Cvoice24.com

কলকাতাকে ১৯৩ রানের চ্যালেঞ্জ চেন্নাইয়ের

ক্রীড়া ডেস্ক

প্রকাশিত: ২২:১৬, ১৫ অক্টোবর ২০২১
কলকাতাকে ১৯৩ রানের চ্যালেঞ্জ চেন্নাইয়ের

শুরুটা করে দিয়েছিলেন ঋতুরাজ গায়কোয়াড়। তার ফেরার পড় চললো ফাফ ডু প্লেসিসের ঝড়, শেষে তাতে যোগ দিলেন মইন আলীও। আইপিএলের ফাইনালে চেন্নাই সুপার কিংস রীতিমতো এভারেস্টসম এক স্কোর গড়ে ফেলেছে তাতে। কলকাতা নাইট রাইডার্সের সামনে লক্ষ্যটা এখন ১৯৩ রানের।

শুরুর দুই ওভারে চেন্নাইকে বশেই রেখেছিল কলকাতা। লাগাম ছুটল ইনিংসের তৃতীয় ওভারে। সাকিব আল হাসানের করা ওভারটায় গায়কোয়াড় মারলেন একটা ছক্কা আর একটা চার। লাগামটা ছুটে গেল সেখানেই।

তবে দুটো বাউন্ডারির জন্য নয়, এর পরের বলটার জন্য সে ওভারটা শেষতক আফসোসের কারণ হয়ে যেতে পারে কলকাতার। ওভারের শেষ বলটা সাকিব রেখেছিলেন লেগ স্টাম্পে। তা ফাফ ডু প্লেসিসের প্যাড ছুঁয়ে গিয়েছিল উইকেটরক্ষক দীনেশ কার্তিকের কাছে, দক্ষিণ আফ্রিকান ব্যাটার তখনো ক্রিজের বাইরে। ভারতীয় উইকেটরক্ষক কিনা সেটা হাতেই জমাতে পারলেন না। নিশ্চিত স্টাম্পিংয়ের সুযোগটা খোয়া গেল তাতে।

সেই যে শুরু ডু প্লেসিসের তাণ্ডবের, শেষ বলের আগ পর্যন্ত তা আর থামানো হলো না কলকাতার। ঋতুরাজকে সঙ্গে নিয়ে পাওয়ারপ্লেতেই দলকে এনে দিলেন ৫০ রান। পাওয়ারপ্লে শেষে রানেও যেন কিছুটা ভাটা পড়ল চেন্নাইয়ের। নবম ওভারে সুনীল নারাইনের বলে বিদায় নিলেন ঋতুরাজ, দলের স্কোরবোর্ডে রান তখন ৬৫। এর আগেই অবশ্য আইপিএলের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকার চূড়ায় বসে গেছেন তিনি, সঙ্গে একটা কীর্তিও গড়ে ফেলেছেন তিনি। আইপিএলের ১৩ বছরের ইতিহাসে যে তার চেয়ে কম বয়সী কেউ হতে পারেননি অরেঞ্জ ক্যাপের মালিক!

ঋতুরাজের বিদায়ের পর এলেন রবিন উথাপ্পা, দলের রানের চাকায় যেন গতি এল এরপর। সাকিবের করা দশম ওভারে দুজন মিলে তুললেন ১৫ রান। লকি ফার্গুসনের পরের ওভারে তুললেন ১৭। সেই যে রকেটে চড়ল চেন্নাইয়ের ইনিংস, তা আর থামাতে পারল না কলকাতা।

সুনীল নারাইনের বলে এরপর উথাপ্পা ১৫ বলে ৩১ রান করে ফিরলেন বটে, তাতে লাভ হলো না। শেষে মইন আলী খেললেন ২০ বলে ৩৭ রানের অপরাজিত এক ইনিংস। অন্য প্রান্তে ডু প্লেসিসও সুতোয় ঢিল দেননি একটু। ৫৯ বলে ৮৬ রানের ইনিংস খেলে আউট হলেন বটে, কিন্তু সেটা শিভম মাভির করা ইনিংসের শেষ বলে। ততক্ষণে রীতিমতো ১৯২ রানের পাহাড়ে চড়ে গেছে চেন্নাই। তাতে কলকাতার সামনে নিজেদের তৃতীয় আইপিএল শিরোপা জেতার জন্য বড় এক চ্যালেঞ্জই দাঁড়িয়ে গেল বৈকি!

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়