করেছেন ১ লাখ ৯৫ হাজার ৭৯৩ শিক্ষার্থী। তবে এর মধ্যে আবেদনের ফি দেয়নি আরও ১৪ হাজার শিক্ষার্থী। আগামী ১১ মে রাত ১২টা পর্যন্ত অবশ্য আবেদনের ফি দেওয়া যাবে।’

এদিকে ভর্তি পরীক্ষায় চারটি ও দুটি উপ-ইউনিট মিলে মোট ৪ হাজার ৯২৬টি আসন রয়েছে চবিতে। এর বিপরীতে শুক্রবার পর্যন্ত শুধুমাত্র ‘এ’ ইউনিটেই রেকর্ড আবেদন জমা পড়েছে, ৭০ হাজার ২০৭টি।  অন্যদিকে ‘বি’ ইউনিটে ৪৫ হাজার ৭৯২ জন, ‘বি-১’ উপ- ইউনিটে ৩ হাজার ৪১৫ জন, ‘সি’ ইউনিটে ১৪ হাজার ২৭১ জন, ‘ডি’ ইউনিটে ৫৭ হাজার ৮৯ জন এবং ডি-১ উপ-ইউনিটে ৫ হাজার ১৮ জন অনলাইনে আবেদন করেছেন। 

দেখা যায়, ‘এ’ ইউনিটের ভর্তিযুদ্ধে প্রতি আসনে লড়বেন ৫৮ জন করে। ‘বি’ ইউনিটে প্রতি আসনে লড়বেন ৩৮ জন। ‘বি-১’ উপ-ইউনিটে লড়বেন ২৭ জন। ‘সি’ ইউনিটে প্রতি আসনে লড়বেন ৩২ জন। ‘ডি’ ইউনিটে প্রতি আসনে লড়বেন ৪৯ জন এবং ‘ডি-১’ উপ-ইউনিটে লড়বেন ১৬৭ জন। আর গড়ে প্রতি আসনের বিপরীতে ৪০ শিক্ষার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।   

এ বিষেয় আইসিটি সেলের পরিচালক সিভয়েসকে বলেন, ‘এবার আইসিটি সেলের তত্ত্বাবধানে প্রথমবারের মতো নিজস্ব সার্ভারে ভর্তি আবেদন কার্যক্রম পরিচালনা করছে চবি। আগামী ১৮ মে পর্যন্ত ভর্তিইচ্ছু শিক্ষার্থীরা চারটি বিষয় সংশোধন করতে পারবেন। তা হলো— কোটা সংশোধন, মোবাইল নম্বর পরিবর্তন, ইংরেজি মাধ্যম থেকে বাংলা মাধ্যম এবং আবেদনকারীর ছবি। এসব বিষয়গুলো অনলাইনে সংশোধন করতে পারবেন।’

প্রবেশপত্র ডাউনলোড 
‘বি’ ইউনিট ৭ জুন, ‘ডি’ ইউনিট ৯ জুন, ‘এ’ ইউনিট ১৩ জুন, ‘সি’ ইউনিট ১৫ জুন, ‘বি-১’ ও  ‘ডি-১‘ উপ-ইউনিট ১৬ জুন থেকে উন্মুক্ত হবে প্রবেশপত্র ডাউলোডের জন্য। প্রতিটি ইউনিটের প্রবেশপত্র ভর্তি পরীক্ষা শুরুর এক ঘণ্টা আগ পর্যন্ত ডাউনলোড করা যাবে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ৪৮টি বিভাগ ও ছয়টি ইনস্টিটিউট রয়েছে। এতে আসন রয়েছে ৪ হাজার ৯২৬টি। এর মধ্যে ‘এ’ ইউনিটে আসন রয়েছে ১ হাজার ২১৪টি, ‘বি’ ইউনিটে ১ হাজার ২২১টি, ‘সি’ ইউনিটে ৪৪২টি, ‘ডি’ ইউনিটে ১ হাজার ১৫৭টি। উপ ইউনিটের মধ্যে ‘বি-১’ ইউনিটে ১২৫টি ও ‘ডি-১’ ইউনিটে ৩০টি আসন রয়েছে।

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়