Cvoice24.com

তিন পার্বত্য জেলার অবৈধ ইটভাটা সাত দিনের মধ্যে বন্ধের নির্দেশ

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৬:১৩, ২৫ জানুয়ারি ২০২২
তিন পার্বত্য জেলার অবৈধ ইটভাটা সাত দিনের মধ্যে বন্ধের নির্দেশ

হাইকোর্ট। ছবি: সংগৃহীত

আগামী সাত দিনের মধ্যে পার্বত্য জেলা খাগড়াছড়ি, বান্দরবান ও রাঙামাটির সব অবৈধ ইটভাটার কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। 

মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) বিচারপতি জে বি এম হাসান এবং বিচারপতি ফাতেমা নজীবের আদালত এ আদেশ দেন। 

একইসঙ্গে আদালত বান্দরবান ও রাঙামাটির বিভিন্ন স্থানে লাইসেন্সবিহীন পরিচালিত সকল ইটভাটা বন্ধে বিবাদীদের নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ হবে না  এবং অবৈধ ইটভাটা মালিকদের বিরুদ্ধে লাইসেন্সবিহীন ইটভাটা পরিচালনার কারণে কেন ইটভাটা নিয়ন্ত্রণ আইন ২০১৩ এর ধারা ৪,৫,১৪,১৮ অনুসারে ব্যবস্থা নিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না ৪ সপ্তাহের মধ্যে তা জানাতে রুল জারি করেছেন।


পাহাড় ও বনের গাছ কেটে ইটভাটার কাঁচামাল হিসেবে ব্যবহার সংক্রান্তে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশিত হলে জনস্বার্থে হিউম্যান রাইটস এন্ড পিস ফর বাংলাদেশের পক্ষে অ্যাডভোকেট মো. ছারওয়ার আহাদ চৌধুরী, অ্যাডভোকেট একলাছ উদ্দিন ভুইয়া এবং অ্যাডভোকেট রিপন বাড়ৈ একটি রিট আবেদন করেন। ওই রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) চেয়ারম্যান ও সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী মনজিল মোরশেদ।

তিনি বলেন, ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন (নিয়ন্ত্রণ) আইন ২০১৩ (সংশোধিত ২০১৯) এর ৪ ধারা অনুসারে কোন ইট ভাটা লাইসেন্স ছাড়া চলতে পারবে না। চালালে ধারা ১৪ অনুসারে ২ বছরের সাজার বিধান আছে। তা সত্বেও পার্বত্য চট্টগ্রামের ৩ জেলার লাইসেন্সবিহীন পরিচালিত সকল ইটভাটার বিরুদ্ধে প্রশাসন কোন কার্যকরি ব্যবস্থা নিচ্ছে না। তাছাড়া এই আইনের ৫ ধারায় পাহাড়ের মাটি কেটে ইটভাটায় ব্যবহার নিষিদ্ধ এবং তা করলে একই আইনের ১৫ ধারায় ২ বছরের সাজার বিধান রয়েছে। কিন্তু পাহাড় কেটে ইটভাটার কাঁচামাল হিসেবে ব্যবহারে তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যাবস্থা গ্রহন করা হচ্ছে না। এ কারণে পার্বত্য এলাকার অনেক পাহাড় ধ্বংস হচ্ছে এবং পরিবেশের উপর মারাত্বক হুমকির সৃষ্টি হয়েছে। 

তিনি বলেন, বিবাদীদের নিস্ক্রিয়তার কারণে প্রশাসনের চোখের সামনে লাইসেন্সবিহীন ইটভাটাগুলি পরিচালিত হচ্ছে যা সম্পূর্ণ অবৈধ। আদালত শুনানি শেষে এক অন্তবর্তিকালিন আদেশে পার্বত্য চট্রগ্রামের জেলা প্রশাসন ও পরিবেশ অধিদপ্তর সহ অন্যদেরকে পার্বত্য চট্রগ্রামের খাগড়াছড়ি, বান্দরবান ও রাঙামাটি এলাকায় পরিচালিত সকল লাইসেন্স বিহীন ইটভাটা আগামী ৭ দিনের মধ্যে বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছেন। এছাড়া ২ সপ্তাহের মধ্যে কমপ্লায়েন্স রিপোর্ট দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন। আদালত অপর এক আদেশে লাইসেন্স ব্যাতিত পরিচালিত সকল ইটভাটার তালিকা আগামD ৬ সপ্তাহের মধ্যে প্রস্তুত করে আদালতে এফিডেভিট দাখিলের জন্য তিন জেলার জেলা প্রশাসক ও চট্রগ্রাম এলাকার পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিচালকসহ অন্যদেরকে নির্দেশ দিয়েছেন।

পরিবেশ সচিব, ডিজি, পরিবেশ অধিদপ্তর, পরিচালক, পরিবেশ অধিদপ্তর চট্রগ্রাম, তিন জেলার জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, ইউএনও, ওসি গুইমালা, দিঘীনালা এবং আলীকদমসহ ২৪জনকে বিবাদী করা হয়েছে।

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়