Cvoice24.com

সিভয়েসের সংবাদ: চট্টগ্রামের বস্তিতেও শুরু হচ্ছে টিকাদান কার্যক্রম

সিভয়েস প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৯:৩৪, ২০ নভেম্বর ২০২১
সিভয়েসের সংবাদ: চট্টগ্রামের বস্তিতেও শুরু হচ্ছে টিকাদান কার্যক্রম

‘ঢাকার বস্তিতে করোনার টিকা দিলেও চট্টগ্রামে খবর নেই’ শিরোনামে সিভয়েসে প্রকাশিত সংবাদ।

ঢাকায় বস্তিবাসীদের জন্য টিকা প্রদান কার্যক্রম চালুর পর এবার চট্টগ্রামেও বস্তিবাসীদের টিকাদান কার্যক্রম শুরু হতে যাচ্ছে। প্রথম ধাপে খুলশী থানাধীন ঝাউতলা ছিন্নমূল বস্তির ২ হাজার বাসিন্দাকে চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের উদ্যাগে টিকার আওতায় আনা হবে।

শনিবার (২০ নভেম্বর) এক জরুরি সভায় এ সিদ্বান্ত নেয়া হয়। প্রাথমিকভাবে রেজিস্ট্রেশন ছাড়াই রোববার থেকে বৃহস্পতিবার এই ৪ দিন তাদের টিকা দেওয়া হবে।

সিদ্বান্ত অনুযায়ী, রোববার, মঙ্গলবার, বুধবার ও বৃহস্পতিবার চার দিনে ২ হাজার বস্তিবাসীকে অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা প্রদান করা হবে। প্রতিদিন দুপুর ২টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত টিকাদান কার্যক্রম চলবে। টিকা প্রদানের জন্য ৩ সদস্যের একটি টিমও গঠন করা হয়েছে।

এর আগে, গতকাল শুক্রবার (১৯ নভেম্বর) ‘ঢাকার বস্তিতে করোনার টিকা দিলেও চট্টগ্রামে খবর নেই’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশ করে সিভয়েসটুয়েন্টিফোরডটকম। যেখানে বস্তিবাসীর টিকা প্রদানের জন্য স্বাস্থ্য বিভাগের উদ্যোগ না থাকার বিষয়টি তুলে ধরা হয়। সংবাদ প্রকাশের একদিনের মাথায় জরুরি বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

প্রতিবেদন প্রকাশের জন্য চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সেলিম আকতার চৌধুরীর বক্তব্য নেওয়া হলে তিনি সিভয়েসকে বলেন, ‘এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোন নির্দেশনা পাওয়া যায়নি। নির্দেশনা পেলে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

উল্লেখ্য, ঢাকায় জন্ম নিবন্ধন বা জাতীয় পরিচয় পত্র না থাকলেও, বস্তিবাসীদের তালিকা করে সবাইকেই টিকার আওতায় আনার কাজ শুরু করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। সিটি করপোরেশনের ব্যবস্থাপনায় গত মঙ্গলবার (১৬ নভেম্বর) থেকে ঢাকার কড়াইল বস্তিতে ১৮ বছর বয়সের বেশি সবাইকে টিকা দেওয়ার কার্যক্রম শুরু হয়। বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) সর্বশেষ বস্তিশুমারির ২০১৪ সালের তথ্য অনুযায়ী, দেশে মোট বস্তির মধ্যে ১৬ শতাংশ বা ২ হাজার ২১৬টি চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন এলাকায়। এসব বস্তিতে মোট ১ লাখ ২৮ হাজার পরিবার বসবাস করে। প্রতিটি পরিবার বা খানার গড় সদস্য সংখ্যা ৩ দশমিক ৭৩।

Add

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়