Cvoice24.com

চবিতে কর্মচারী নিয়োগে ফোনালাপ ফাঁস: ৪ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন

চবি প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৭:১৪, ৬ আগস্ট ২০২২
চবিতে কর্মচারী নিয়োগে ফোনালাপ ফাঁস: ৪ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়।ছবি: সংগৃহীত

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) কর্মচারী নিয়োগে আর্থিক লেনদেনের ফোনালাপ ফাঁসের ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। চার সদস্যের এই কমিটিকে আগামী ৫ কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

শনিবার (৬ আগস্ট) বিকেলে এ কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে জনিয়েছেন রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস এম মনিরুল হাসান।

তিনি সিভয়েসকে বলেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার অফিসের অফিসার সেলে গ্রন্থাগার সহকারী পদে কর্মরত জনাব মানিক চন্দ্র দাশ চাকুরি দেয়ার নাম করে বিভিন্ন লোকের কাছ থেকে অবৈধভাবে টাকা নিয়েছেন মর্মে একটি সংবাদ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের গোচরীভূত হয়েছে। বিষয়টি তদন্তে আমরা চার সদস্যের কমিটি গঠন করেছি।

কমিটিতে আমানত হলের প্রভোস্ট প্রফেসর নির্মল কুমার সাহাকে আহবায়ক, সহকারী প্রক্টর মো. আহসানুল কবীর, ডেপুটি রেজিস্ট্রার রশীদুল হায়দার জাবেদকে সদস্য ও ডেপুটি রেজিস্ট্রার সৈয়দ ফজলুল করিমকে সদস্য সচিব হিসেবে রাখা হয়েছে।

কমিটিকে ৫ কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। কমিটির রিপোর্ট অনুযায়ী অপরাধীকে শাস্তির আওতায় আনার কথা জানান রেজিস্ট্রার।

প্রষঙ্গত, শনিবার সকালে 'চবিতে ফের শিক্ষক নিয়োগে ফোনালাপ ফাঁস, এবার ৮ লাখ টাকা নেওয়ার অভিযোগ' এই শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ করে চট্টগ্রাম আঞ্চলিক অনলাইন গণমাধ্যম সিভয়েস২৪.কম। সেখানে রেজিস্ট্রার অফিসের নিম্নমান সহকারী মানিক চন্দ্র দাশের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ে তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী নিয়োগ তিন চাকরি প্রার্থীর কাছ থেকে ৮ লাখ ২০ হাজার টাকা নেওয়ার অভিযোগ তুলে ধরা হয়। দুইটি অডিও ও টাকার লেনদেনের ব্যাংক রিসিভ কপি সংরক্ষণে রেখেছে সিভয়েস।

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়