Cvoice24.com

দায়িত্ব হস্তান্তর না করায় কাট্টলী স্কুলের প্রধান শিক্ষককে আইনি নোটিশ

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২০:৪১, ১৬ জানুয়ারি ২০২২
দায়িত্ব হস্তান্তর না করায় কাট্টলী স্কুলের প্রধান শিক্ষককে আইনি নোটিশ

শিক্ষককে আইনি নোটিশ।

৬০ বছর পূর্ণ হওয়ায় চাকরির মেয়াদ শেষ হয়েছে। নিয়ম অনুযায়ী যেতে হবে অবসরে। অথচ অদৃশ্য ক্ষমতাবলে অবসরে না গিয়ে, চাকরির বিধিমালা লঙ্ঘন করেই কার্যক্রম পরিচালনা করে চলেছেন চট্টগ্রামের কাট্টলী নুরুল হক চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নুর মোহাম্মদ। নিয়ম অনুযায়ী দায়িত্ব হস্তান্তর না করায় ১০ দিন আগে গত ৬ জানুয়ারি মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি) থেকে চিঠি পাঠানো হয় এই শিক্ষককে। চিঠি পাওয়ার পরেও দায়িত্ব হস্তান্তর না করায় দেওয়া হয়েছে আইনি নোটিশ। 

রোববার (১৬ জানুয়ারি) এ আইনি নোটিশ দেন আইনজীবী খোরশেদ আলম।

জানা যায়, গত বছরের ২৮ ডিসেম্বর ৬০ বছর পূর্ণ হয় অভিযুক্ত এ প্রধান শিক্ষকের। চাকরির মেয়াদ পূর্ণ হওয়ার পরেও অবসরে না গিয়ে এবং দায়িত্ব হস্তান্তর না করে বিদ্যালয় হাজিরা খাতায় নিজে স্বাক্ষর করে বেআইনিভাবে কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছেন। যা বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের (স্কুল ও কলেজ) জনবলকাঠামো ও এম.পি. ২০২১ বিধি ১১.১১ নীতিমালার পরিপন্থি। নিয়ম অনুযায়ী, ৬০ বছরের ঊর্ধ্বে চাকরিতে বহাল থাকার কোনো সুযোগ নাই সে কারণে মাউশি থেকে গত ৬ জানুয়ারি চিঠি পাঠানো হয়। অথচ সেই চিঠির ১০ দিন কেটে গেলেও দায়িত্ব হস্তান্তর না করেই নিজের অবস্থায় অনড় রয়েছেন এই প্রধান শিক্ষক। 

আইনজীবী খোরশেদ আলম সিভয়েসকে বলেন, ‘এই প্রধান শিক্ষকের চাকরির মেয়াদ শেষ গত ২৮ ডিসেম্বর। নিয়মানুযায়ী দায়িত্ব হস্তান্তর করে তিনি অবসরে যাবেন। কিন্তু তিনি তা না করেই অদৃশ্য এক মিরাকল পাওয়ারে এখনও বহাল আছেন। মাউশি থেকে চিঠি পাওয়ার পর থেকে তিনি স্কুলে আসছেন না ঠিকই কিন্তু এখনও পর্যন্ত দায়িত্ব হস্তান্তর করেননি। যে কারণে ওই স্কুলের ১৯ জন শিক্ষক আইন নোটিশ দিয়েছেন। সাত দিনের মধ্যে দায়িত্ব হস্তান্তর না করলে তার (প্রধান শিক্ষক) আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

আইনি নোটিশের বিষয়ে বক্তব্য জানতে চাইলে প্রধান শিক্ষক (নিয়মানুযায়ী সাবেক) নুর মোহাম্মদ সিভয়েসকে বলেন, ‘আমি এ বিষয়ে কিছুই জানি না।’

মাউশির চিঠি ও দায়িত্ব হস্তান্তের প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘যেহেতু প্রথম প্রশ্নের জবাব দিয়েছি। এ বিষয়ে আপনাকে আর কিছু বলতে পারছি না। ধন্যবাদ।’

-সিভয়েস/এসআর

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়