Cvoice24.com

মিরসরাইয়ে একটি ড্রেন হাসি ফুটালো দুশতাধিক কৃষকদের মুখে

মিরসরাই প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১১:৪৪, ৩ জুলাই ২০২২
মিরসরাইয়ে একটি ড্রেন হাসি ফুটালো দুশতাধিক কৃষকদের মুখে

এই ড্রেনটি হাসি ফুটিয়েছে দুশতাধিক কৃষকদের মুখে

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ের খৈইয়াছড়া ইউনিয়নের কয়েক গ্রামের কৃষকদের জন্য জলাবদ্ধতা ছিল অভিশাপের মতো। অপরিকল্পিতভাবে বাড়িঘর নির্মাণের ফলে বর্ষায় বিলের পানি চলাচলের পথ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় এক যুগ ধরে ইউনিয়নের দুয়ারু, পোলমোগরা ও সৈদালী গ্রামের প্রায় দুই শতাধিক কৃষক ৫শ’ একর জমিতে চাষাবাদ করতে না পেরে চরম বিপাকে পড়ে। জলাবদ্ধতা নিরসনে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা বেশ কয়েকবার উদ্যোগ নিয়েও সফল হননি। অবশেষে ওই জলাবদ্ধতা নিরসনে ৪৪ মিটারের একটি ড্রেন নির্মাণ করে দেওয়ায় স্বস্তি ফিরে এসেছে এখানকার কৃষকদের মুখে। ইউনিয়নের তিন গ্রামের প্রায় দুই শতাধিক কৃষক আবার শুরু করতে পারবে আমন মৌসুমের চাষ। 

গত ২৫ জুন ড্রেনের উদ্বোধন করে বিলের পানি চলাচলের পথ উন্মোচন করেন মিরসরাই উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. জসিম উদ্দিন। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিনহাজুর রহমান, সহকারি কমিশনার (ভূমি) এনএমএস জামিউল হিকমা, উপজেলা প্রকৌশলী রনি সাহা, খইয়াছড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহফুজুল হক।

দুয়ারু গ্রামের কৃষক আবুল কাশেম ও সিরাজুল ইসলাম জানান, দুয়ারু বিলের ৫শ’ একর তিন ফসলি জমিতে দুয়ারু, পোলমোগরা ও সৈদালী গ্রামের প্রায় দুই শতাধিক কৃষক চাষাবাদ করতো। বর্ষায় বিলের পানি দুয়ারু ছড়া দিয়ে সাহেরখালী খালে গিয়ে পড়তো। কিন্তু ছড়ার পাশে অপরিকল্পিতভাবে বাড়িঘর নির্মাণে করায় বর্ষায় বিলের পানি চলাচলের পথ বন্ধ হয়ে যায়। এক যুগ ধরে ওই বিলে সারা বছর পানি জমে থাকায় বন্ধ হয়ে থাকে চাষাবাদ। বিষয়টি নিয়ে গত কয়েক বছর জনপ্রতিনিধিসহ প্রশাসনের দ্বারে দ্বারে ঘুরতে থাকে কৃষকরা। অবশেষে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বিলের পানি চলাচলের জন্য ড্রেন নির্মাণ করে দেওয়ায় স্বস্তি ফিরে পায় কৃষকরা। এবার তারা আবারও করতে পারবে আমন চাষ।

শনিবার (২ জুলাই) দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, দুয়ারু বিলে আগের মতো জলাবদ্ধতা নেই। ৪৪ মিটার দৈর্ঘ্যরে নির্মিত ড্রেন দিয়ে পানি প্রবাহিত হয়ে খালে পড়ছে। পানি নিস্কাসন হওয়ার কারণে এবার আমন আবাদে আর প্রতিবন্ধকতা থাকবেনা। 

খৈইয়াছড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহফুজুল হক জুনু বলেন, দুয়ারু বিলের জলাবদ্ধতা দীর্ঘদিনের একটি সমস্যা। জলাবদ্ধতার কারণে প্রায় ৫শ’ একর জমিতে চাষাবাদ হত না। উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার আন্তরিক উদ্যোগের কারণে সমস্যাটি নিরসন করা হয়েছে। এলাকার জমির মালিক ও কৃষকরা অনেক খুশি।

এই ড্রেনটি হাসি ফুটিয়েছে দুশতাধিক কৃষকদের মুখে

মিরসরাই উপজেলা প্রকৌশলী রনি সাহা জানান, উপজেলা প্রশাসন থেকে দুয়ারু বিলের পানি চলাচলের জায়গা নির্ধারণ করে দেওয়ার পর ড্রেন নির্মাণে ৮ লাখ টাকা বরাদ্ধ দেওয়া হয়। এরপর ৪৪ মিটার দৈর্ঘ ও ১০ ফুট চওড়া একটি ড্রেন নির্মাণ করে দেওয়া হয়। ওই ড্রেন দিয়ে বিলে পানি দুয়ারু ছড়া হয়ে সাহেরখালী খালে গিয়ে পড়বে। 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিনহাজুর রহমান জানান, জমিগুলোতে জলাবদ্ধতার কারণে দীর্ঘদিন স্থানীয় কৃষকরা চাষবাদ থেকে বঞ্চিত হয়ে আসছে। সরকার যেখানে এক ইঞ্চি জমিও অনাবাদি না রাখার কথা বলে আসছে সেখানে সামান্য উদ্যোগ না নেওয়ার কারণে ৫শ’ একর তিন ফসলি জমি বছরের পর বছর অনাবাদি থাকছে। ড্রেন নির্মাণের ফলে এবছর থেকে জমিগুলো আর অনাবাদি থাকবে না। 

মিরসরাই উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. জসীম উদ্দিন জানান, ড্রেনটি নির্মাণ হওয়ায় স্থানীয় কৃষকদের মুখে হাসি ফুটেছে। তাদের দীর্ঘদিনের স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। ড্রেনটি নির্মাণ উদ্যোগে থাকতে পেরে তিনি নিজেকে ধন্য মনে করছেন।
 

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়